এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মেদিনীপুর > গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমেই আবার ঘুরে দাঁড়াবে তৃণমূল, আশায় বিভোর শুভেন্দু অধিকারী

গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমেই আবার ঘুরে দাঁড়াবে তৃণমূল, আশায় বিভোর শুভেন্দু অধিকারী

লোকসভা ভোটের ফলাফলের নিরিখে তৃণমূল এরাজ্যে কিছুটা খারাপ ফল করলেও তৃণমূল রাজনৈতিক ভাবে ঘুরে দাঁড়াবে। গণতান্ত্রিক আন্দোলনের মধ্যে দিয়েই এই ঘুরে দাঁড়ানোর প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে বলে জানান রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। ১৯৪২-এ সারা দেশের মানুষ আওয়াজ তুলেছিলেন ব্রিটিশ ভারত ছাড়ো। আর তারই অনুকরণে গতবছর ৯-ই আগষ্ট বিপ্লবীদের তীর্থভূমি মেদিনীপুর কলেজ ময়দানের সভা থেকে তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জি হুঙ্কার দিয়েছিলেন – বিজেপি ভারত ছাড়ো!

এর মধ্যে গঙ্গা দিয়ে বয়ে গেছে অনেক জল – তৃণমূল নেত্রীর দেশের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্নকে দুরমুশ করে আবার কেন্দ্রে ক্ষমতায় ফিরেছে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি। শুধু তাই নয়, একদা তৃণমূলের গড় বাংলা থেকেও ১৮ তা আসন ছিনিয়ে নিয়ে রীতিমত শাসকদলের ঘুম উড়িয়ে দিয়েছে গেরুয়া শিবির। শুরু হয়েছে, ঘাসফুল শিবির ছেড়ে গেরুয়া শিবিরে নাম লেখানোর হিড়িক। এই প্রেক্ষাপটেই, এ বছর ৯-ই আগষ্ট সেই একই ময়দানে ভিড়ে ঠাসা তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের সভায় রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী পুনরায় সেই আওয়াজ তুললেন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

এদিন তিনি দেশজুড়ে বেকারত্ব, কর্মী ছাঁটাই, বিএসএনএল, রেল, নবরত্ন বিক্রি করে দেওয়া, কৃষক বিরোধী, শ্রমিক বিরোধী কাজের জন্য কেন্দ্রের বিজেপি সরকাররের কঠোর সমালোচনা করেন। পাশাপাশি তিনি জানান, বিজেপির শাসন থেকে দেশের মানুষকে মুক্তি দিতে অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা ব্যানার্জি। তিনিই দাবি তুলেছেন, ‘ ইভিএম নয় ব্যালট চাই’। এই দাবিতে আমাদের আন্দোলন চলছে।

এর পাশাপাশিই, শুভেন্দুবাবু দলীয় কর্মীদের মনে করিয়ে দেন, ২০১১ সালে ‘অত্যাচারী’ সিপিএমকে উৎখাত করতে তৃণমূল কোমর বেঁধে নেমেছিল। অনেক মানুষের বলিদানের মধ্যে দিয়ে রাজ্যের মানুষ পরিবর্তনের সুফল পেয়েছেন। বর্তমানে সেই পরিস্থিতি আবার এসেছে বলে তিনি মনে করেন। তবে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, একদিকে বিজেপির তুমুল উত্থান, অন্যদিকে ‘কাটমানি’ ইস্যুতে জেরবার গেরুয়া শিবির – এর মাঝে কার্যত দিশেহারা কর্মীদের মনোবল ফেরাতেই এদিন বক্তৃতায় আগুন ছোটালেন শুভেন্দু অধিকারী। সেই আগুনে বক্তৃতার জেরে কতখানি ঘুরে দাঁড়ায় শাসকদল – এখন সেদিকেই চোখ সকলের।

Top
error: Content is protected !!