এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > রাজ্য সরকারের চাপ বাড়িয়ে শিক্ষকদের দাবীদাওয়া নিয়ে রাজ্যপালের দ্বারস্থ মাধ্যমিক শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী সমিতি

রাজ্য সরকারের চাপ বাড়িয়ে শিক্ষকদের দাবীদাওয়া নিয়ে রাজ্যপালের দ্বারস্থ মাধ্যমিক শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী সমিতি

Priyo Bandhu Media


এবার রাজ্যসরকারকে অস্বস্তিতে ফেলে শিক্ষার নীতিগত এবং শিক্ষকদের পেশাগত ৮ দফার দাবী নিয়ে মাননীয় রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর দোরগোড়ায় হাজির মাধ্যমিক শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মী সমিতি ( STEA)। এদিন STEA-এর কেন্দ্রীয় কমিটির ৫ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল তাঁদের দাবীদাওয়া সম্বলিত স্মারকলিপি পেশ করেন রাজ্যপালের কাছে। সমিতির সভাপতি বিশ্বজিৎ পোদ্দার, সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিত মিত্র,সহ সাধারণ সম্পাদক নীলকান্ত ঘোষ,কোষাধ্যক্ষ উৎপল মন্ডল ও পত্রিকা সম্পাদক সুব্রত বাগচী ছিলেন প্রতিনিধি দলে। রাজভবন থেকে বেরিয়ে সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিৎ মিত্র জানান,শিক্ষা এবং শিক্ষকদের গুরুত্বপূর্ণ সমস্যাসংক্রান্ত দাবীদাওয়া ভিত্তিক ডেপুটেশান দেওয়ার কাজটি সম্পন্ন হয়েছে। রাজ্যপাল গুরুত্ব সহকারে শিক্ষক প্রতিনিধিদের সমস্ত দাবীদাওয়াগুলো শুনেছেন এবং আশ্বাস দিয়েছেন এই ইস্যুতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ দ্রুতই নেবেন। তবে কথা অনুযায়ী কাজ না হলে বৃহত্তর আন্দোলনের পথে হাঁটার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাঁরা।

রাজভবন সূত্র থেকে জানা যায়,এদিন প্রায় ২৫ মিনিট ধরে রাজ্যপাল অত্যন্ত মনযোগসহকারে STEA-এর প্রতিনিধিদের দাবীদাওয়া গুলো শোনেন। তিনি প্রথম শ্রেণী থেকে পাশ-ফেল ফিরিয়ে আনা,শিক্ষার অধিকার আইন অনু্যায়ী মাদ্রাসাসহ সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সমস্ত শূন্যপদ পূরণ করা,বকেয়া ডিএ এবং পে-কমিশনের সুপারিশ প্রকাশ বিষয়ে প্রতিনিধিদের সমর্থন করেন। মধ্যশিক্ষা পর্ষদ এবং শিক্ষা প্রশাসনের মধ্যে বোঝাপড়ার অভাব আছে বলে উদ্বেগও প্রকাশ করেন। হতবাক হয়ে যান বিদ্যালয়ে নৈশপ্রহরী এবং সাফাই কর্মী না থাকার খবর শুনে। সম্প্রতি হওয়া দাড়িভিট স্কুলের ঘটনা এবং ২০০৬ সালের আগে নিযুক্ত শিক্ষকদের ইনক্রিমেন্ট প্রসঙ্গে সম্পূর্ণ তথ্য জানতে আগ্রহী হন। সমস্ত চুক্তিভিত্তিক শিক্ষক অর্থাৎ প্যারা টিচার ,ভোকেশনাল টিচার, এম এস কে, এস এস কে এবং আই সি টি কম্পউটার টিচারদের অবস্থা শোনার পর তিনি বিষ্ময় প্রকাশ করেন। সমস্যাগুলো সবিস্তারে শোনার পর তিনি জানান,উক্ত ইস্যুতে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে সমিতির নেতৃবৃন্দদের জানাবেন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

উল্লেখ্য,এই ডেপুটেশান দেওয়ার কথা ছিল ১০ অক্টোবর। প্রথমে সুবোধ মল্লিক স্কোয়ার থেকে ধর্মতলা অব্দি বিক্ষোভ মিছিল করে তারপর রাজভবনে যাওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছিল। কিন্তু রাজ্যসরকার বিশেষ নির্দেশিকা জারি করেছেন যে,আগামী ২৫ অক্টোবর অব্দি কোলকাতায় কোনরকম মিটিং-মিছিল করা যাবে না। এই নির্দেশিকাকে সামনে রেখে কোলকাতা পুলিশ হঠাৎ ৯ অক্টোবর STEA এর রাজ্যসম্পাদককে অনুরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল স্থগিত করতে। সেজন্যই সমিতি বাধ্য হয়ে আপাতত মিছিল রদ করেছে। তবে ডেপুটেশন জমা দেওয়ার পর রাজ্যসরকারের তরফ থেকে এই ইস্যুতে অবিলম্বে ইতিবাচক সাড়া না মিললে আগামীতে শিক্ষক সমিতি যে আরো বড় আন্দোলনে নামার প্ল্যান করে রেখেছে,তা এদিন মিডিয়ার সামনেই বলে দিলেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক। যতদিন না তাঁদের দাবীগুলো মেনে নেওয়া না হবে ততোদিন তাঁরা আন্দোলনের পথ থেকে সরবে না,এমনটাই হুঁসিয়ারী দিয়েছে এসটিইএ। আশা করা হচ্ছে লোকসভা ভোটের আগে এ ব্যাপারে রাজ্যসরকার এবার অবিলম্বে কোনো সদর্থক পদক্ষেপ নেবে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!