এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > বিজেপির সাধের গড় চূর্ণ করার প্রধান মাস্টারমাইন্ড শুভেন্দু অধিকারীই! মানছে গোটা খড়্গপুরই

বিজেপির সাধের গড় চূর্ণ করার প্রধান মাস্টারমাইন্ড শুভেন্দু অধিকারীই! মানছে গোটা খড়্গপুরই


লোকসভা নির্বাচনে একপ্রকার ধরাশায়ী অবস্থাই হয়েছিল তৃণমূলের। বিয়াল্লিশে-৪২ স্লোগান তুলে মোটে ২২ টি আসন ধরে রাখতে পেরেছিল শাসকদল। কিন্তু এবার রেকর্ড ভাঙল। রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের ছেড়ে যাওয়া খড়্গপুর সদর আসনে গেরুয়া শিবিরকে ২০,৮১১ ভোটে পরাস্ত করলেন তৃণমূলের প্রার্থী প্রদীপ সরকার।

বাংলায় বিধানসভা উপনির্বাচনে ঘাসফুলের দাপট, পুরোপুরি উধাও গেরুয়া ঝড়। খোদ রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের জেতা আসনে ভয়াবহ হার হল বিজেপির। আর গোটা তৃণমূল শিবিরই কার্যত সমস্বরে মেনে নিচ্ছে – খড়্গপুরে বিস্ময় ঘটালেন তৃণমূলের তরুণ নেতা তথা পরিবহণ ও সেচমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। লোকসভা ভোটের তুলনায় খড়্গপুরে ২৪,১৩৫ টি ভোট বাড়িয়ে ফেলল তৃণমূল।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

শুভেন্দু অধিকারী বলেন , “আমি তো গোড়া থেকেই বলেছি দিলীপ ঘোষ অকর্মণ্য। খড়্গপুরের জন্য গত সাড়ে চার বছরে কোনও কাজ করেননি। দিল্লিতে বিজেপি সরকারের থেকেও রেলনগরীর জন্য কোনও প্রকল্প আদায় করে আনতে ব্যর্থ তিনি। তারই ফল পেয়েছে বিজেপি”। তাঁর কথায়, “মানুষ উন্নয়নের জন্য ভোট দিয়েছেন। ভোট প্রচারে সেই প্রতিশ্রুতিই দিয়েছিলাম আমরা”।

প্রসঙ্গত, নির্বাচনের আগে শুভেন্দুবাবু দাবি করেছিলেন, বয়সে দিলীপবাবু তাঁর থেকে বড় হতে পারেন, কিন্তু রাজনীতিতে অনেক ছোট। সেই নিয়ে পাল্টা প্রতিক্রিয়াও দিয়েছিলেন দিলীপ ঘোষ। কিন্তু খড়্গপুরের ইভিএম খুলতেই দেখা গেল ‘বাজিগর’ সেই শুভেন্দু অধিকারীই। কার্যত নাকের জলে-চোখের জলে করে তিনি হারিয়ে দিলেন দিলীপবাবুদের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!