এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে লড়াইটা তৃণমূল বনাম বিজেপি – স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন শুভেন্দু অধিকারী

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে লড়াইটা তৃণমূল বনাম বিজেপি – স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন শুভেন্দু অধিকারী

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে – এ যেন ভূতের মুখে রাম নাম! যেখানে তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বোচ্চ নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অন্যান্য শীর্ষনেতারা প্রতিটা জনসভায় রীতিমত দাবি করে বলছেন, বাংলায় বিজেপির কোনো অস্তিত্ব নেই, ২০১৪-এর জেতা দুটো আসনও নাকি বিজেপি আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে ধরে রাখতে পারব না! সেখানে, সম্পূর্ণ উল্টো পথে হেঁটে তৃণমূল কংগ্রেসের হেভিওয়েট নেতা শুভেন্দু অধিকারী স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন, মুর্শিদাবাদ জেলায় এবার লোকসভা ভোটে বিজেপি বনাম তৃণমূলের লড়াই হবে! যা নিয়ে রীতিমত চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে রাজ্য রাজনীতিতে।

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে বাংলার শাসক দল তৃণমূলের বিরুদ্ধে জোর লড়াই করতে যখন রাজ্যে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসতে মরিয়া হয়ে উঠেছে বিধান ভবনের কংগ্রেস নেতারা, ঠিক তখনই সেই একদা কংগ্রেসের শক্ত ঘাঁটি বলে পরিচিত মুর্শিদাবাদ জেলায় গিয়ে সেই প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্বদেরই কড়া ভাষায় সমালোচনা করলেন মুর্শিদাবাদ জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক তথা রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। বলা বাহুল্য, এদিনের এই সভায় উপস্থিত হয়ে শুভেন্দু অধিকারীর তোপের মুখে ছিলেন প্রদেশ কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি অধীর চৌধুরী।

হাতের মুঠোয় আরও সহজে প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে যোগ দিন –

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

সূত্রের খবর, মুর্শিদাবাদের বহরমপুরে মহিলা তৃণমূল কংগ্রেস আয়োজিত সভায় উপস্থিত হয়ে রাজ্যের বিরোধী দল বিজেপি, কংগ্রেস এবং সিপিএমকে একযোগে আক্রমণ করেন শুভেন্দু অধিকারী। এদিনের এই সভায় শুভেন্দুবাবু ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা তৃণমূলের সহ সভাপতি অশোক দাস, টাউন তৃণমূল সভাপতি নাড়ুগোপাল মুখোপাধ্যায়, জেলা পরিষদের সভাধিপতি মোশারফ হোসেন মন্ডল সহ অন্যান্যরা। আর এই সমস্ত নেতৃত্বকে নিয়েই অধীর চৌধুরীর প্রয়াত সহধর্মিনী তথা দলের মহকুমা সভাপতি অধীর চৌধুরীর বাড়িতে দেখা করতে যান শুভেন্দু অধিকারী।

এমনকী এই প্রয়াত অর্পিতাদেবীর বাড়িতে গিয়ে তাঁর বাবা-মা ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের কাছে সমবেদনা জানান তিনি। আর এরপরই বহরমপুরের টেক্সটাইল মোড়ে মহিলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভায় যোগ দিয়ে স্থানীয় কংগ্রেস নেতৃত্বদের উদ্দেশ্যে প্রবল তোপ দাগেন শুভেন্দু অধিকারী। তিনি বলেন, “বিজেপির বিরুদ্ধে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের লড়াইকে সকলেই কুর্নিশ করছেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়র পাশে সোনিয়া গান্ধী, রাহুল গান্ধী থাকলেও এই জেলার কংগ্রেস নেতারা উল্টো পথে হাঁটতে চাইছেন। দিলীপ ঘোষকে ফুলের তোড়া দিয়ে মইনুল হক স্বাগত জানাচ্ছেন। যোগী আদিত্যনাথের সঙ্গে অধীর চৌধুরী একসাথে লাঞ্চ করছেন”।

শুভেন্দুবাবু আরও বলেন, “তাই এখানকার বেআইনি কংগ্রেসিরা ভোট কাটার চেষ্টা করলে আপনারা তা রুখে দেবেন। সাম্প্রদায়িক বিজেপিকে এক ইঞ্চিও জমি ছাড়া হবে না”। এদিকে এই সমাবেশ থেকেই বাংলার মা-বোনেদের সম্মান জানিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভবিষ্যতে দেশের প্রধানমন্ত্রী রূপে তুলে ধরার চেষ্টা করেন তৃনমূলের হেভিওয়েট মন্ত্রী। তিনি বলেন, “তৃনমূলে মা,দিদি এবং বোনের সম্মান রয়েছে। পঞ্চায়েতে মহিলাদের জন্য ৫০% আসন সংরক্ষণ আমাদের সরকারই করেছে”। পাশাপাশি, এদিনের এই সমাবেশ থেকে ফের প্রদেশ কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি তথা বর্তমান কংগ্রেস সাংসদ অধীর চৌধুরীর নাম না করে তাঁকে চরিত্র নিয়ে প্রশ্ন তোলেন শুভেন্দুবাবু।

Top
error: Content is protected !!