এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে কেন্দ্রের কাছে নতুন করে সওয়াল রাজ্য সরকারের

কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে কেন্দ্রের কাছে নতুন করে সওয়াল রাজ্য সরকারের

রাজ্য জুড়ে বেজে গিয়েছে পঞ্চায়েত ভোটের দামামা। আর সেই পঞ্চায়েত নির্বাচনের মনোনয়ন জমা উপলক্ষে রাজ্যজুড়ে শাসকদলের লাগামহীন ‘সন্ত্রাস’ চলছে বলে একযোগে অভিযোগ সমস্ত বিরোধী দলের। আর তার সাথেই দাবি, যদি মনোনয়ন পর্বেই এইরকম ‘সন্ত্রাস’ চলে তাহলে নির্বাচনের দিন কি হবে? আর তাই রাজ্য পুলিশের উপর ভরসা না রেখে বিরোধীদের দাবি পঞ্চায়েত নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হোক কেন্দ্রীয় বাহিনীর তত্বাবধানে। যদিও রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস বিরোধীদের এইসব দাবিই উড়িয়ে দিয়ে জানিয়ে দিয়েছে রাজ্যের অবস্থা মতের উপর ‘শান্তিপূর্ণ’ আর তাই পঞ্চায়েত নির্বাচনে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে কাজে লাগানোর কোনো প্রশ্নই নেই।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

কিন্তু এইবার সেই শাসকদল তথা রাজ্য সরকারই পঞ্চায়েত নির্বাচনের মাঝে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবি তুলল। তবে তা সরাসরি পঞ্চায়েত নির্বাচনের জন্য নয়। রাজ্যের দাবি, মাওবাদী জেলার তালিকা থেকে বাঁকুড়ার নাম যেন বাদ না যায় এবং এই নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকে রীতিমত চিঠি পাঠিয়ে আর্জি জানিয়েছে রাজ্য সরকার। প্রসঙ্গত, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব গত মার্চে মাওবাদী জেলার তালিকা পরিমার্জনের জন্য মাওবাদী অধ্যুষিত রাজ্যগুলির সঙ্গে বৈঠক করেন। সেখানেই পশ্চিম মেদিনীপুর, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া ও বীরভূমের নাম এই তালিকা থেকে বাদ দেওয়ার ইঙ্গিত মিলেছিল। কেননা, ওই সব জেলায় দীর্ঘদিন মাওবাদী গতিবিধি নেই। প্রশাসনিক সূত্রের খবর, রাজ্য সাম্প্রতিক চিঠিতে কেন্দ্রকে জানায়, বীরভূম বা পশ্চিম মেদিনীপুরকে তালিকার বাইরে রাখলে সমস্যা নেই। কিন্তু ঝাড়গ্রামে (জেলা ভেঙে গড়া নতুন জেলা) কেন্দ্রীয় বাহিনীর সব কোম্পানি রয়েছে। ঝাড়গ্রামের নাম তালিকায় রাখা জরুরি। পুরুলিয়াকেও বাদ দেওয়া উচিত হবে না। বাঁকুড়াকেও আরও এক বছর ওই তালিকায় রেখে দেওয়া প্রয়োজন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!