এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বিস্ফোরোক অভিযোগ এনে এবার দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ মুকুল

রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বিস্ফোরোক অভিযোগ এনে এবার দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ মুকুল

প্রায় একবছরের কাছাকাছি হতে চলল তাঁর তৃনমূল থেকে বিজেপিতে আসা। গত বছর নভেম্বরে বিজেপিতে যোগদান করার পর থেকেই রাজ্যের বিরুদ্ধে তোপ দেগে মুকুল রায় বলেছিলেন যে তাঁর ফোন ট্যাপ করে সেখানে আড়ি পাতছে রাজ্য। যা নিয়ে মামলাও হয়েছিল। যেখানে রাজ্যের তরফ থেকে বলা হয়েছিল যে এইরকম কোনো কাজে রাজ্য সরকার যুক্ত নয়। কিন্তু রাজ্য সরকারের এই দাবি যে মিথ্যে তা বলে ফের তাঁর ফোন ট্যাপ করার অভিযোগে রাজ্যের বিরুদ্ধে মামলা করতে দিল্লিতে পৌছে গিয়েছেন রাজ্য বিজেপির নির্বাচন কমিটির চেয়ারম্যান মুকুল রায়।

সূত্রের খবর, আজ এই ব্যাপারে দিল্লি হাইকোর্টে একটি মামলাও করবেন তিনি। কিন্তু কেন আবার রাজ্যের বিরুদ্ধে এই মামলা করছেন মুকুল রায়? প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত 2 অক্টোবর বঙ্গের বিজেপি পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয়বর্গীর সাথে মুকুল রায়ের একটি ফোনালাপের অডিও প্রকাশ্যে এসেছে। যেখানে কৈলাশ বিজয়বর্গীকে মুকুল রায়ের কন্ঠস্বরের এক ব্যাক্তি বলছেন যে, রাজ্যের চার আইপিএস অফিসারকে সিবিআই দিয়ে ভয় দেখালে তৃনমূলকে দমানো যাবে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

শুধু তাই নয়, গত রবিবার ফের এই দুই বিজেপি নেতার আরও একটি অডিও প্রকাশ্যে আসে। যেখানে ম্যাথু স্যামুয়েলের 124 মিনিটের এক ভিডিও ফুটেজ, যেটা প্রকাশ্যে আনলে তৃনমূল ধ্বংস হবে সেই ব্যাপারে 2 কোটি টাকা ম্যাথুকে দিতে হবে বলে কৈলাশ বিজয়বর্গীয়কে জানান মুকুল রায়। আর এই ঘটনার পর তৃনমূলের সাইবার সৈনিকেরা সোশাল মিডিয়ায় বিজেপির বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় তোলেন।

অন্যদিকে এই কন্ঠস্বর তাঁর নয় বিজেপির কৈলাশ বিজয়বর্গীয় দাবি করলেও তাঁর ফোনে আড়িপাতা হচ্ছে বলে রাজ্যের তৃনমূল সরকারকে চাপে ফেলার চেষ্টা করছেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। আর তার কারনেই এদিন রাজ্যের বিরুদ্ধে দিল্লিতে ফোন ট্যাপিং মামলা করতে চান তিনি। রাজনৈতিক মহলের মতে, পরপর দুটি অডিও ক্লিপ সত্যি না মিথ্যা তা জানা যায়নি এখনও। কিন্তু এই অডিও ক্লিপ প্রকাশ্যে এলেও পাল্টা ফোনে আড়িপাতার অভিযোগে রাজ্যের কোর্টেই বল ঠেলার চেষ্টা করছেন মুকুল রায়।

Top
error: Content is protected !!