এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > রাস্তায় ‘উন্নয়ন দাঁড়’ করিয়ে রাজ্য সরকারের কোটি-কোটি টাকা সাশ্রয় করলেন অনুব্রত মন্ডলরা!

রাস্তায় ‘উন্নয়ন দাঁড়’ করিয়ে রাজ্য সরকারের কোটি-কোটি টাকা সাশ্রয় করলেন অনুব্রত মন্ডলরা!

বাংলায় পঞ্চায়েত নির্বাচনের ঢাকে কাঠি পড়তেই বীরভূম জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি অনুব্রত মন্ডল দাবি করেছিলেন বিরোধীরা বীরভূম জেলায় ত্রিস্তর পঞ্চায়েতে দেওয়ার মত প্রার্থীই খুঁজে পাবে না। আর যদিও বা খুঁজে পায়, তাঁরা যখন মনোনয়ন জমা দিতে যাবেন তখন দেখতে পাবেন ‘রাস্তায় দাঁড়িয়ে’ আছে ‘উন্নয়ন’, আর সেই উন্নয়ন দেখেই তাঁরা আর মনোনয়ন জমা দিতে যাবেন না। অনুব্রতবাবুর এহেন মন্তব্যের পরেই সরব হয়ে ওঠে বিরোধীরা, তাঁদের দাবি এতো প্রকাশ্যেই একপ্রকার হুমকি দেওয়া। যদিও অনুব্রতবাবু নিজে সেকথা মানতে রাজি ছিলেন না, তাঁর দাবি ছিল তিনি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জেলা জুড়ে, রাজ্য জুড়ে করা উন্নয়নের কথাই বলেছেন। কার্যক্ষেত্রে বিরোধীরা যতই দাবি করুক ‘শাসকদলের সন্ত্রাসের’ ফলে মনোনয়ন জমা দেওয়া যায় নি, শাসকদল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতে গেছে প্রায় এক-তৃতীয়াংশ আসনে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

ফলে, পরিসংখ্যান বলছে শুধুমাত্র বীরভূমেই ২,৭৯৮ টি বুথের ভিতর ২,৩২৪ টি (৮৩.০৬%) বুথে ভোট হচ্ছে না। বীরভূমের মতোই আরও দুই জেলা বাঁকুড়া ও মুর্শিদাবাদের বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ের ক্ষেত্রে রেকর্ড করেছে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। এরমধ্যে, বাঁকুড়ায় ৩,০১৪ টি বুথের মধ্যে ১,৭৩৭ টি (৫৭.৬৩%) বুথে ভোট হচ্ছে না। অন্যদিকে, মুর্শিদাবাদে ৫,১০৭ টি বুথের মধ্যে ২,৮২৪ টি (৫৫.৩০%) বুথে হচ্ছে না ভোট। সব মিলিয়ে আসন্ন ত্রিস্তর পঞ্চায়েত নির্বাচনে রাজ্যের ৩৪% আসনে কোনো নির্বাচন হচ্ছে না, সংখ্যার হিসাবে যা ১১,০১৬ টি বুথ। আর এই তথ্য সামনে রেখে বিরোধীরা যতই ‘শাসকদলের সন্ত্রাসের’ দাবি করুক, তা হাসি ফোটাতে বাধ্য নবান্নের অর্থ দপ্তরের শীর্ষ কর্তাদের। কেননা, রাজ্য নির্বাচন কমিশন পঞ্চায়েত ভোট পরিচালনার দায়িত্বে থাকলেও, খরচটা কিন্তু রাজ্য সরকারকেই করতে হয়। বুথ প্রতি রাজ্য নির্বাচন কমিশনের বরাদ্দ গড়ে ৩৫ হাজার টাকা, ফলে ১১ হাজারেরও বেশি বুথে ভোট না হওয়ায় রাজ্য সরকারের সাশ্রয় প্রায় সাড়ে ৩৮ কোটি টাকা। ফলে, বাংলার নির্বাচন পর্যবেক্ষন করা এক রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞের রসিক মন্তব্য, রাস্তায় ‘উন্নয়ন দাঁড়’ করিয়ে রাজ্য সরকারের কোটি-কোটি টাকা সাশ্রয় করলেন অনুব্রত মন্ডলের মত নেতারা, ওনাদের তো ধন্যবাদ জানানো উচিত!

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!