এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > লোকসভা নির্বাচনে মুর্শিদাবাদে ঘাসফুলের জয়-জয়কার করতে বহরমপুরে বিশেষ পরিকল্পনা নিয়ে হাজির শুভেন্দু অধিকারী

লোকসভা নির্বাচনে মুর্শিদাবাদে ঘাসফুলের জয়-জয়কার করতে বহরমপুরে বিশেষ পরিকল্পনা নিয়ে হাজির শুভেন্দু অধিকারী

গত ২০১৬-র বিধানসভা নির্বাচনের পরেই একদা কংগ্রেসের অধীর রঞ্জন চৌধুরীর শক্ত ঘাঁটি বলে পরিচিত মুর্শিদাবাদ জেলায় ঘাসফুল ফোটাতে মরিয়া হয়ে ওঠে শাসক দল। আর তাই তো সেই মুর্শিদাবাদ জেলায় দলীয় সংগঠনের শ্রীবৃদ্ধি করতে জেলা তৃনমূলের পর্যবেক্ষকের দায়িত্ব দেওয়া হয় রাজ্যের পরিবহন ও পরিবেশমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে। আর মুর্শিদাবাদ জেলায় ঘাসফুল ফোটানোর দায়িত্ব নিয়েই শুভেন্দুবাবু একাধিকবার সেই জেলায় এসে দলীয় সংগঠনকে চাঙ্গা করার চেষ্টা করেছেন। এমনকি শুভেন্দুবাবুর সেই চেষ্টা অনেকটাই সার্থকতা পেয়েছে বলেও দাবি শাসকদলের।

বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনে শুভেন্দু অধিকারীর হাত ধরে মুর্শিদাবাদ জেলায় ঘাসফুল ফোটাতে সক্ষম হয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস। কংগ্রেসের দখলে থাকা গ্রামসভা থেকে পঞ্চায়েত সমিতি এমনকি জেলা পরিষদও দখল করেছে শাসকদল। আর তাই পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর এবার আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে জেলায় সংগঠনকে আরও বেশি করে শক্তিশালী করতে এবং কংগ্রেসের কাছ থেকে লোকসভা আসন দুটি নিজেদের দখলে নিয়ে আসতে এবার ফের মুর্শিদাবাদ জেলাসফর করলেন তৃনমূলের শুভেন্দু অধিকারী।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

সূত্রের খবর, গতকাল মুর্শিদাবাদ জেলায় জেলা তৃণমূলের পর্যবেক্ষক শুভেন্দুবাবু দলের জেলা নেতৃত্ব ও সর্বস্তরের জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে তিনটি পৃথক পৃথক সভা করেন। জানা গেছে, বহরমপুরের রবীন্দ্র সদনে সকালে তৃণমূলের মহকুমা, ব্লক অঞ্চল সভাপতি এবং শাখা সংগঠন ও দলের জেলা কমিটির নেতা এবং বিধায়কদের নিয়ে একটি সভা করেন তিনি। মধ্যাহ্নভোজের পর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান, উপপ্রধান, পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি, সহকারি সভাপতি, কর্মাধ্যক্ষ এবং জেলা পরিষদের সমস্ত সদস্যদের নিয়ে দ্বিতীয় ধাপে একটি সভা করেন শুভেন্দু অধিকারী। আর শেষে মুর্শিদাবাদ জেলার অন্তর্গত ৮ টি পুরসভার প্রায় ১৫০ জন তৃণমূল কাউন্সিলরকে নিয়ে তৃতীয় দফায় একটি বৈঠক করেন রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী।

আর শুভেন্দু অধিকারীর এই ম্যারাথন বৈঠককে ঘিরেই এখন জেলা তৃণমূল নেতৃত্বের মধ্যে শুরু হয়েছে তীব্র তৎপরতা। একদিকে লোকসভা নির্বাচনের আগে দলের সংগঠনকে চাঙ্গা করতে এই বৈঠক থেকেই দলীয় নেতাদের যেমন বার্তা দেন শুভেন্দুবাবু, ঠিক তেমনই মুর্শিদাবাদ জেলায় দলের গোষ্ঠী কোন্দল রুখতেও সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার কথা বলেন তিনি। জেলায় দলীয় সংগঠনকে চাঙ্গা করতে এবং অধীর-দুর্গ ও কংগ্রেসের শক্ত ঘাঁটি বলে পরিচিত মুর্শিদাবাদ জেলার সমস্ত লোকসভা আসন নিজেদের দখলে আনতে শুভেন্দু অধিকারীর কঠোর বার্তার পর কিভাবে মুর্শিদাবাদে ঘাসফুল ফোটাতে সক্ষম হন দলীয় কর্মীরা সেদিকেই এখন নজর সকলের।

Top
error: Content is protected !!