এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ‘স্ট্যাচু অফ ইউনিটি’ ক্রমশ হাসি ফোটাচ্ছে মোদির মুখে, প্রথম ১১ দিনেই বিরোধীদের জব্বর ‘জবাব’?

‘স্ট্যাচু অফ ইউনিটি’ ক্রমশ হাসি ফোটাচ্ছে মোদির মুখে, প্রথম ১১ দিনেই বিরোধীদের জব্বর ‘জবাব’?

সর্দার বল্লভ ভাই প্যাটেলের মূর্তি ‘স্ট্যাচু অব ইউনিটি’তৈরি করার প্রথম থেকেই বিরোধীদের সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে বিজেপি সরকারকে।স্ট্যাচু তৈরীর খরচ নিয়ে মোদী তথা কেন্দ্র সরকারকে বরাবর কটাক্ষ করে এসেছেন অন্যান্য বিরোধী দলগুলি।কিন্তু খুলে দেওয়ার পর মাত্র ১১ দিনের মধ্যেই এখানে যে হারে পর্যটক এসেছে তাতে তা বিরোধীদের মুখের উপর যোগ্য জবাব হয়েছে বলে মনে করছে গেরুয়া শিবির।

জনসাধারণের উদ্দেশে স্ট্যাচু অফ ইউনিটি খুলে দেওয়ার পর থেকে এখনো পর্যন্ত মাত্র ১১ দিনে প্রায় ১.২৮ লক্ষ পর্যটক তা দেখতে গিয়েছেন। এমনটাই জানা গিয়েছে সরকারি সূত্রে। রাজ্যের পর্যটন বিভাগকে লক্ষ্মীর ঝাঁপি খুলে দিয়েছে এই স্ট্যাচু অফ ইউনিটি। গত ৩১ অক্টোবর, সর্দার প্যাটেলের জন্মদিনের দিনই বিশ্বের উচ্চতম স্ট্যাচু ১৮২ মিটার উঁচু স্ট্যাচু অফ ইউনিটির উদ্বোধন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

১০ ও ১১ নভেন্বর শনিবার ও রবিবার সপ্তাহের শেষ দুই দিনে প্রায় ৫০ হাজার পর্যটক গিয়েছিলেন বিশ্বের সব থেকে উঁচু স্ট্যাচু অফ ইউনিটি পরিদর্শনে। এর মধ্যে ২৪ হাজার পর্যটক গিয়েছিলেন রবিবার। আর শনিবার ২৭ হাজারেরও বেশি পর্যটক প্রদর্শন করতে গিয়েছিলেন এই ‘একতার মূর্তি’।

সর্দার সরোবর নর্মদা নিগম লিমিটেডের সুপারইনটেন্ডিং ইঞ্জিনিয়ার আরজি কানুনগোর কথা অনুযায়ী, ‘১ নভেম্বর থেকে রবিবার ১১ নভেম্বর, এই ১১ দিনে ১.২৮ লক্ষ পর্যটক সেখানে গিয়েছিলেন।’
প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ৩১ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী লৌহমানব সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের জন্মদিনে কেভাডিয়ার সর্দার সরোবর বাঁধের কাছে এই মূর্তির উদ্বোধন করেন।

মূর্তি উদ্বোধনের শুরুর দিনেই প্রায় ১০ হাজার পর্যটক সেখানে গিয়েছিলেন বিশ্বের সর্বোচ্চ এই মূর্তি দেখতে। তারপর নভেম্বরের ১ তারিখ থেকে ক্রমশই পর্যটকের সংখ্যা বেড়ে চলেছে। রাজ্যের পর্যটন বিভাগের প্রধান সচিব এসজে হায়দার জানান, যে কোনও সংখ্যার পর্যটককে সরকার স্বাগত জানাতে প্রস্তুত । ২০১৭-তে গুজরাটে বেড়াতে গিয়েছিলেন প্রায় ৫.২ কোটি পর্যটক। এরই মধ্যে তা ১৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। গুজরাতের নতুন দর্শনীয় স্থান হিসেবে স্ট্যাচু অফ ইউনিটি যুক্ত হওয়ায় দেশ কিংবা বিদেশি পর্যটকের সংখ্যা সেরাজ্যে বাড়বে বলে আশাবাদী তিনি।

 

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

গুজরাত ট্যুরিজমেরপক্ষ থেকে স্ট্যাচু অফ ইউনিটির সঙ্গে ভ্রমণের জন্য আরও কাছাকাছি বেশ কিছু দর্শনীয় স্থান যুক্ত করা হয়েছে। স্ট্যাচু অফ ইউনিটির ভিতরেই ১৩৫ মিটার উঁচুতে রয়েছে দর্শকদের জন্য গ্যালারি। সেখানে একসঙ্গে ২০০ জনকে জায়গা দেওয়া যায়। সেখানে উচ্চ গতিসম্পন্ন একাধিক লিফটও রয়েছে। যাদের দিনে বহন ক্ষমতা প্রায় ৫ হাজার জন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!