এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > রাজ্যের পুলিশ কর্মীদের ভালো কাজ বা শহীদ হওয়ার ঘটনা কেন্দ্রকে জানাচ্ছেই না রাজ্য!

রাজ্যের পুলিশ কর্মীদের ভালো কাজ বা শহীদ হওয়ার ঘটনা কেন্দ্রকে জানাচ্ছেই না রাজ্য!

রাজ্য পুলিশ কর্মীদের ভালো কাজের খতিয়ান এবং শহীদ হওয়ার কোনো তথ্যই পৌছাচ্ছে না কেন্দ্রে। যা রীতিমতো হতবাক করেছে কেন্দ্রের পুলিশ কর্তাদের। বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পরে পুলিশের ভালো কাজের খতিয়ান জনসমক্ষে এনে পুলিশের সম্পর্কে ধারনা পাল্টানোর লক্ষ্যে ‘ইন্ডিয়ান পুলিশ ডট ইন সার্ভিস’ ওয়েবসাইট চালু করা হয়েছিল।

রাজ্যগুলির কাছে এতে পুলিশকর্মীদের শহীদ হওয়ার ঘটনা বা ভালো কাজ আপলোড করার নির্দেশ দিয়ে ২০১৫ সালে এই সাইটের উদ্বোধণ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু সেই নির্দেশ লঙ্ঘন করার অভিযোগ উঠল রাজ্যসরকারের বিরুদ্ধে।

পশ্চিমবঙ্গের পুলিশকর্মীদের ভালো কাজ এবং শহীদ হওয়ার ঘটনা পাঠানো হচ্ছে না কেন্দ্রীয় সরকারের তৈরি ইন্ডিয়ান পুলিশ ডট ইন সার্ভিস ওয়েবসাইটে। শুধু তাই নয়,এই সাইট জনপ্রিয় করার জন্যে সুচিন্তিত মতামত ও নতুন ভাবনা পাঠানোর ক্ষেত্রেও তেমন উদ্যোগী হতে দেখা যাচ্ছে না রাজ্যসরকারকে। বিষয়টি নজরে আসার পরই কেন্দ্রের তরফ থেকে চিঠি আসে রাজ্যে।

তারপরই সক্রিয় হন রাজ্য পুলিশ কর্তারা। সমস্ত জেলা এবং কমিশনারেটের কাছে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে অবিলম্বে সব প্রয়োজনীয় তথ্য কেন্দ্রীয় সরকারের ওই সাইটে আপলোড করতে। সঙ্গে এই সংক্রান্ত ক্ষেত্রে উন্নয়নের খাতিরে নিজেদের মতামতও আপলোডও করতে নির্দেশ দেওয়া হয়।

সাইটটি উদ্বোধণের বছর দু’য়েক পর অর্থাৎ ২০১৭ সালে কেন্দ্র সরকারের এই ওয়েবসাইট কতোটা জনপ্রিয় হয় সেই তথ্য তুলে ধরা হয় বিভিন্ন রাজ্যের ডিজিদের সঙ্গে আয়োজিত সম্মেলনে। প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে সেই বৈঠকে জানা যায়,১.২৪ লক্ষ মানুষ এই সাইটটি দেখছেন। দু’বছর পর এক ধাক্কায় সাইটের জনপ্রিয়তা এতো কমে যাওয়া দেখে রীতিমতো অসন্তুষ্ট মোদী,এমনই খবর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সূত্রের।

এই প্রেক্ষিতে,স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক কর্তারা খতিয়ে দেখছে এই সমস্যা মোকাবিলায় রাজ্যগুলি কী ব্যবস্থা নিয়েছে। আর তা খতিয়ে দেখার সূত্রেই সামনে এল পশ্চিমবঙ্গ সহ বেশ কয়েকটি রাজ্যের তথ্য পাঠানোর ক্ষেত্রে অসচেতন আচরণ। পুলিশ কর্মীদের ভালো কাজ এবং শহীদ হওয়ার মতো ঘটনা আপলোড করা হচ্ছে না। তা দেখেই নড়ে চড়ে বসে কেন্দ্রের কর্তারা।

চিঠি চলে যায় রাজ্যের পুলিশ কর্তাদের দপ্তরে। তাতে স্পষ্ট নির্দেশিকা রয়েছে,ওয়েবসাইট ব্যবহারে পুলিশকর্মীদের অনুপ্রাণিত করতে হবে। এবং এটিকে জনপ্রিয় করার জন্যে নিতে হবে নতুন নতুন ব্যবস্থা। শুধু তাই নয়,রাজ্য পুলিশদের এই সাইটের উন্নয়নের স্বার্থে নিজস্ব মতামতও জানাতে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য,কেন্দ্র সরকারের চালু করা এই সাইটের বিষয় পুলিশ কর্মীরা যাতে ওয়াকিবহাল থাকেন তার জন্যে বেশ কিছু প্রস্তাব রাখা হয়েছে দিল্লির তরফে। থানা বা ফাঁড়িতে ওয়েবসাইট ভিত্তিক প্রশ্ন করার জন্যে নিয়মমাফিক ক্যুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করতেও বলা হয়েছে। যাতে তাঁদের মধ্যে এই সাইট সম্পর্কে জানার আগ্রহ তৈরি হয়। এর জন্যে করা হয়েছে পুরস্কারের ব্যবস্থাও।

পুলিশ কর্মচারীদের সন্তানেরাও এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করতে পারবেন বলে জানানো হয়েছে। পাশাপাশি হোয়াটস অ্যাপ গ্রুপে এই নিয়ে আলোচনা করতে বলা হয়েছে পুলিশ কর্মচারীদের। পুলিশের পাশাপাশি সাধারণ মানুষ ছাত্রছাত্রীরাপ যাতে এই সাইটের ব্যাপারে জানতে পারে সেজন্যে প্রচার চালাতে বলা হয়েছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

রাজ্য পুলিশ এই ওয়েবসাইটের জনপ্রিয়তা বাড়ানোর কর্মযজ্ঞে রীতিমতো ঝাপ দিয়ে দিয়েছে কেন্দ্রের নির্দেশ পেয়ে। আপলোড করা হচ্ছে এতোদিনের জমানো তথ্য,এমনটাই খবর পাওয়া গিয়েছে ডিরেক্টরেট সূত্রে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!