এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > দাড়িভিট কান্ডকে সামনে রেখে রাজ্য সরকারের ঘুম ওড়াতে আসরে বিজেপি – জানুন বিস্তারিত

দাড়িভিট কান্ডকে সামনে রেখে রাজ্য সরকারের ঘুম ওড়াতে আসরে বিজেপি – জানুন বিস্তারিত


এক বছর পার হয়ে গেছে। কিন্তু তাও উত্তর দিনাজপুরের নিশংস দাড়িভিট কান্ডের স্মৃতি মোছেনি। ইতিমধ্যেই এই ঘটনার এক বছর পার হয়ে গিয়েছে। কিন্তু এক বছর ঘুরতে না ঘুরতেই ফের এই দাড়িভিট কান্ড এবার আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে চলে এল। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বছর কুড়ি সেপ্টেম্বর এই দাড়িভিট হাইস্কুলের শিক্ষক নিয়োগকে কেন্দ্র করে ছাত্র বিক্ষোভে পুলিশের গুলিতে মৃত্যু হয় রাজেশ ও তাপস নামে দুই ছাত্রের। আর এরপরই এই ঘটনায় রাজ্যজুড়ে তীব্র আলোড়ন তৈরি হয়

এদিকে এই ছাত্রের মৃত্যুর পর থেকেই রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়ে বিজেপি আন্দোলনে নামতে শুরু করেছিল। ইতিমধ্যে তারা নানা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। তবে বিজেপির তরফে এই ব্যাপারে কর্মসূচি ঘোষণা করা হলেও অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলোর সেইভাবে এখনও এই বিষয় নিয়ে তৎপরতা অবলম্বন করেনি।

এদিন এই প্রসঙ্গে উত্তর দিনাজপুর জেলা বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সুরজিৎ সেন বলেন, “20 সেপ্টেম্বর দাড়িভিট কান্ডের এক বছর হবে। আমরা এজন্য বাংলা ভাষা শহীদ দিবস হিসেবে সেই দিনটিকে পালন করব। সেই দিনটিকে সামনে রেখে 15 সেপ্টেম্বর ইসলামপুর বাস টার্মিনাস থেকে দাড়িভিট পর্যন্ত 13 কিমি ম্যারাথন দৌড় হবে। 19 সেপ্টেম্বর দাড়িভিটে বড় সমাবেশ করা হবে।”

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

কিন্তু অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলো এই ব্যাপারে কি বলছে! তারা কি এই দাড়িভিট কান্ডের এক বছর পূর্তিতে কোনো কর্মসূচি পালন করবে না! এদিন এই প্রসঙ্গে উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূলের সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়াল বলেন, “দাড়িভিট নিয়ে বিজেপির কোন কর্মসূচি নেবে কি না, তা তাদের দলের ব্যাপার। এই বিষয়ে আমি কোনো মন্তব্য করব না। তবে নির্বাচনে বিজেপির চাইতে আমরাই বেশি ভোট পেয়েছি।”

অন্যদিকে এই ব্যাপারে উত্তর দিনাজপুর জেলা সিপিএমের সম্পাদক অপূর্ব পাল বলেন, “আমরা বলেছিলাম দাড়িভিট কান্ডের বিচার বিভাগীয় তদন্ত হোক। বিজেপি তাদের রাজনৈতিক ফায়দা তুলছে। নিহতের পরিবারের প্রতি আমাদের সমবেদনা আছে। আমরা তাদের পাশে সবসময় আছি।” তবে তৃণমূল-সিপিএমের এই দাবিকে সম্পূর্ণরূপে নস্যাৎ করে দিতে দেখা গেছে উত্তর দিনাজপুর জেলা বিজেপির সভাপতি নির্মল দামকে।

এদিন তিনি বলেন, “রাজনৈতিক ফায়দা তোলার জন্য আমাদের এই লড়াই নয়। ন্যায় পাইয়ে দেওয়ার জন্যই এই লড়াই। আমরা নিহতদের পরিবারের পাশে তখনও ছিলাম, এখনও আছি। বিচার না পাওয়া পর্যন্ত বিজেপি লড়াই চালিয়ে যাবে।”

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, উত্তর দিনাজপুর জেলার দাড়িভিট কাণ্ডে শাসকদলের প্রতি বিজেপি সরব হওয়াতেই এখানে গেরুয়া শিবিরের উত্থান ঘটেছে। আর তাই সেই দাড়িভিটের স্মৃতিকে উস্কে দিয়ে তার এক বছর পূর্তি উপলক্ষে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে শহীদ স্মরণ করে তৃণমূলকে বিপাকে ফেলতে চাইছে গেরুয়া শিবির বলে মত বিশ্লেষকদের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!