এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > পাঁচ রাজ্যের ভোটগণনার মাঝেই তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে বড় জয় ছিনিয়ে নিলেন গেরুয়া শিবিরের হেভিওয়েট নেতা

পাঁচ রাজ্যের ভোটগণনার মাঝেই তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে বড় জয় ছিনিয়ে নিলেন গেরুয়া শিবিরের হেভিওয়েট নেতা

রাজ্যজুড়ে বিজেপির রথযাত্রা তথা ‘গণতন্ত্র বাঁচাও’ যাত্রা আপাতত গড়িয়েছে আদালতে। আদালতের রায়ে, এই নিয়ে বিজেপি নেতৃত্ত্বের সঙ্গে রাজ্য প্রশাসনকে বসে আলোচনা করে এর ভবিষ্যৎ নির্নয় করতে হবে। আর তাই. বিজেপি নেতৃত্ত্বের তরফে মুকুল রায় ও জয়প্রকাশ মজুমদার পৌঁছে গিয়েছিলেন নবান্নের দোরগোড়ায়।

কিন্তু, বিজেপি শিবিরের এই দুই শীর্ষনেতার বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা আছে এই অজুহাতে আলোচনায় বসতে রাজি হয় নি রাজ্য সরকার। গতকালই স্পষ্ট হয়ে যায় এই নিয়ে আদালতে যেতে চলেছে রাজ্য সরকার। যদিও, রাজ্য সরকারের এই পদক্ষেপ শুনে গতকাল কার্যত হেঁসে ফেলেছিলেন বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ মুকুল রায়।

একইসঙ্গে মুকুলবাবু অভিযোগ করেছিলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার আজ তাঁর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলার কথা বলছেন, কিন্তু সেই মামলা আদালতে বিচারাধীন। তাঁর অভিযোগ এখনো প্রমাণিত নয়। আর, কারোর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠলেই তিনি অপরাধী হয়ে যান না। সুতরাং তাঁর দৃঢ় বিশ্বাস, আদালত রাজ্য সরকারের এই মামলায় – এইসব হাস্যকর যুক্তি উড়িয়ে দেবে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না – তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর বাস্তবে দেখা গেল – একদম ১০০% সঠিক ছিলেন মুকুলবাবু। আজ কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি বিশ্বনাথ সমাদ্দারের ডিভিশন বেঞ্চ স্পষ্ট জানিয়ে দিল রাজ্য সরকারকে – অপরাধ প্রমাণ না হলে অপরাধী নয় ,তাই এই বিষয়ে আদালত কিছু বলবে না। ফলে, রথযাত্রা নিয়ে বিজেপি নেতা মুকুল রায় ও জয়প্রকাশ মজুমদারের সঙ্গেই বসতে হবে রাজ্য প্রশাসনকে।

প্রসঙ্গত, রথযাত্রা নিয়ে রাজ্যের মুখ্যসচিব ও ডিজির সঙ্গে বৈঠক করে বিজেপি নেতৃত্ত্বকে এর দিনক্ষণ ঠিক করার নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্ট। আজ রাজ্য সরকার মুকুলবাবুদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলার বিষয়টি তুললে, পাল্টা কলকাতা হাইকোর্ট জানতে চায় – আইজি, ডিজির বিরুদ্ধেও তো মামলা চলছে! তাহলে তাঁদের সঙ্গে কীভাবে বৈঠক সম্ভব? স্বাভাবিকভাবেই এই প্রশ্নের কোনো উত্তরই দিতে পারেননি রাজ্যের সরকারি আইনজীবী।

তবে, আজকের শুনানিতে রাজ্য সরকারের অনুরোধে এই বৈঠকের জন্য অতিরিক্ত আরেকটি দিন বাড়িয়েছে কলকাতা হাইকোর্ট। অর্থাৎ, আগামীকালের বদলে আগামী বুধবারের মধ্যে বিজেপি নেতাদের সঙ্গে এই বৈঠক সম্পূর্ণ করে রাজ্যকে রথযাত্রার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। সব মিলিয়ে – সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে নির্বাচনের ফলাফল যাই হোক – বঙ্গ-রাজনীতিতে আদালতে রাজ্য সরকার এইভাবে ধাক্কা খাওয়ায়, খুশির হওয়া মুরলীধর সেন লেনের গেরুয়া বাড়িতে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!