এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বাংলায় বিজেপিকে জয়ের “মন্ত্র” শিখিয়ে দিচ্ছেন শুভেন্দু অধিকারী! চমকে গেল বিধানসভা!

বাংলায় বিজেপিকে জয়ের “মন্ত্র” শিখিয়ে দিচ্ছেন শুভেন্দু অধিকারী! চমকে গেল বিধানসভা!

তিনি রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী। একগুচ্ছ জেলার তৃণমূলের পর্যবেক্ষক। সদ্য সমাপ্ত রাজ্যের তিন বিধানসভা কেন্দ্রের নির্বাচনে কালিয়াগঞ্জ এবং খড়্গপুরে দলীয় প্রার্থীকে জেতাতে তার ভূমিকা ছিল অপরিহার্য। ঠিকই ধরেছেন, তিনি আর কেউ নন। রাজ্যের পরিবহন এবং সেচমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। তার ক্যারিশমায় তৃণমূল প্রার্থীরা জয়লাভ করলেও, এবার সেই শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিকে কিভাবে জয় আনতে হবে, তার বার্তা দিয়ে দিলেন। হয়ত বা এই কথাটা শুনে অনেকেরই চোখ কপালে উঠে যাবে।

কিন্তু যেভাবে বলা হয়েছে, ব্যাপারটা ঠিক সেরকম নয়। বস্তুত, এদিন বিধানসভার প্রশ্নোত্তর পর্বে মালদার ভাঙ্গন পরিস্থিতি মোকাবিলায় রাজ্য সরকারের পদক্ষেপ নিয়ে মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর কাছে প্রশ্ন করেন বৈষ্ণবনগরের বিজেপি বিধায়ক স্বাধীন সরকার। আর বিজেপি বিধায়কের এই প্রশ্ন শুনেই তাঁকে আক্রমন করতে শুরু করেন রাজ্যের সেচমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। পাশাপাশি এইভাবে প্রশ্ন করে ভোটে জয়লাভ করা যায় না বলেও বিজেপির বিধায়ককে জানিয়ে দেন তৃনমূলের হেভিওয়েট মন্ত্রী।

সূত্রের খবর, এদিন বিধায়ক স্বাধীন সরকারের প্রশ্নের উত্তরে শুভেন্দু অধিকারী বলেন, “রাজ্য সরকার সাধ্যমত বাঁধ মেরামতির কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকার তার অংশীদারিত্ব পালন করছে না। কেন্দ্রের টাকা এখনও পাওয়া যায়নি।” আর এরপরই তিন উপনির্বাচনে বিজেপির পর্যুদস্ত হওয়া নিয়ে গেরুয়া শিবিরকে কিছুটা আক্রমণ করে, কিভাবে জয় পেতে হবে, তা তাদের নীতিশিক্ষা হিসেবে জানিয়ে দেন শুভেন্দুবাবু।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

তিনি বলেন, “আপনাদের 18 জন সাংসদ। দিল্লিতে আপনাদের সরকার। তাদের টাকা দিতে বলুন। ভাষণ দিয়ে একবার ভোটে জেতা যায়। বারবার জেতা যায় না।” বিশ্লেষকদের মতে, শুভেন্দু অধিকারী এই কথা বলে বিগত লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির রাজ্যে যেভাবে উত্থান ঘটেছে, তা মেনে নিলেও সদ্যসমাপ্ত 3 বিধানসভা উপনির্বাচনে বিজেপির যেভাবে পরাজয় ঘটেছে, তার জন্য তাদের আচরনকেই দায়ী করলেন।

আর তাই তো এদিন বাঁধ মেরামতির ঘটনায় মালদার বৈষ্ণবনগরের বিজেপি বিধায়কের প্রশ্নের উত্তরে “ভাষণ দিয়ে খালি ভোটে জেতা যায় না” বলে জানিয়ে দিলেন রাজ্যের হেভিওয়েট মন্ত্রী। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, রাজনৈতিক বিরোধিতা করতে গিয়ে শুভেন্দু অধিকারী আদতে সত্যিটাই তুলে ধরেছেন। অনেক আশা নিয়ে বাংলার মানুষ লোকসভায় বিজেপিকে ভোট দিলেও, বিজেপি সাংসদদের হাত ধরে বাংলার অবস্থার পরিবর্তনের কোনো ইঙ্গিত এখনও মেলে নি!

বিশেষ করে কালিয়াগঞ্জ ও খড়্গপুর-সদরের পরাজয়ের জন্য সেখানকার দুই বিজেপি সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরী ও দিলীপ ঘোষ কম সমালোচিত হচ্ছেন না সোশ্যাল মিডিয়ায়। গান্ধী সংকল্প যাত্রায় দেবশ্রীদেবীর গাড়ি করে ঘোরা ও দিলীপবাবুর গরুর দুধে সোনা বক্তব্য মানুষ ভালোভাবে নেন নি বলে দাবি করছেন গেরুয়া সমর্থকরাই। আর তাই, কটাক্ষের ছলে শুভেন্দুবাবু আসলে হয়ত বিজেপির ভুলটাই ধরিয়ে দিলেন বলে মনে করছেন ভোট বিশেষজ্ঞরা। তা শুধরে বিজেপি আগামীদিনে চলে কিনা – সেদিকেই আপাতত লক্ষ্য সবার।

আপনার মতামত জানান -
Top