এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > বর্ধমান > তৃণমূল নেতা খুনের পরেই দলীয় নেতাদের নিরাপত্তা আঁটোসাঁটো করছে শাসকদল

তৃণমূল নেতা খুনের পরেই দলীয় নেতাদের নিরাপত্তা আঁটোসাঁটো করছে শাসকদল

সম্প্রতি জামবনী ব্লকের দুবড়ার তৃণমূল কংগ্রেস নেতা চন্দন ষড়ঙ্গী খুন হন। গত সোমবারের কথা, পার্টি অফিসের কাজকর্ম সেরে রাতে বাইক চালিয়ে বাড়ি ফেরার পথে অপহরণ করা হয় তাঁকে। পরদিন সকলে তাঁর নলিকাটা ক্ষতবিক্ষত দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায় এলাকায়। এই ঘটনায় তীব্র আতঙ্ক ছড়িয়েছিল স্থানীয়দের মধ্যে – এখনো পুলিশ পিকেট রয়েছে এলাকায়।

উক্ত ঘটনার পরই দলীয় সদস্যদের নিরাপত্তা নিয়ে বাড়তি সতর্ক হয়েছে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। চন্দনবাবুর ঘনিষ্ট হিসাবে পরিচিত ব্লক তৃণমূলের সভাপতি নিশীথ মাহাতকে নিরাপত্তা দেওয়ার লক্ষ্যে ২৪ ঘন্টার জন্যেই দেহরক্ষী দেওয়া হল। তবে, তিনি ব্যক্তিগত সুরক্ষা পাওয়ার জন্য কোনো নিরাপত্তারক্ষী চেয়ে আবেদন করেননি বলেই জানালেন নিশীথবাবু – তবে এই বিষয়ে পুলিশ সুপারের সঙ্গে মৌখিক কথাবার্তা হয়েছিল বলে জানিয়েছেন তিনি।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর তারপরেই, এদিন দুজন দেহরক্ষী দেওয়া হয়েছে জেলা পুলিশের তরফ থেকে। নিয়ম অনুযায়ীই যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার নেওয়া হয়েছে – এমনটাই এ প্রসঙ্গে জানালেন জেলার পুলিশ সুপার রাঠোর অমিত কুমার ভরত। প্রসঙ্গত, রাজনৈতিক সূত্রের খবর থেকে জানা গিয়েছে, পঞ্চায়েত নির্বাচনের পরই জামবনীর ব্লক সভাপতির পদ থেকে জগদীশ মাহাতোকে সরিয়ে তাঁর স্থানে আনা হয়েছে নিশীথ মাহাতকে।

প্রসঙ্গত, একসময় নিশীথবাবুর উদ্যোগেই এলাকায় মাওবাদ-বিরোধী জনজাগরণ মঞ্চ তৈরি হয়েছিল। চন্দনবাবুর খুনের পর পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী ঝাড়গ্রামে এসে এই খুনের পিছনে পড়শি রাজ্য ঝাড়খন্ড কলকাঠি নাড়ছে বলেই অভিযোগে জানিয়ে গিয়েছেন। সিংভুম, চাকুলিয়া থেকে দুষ্কৃতিরা সীমান্ত পেরিয়ে এ রাজ্যে ঢুকেই এসব তান্ডব করছে বলেই অভিযোগে জানিয়েছিলেন তিনি।

প্রসঙ্গত, তৃণমূল নেতা চন্দন ষড়ঙ্গী খুনের ঘটনায় সিপিএমের একজন এবং বিজেপির দুজন নেতাকে গ্রেফতার করা হয়েছে ইতিমধ্যেই। তদন্তে উঠে এসেছে বহিরাগত ভাড়াটে দুষ্কৃতির তথ্য। যেহেতু জামবনী ব্লকটি ঝাড়খন্ড লাগোয়া তাই একজন নেতা খুনের পর আর কোনো ঝুঁকি নিতে রাজি নয় জেলা পুলিশ। আর তাই ২৪ ঘন্টার নিরাপত্তা রক্ষীর সুরক্ষা দেওয়া হয়েছে নিশীথ মাহাতোকে বলে জানা গিয়েছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!