এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > অবাক কর্মসংস্থান! সাড়েনশো রাজ্য সরকারি পদের জন্য ১১ লক্ষেরও বেশি আবেদন – জানুন বিস্তারিত

অবাক কর্মসংস্থান! সাড়েনশো রাজ্য সরকারি পদের জন্য ১১ লক্ষেরও বেশি আবেদন – জানুন বিস্তারিত

Priyo Bandhu Media

রাজ্যে ক্রমবর্ধমান বেকারত্বে ছবি আরো একবার প্রকাশ্যে এল রাজ্যের খাদ্য দপ্তরের ফুড ইন্সপেক্টর পদের চাকরির সূত্রে। গত ২২ আগষ্ট ফুড ইন্সপেক্টর পদে কর্মী নিয়োগের জন্যে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল পিএসসি। ১৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আবেদন জমা পড়েছে। মোট ৯৫৭ টি পদে নিয়োগের জন্যে আবেদন জমা পড়েছে ১১ লক্ষ ৬ হাজার ৩৪৭ টি। এই অনুপাত দেখে চক্ষু চড়ক গাছ পিএসসি কর্তাদের!

গতকাল রাতে জরুরি বৈঠকে পরীক্ষার আয়োজক সংস্থা পাবলিক সার্ভিস কমিশন (পিএসসি) সিদ্ধান্ত নিয়েছে, আগামী ২৭ জানুয়ারি রাজ্যব্যাপী লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হবে। গোটা রাজ্যের তিন হাজারের বেশী পরীক্ষাকেন্দ্রে দুপুর ১ টা থেকে ২.৩০ পর্যন্ত ১০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা হবে ওদিন। এমসিকিউএর ধাঁচে তৈরি প্রশ্ন পত্রে উত্তরদানে সফল পরীক্ষার্থীরা পরবর্তী ধাপে ইন্টারভিউের জন্যে ডাক পাবেন। তাতে উত্তীর্ণ হলেই মিলবে চাকরি।

পিএসসি সূত্রে জানা গিয়েছে,মোট ৯৫৭টি শূন্যপদের মধ্যে সাধারণ চাকরিপ্রার্থীদের জন্য ৪৫৪টি পদ রয়েছে। তফসিলি জাতির জন্য ২০৮টি, তফসিলি উপজাতির জন্য ৫৮টি, ওবিসি-এ’র জন্য ৯৮টি, ওবিসি-বি’র জন্য ৬৯টি, এক্স সার্ভিসম্যানদের জন্য ৫০টি এবং স্পোর্টস পার্সোনালিটিদের জন্য ২০টি পদ সংরক্ষিত রয়েছে। নিয়োগ প্রক্রিয়া দ্রুত সম্পন্ন করতেই নির্দেশ রয়েছে রাজ্যসরকারের। প্রথমে ৫ জানুয়ারি পরীক্ষার দিনক্ষণ ঠিক ছিল।

কিন্তু গত বুধবার পিএসসি অফিসে পরীক্ষা নেওয়ার দায়িত্বে থাকা রাজ্য ও জেলা আধিকারিকদের বৈঠকে প্রধিনিধিরা জানান,৫ জানুয়ারি শনিবার। তাই তারা ২৭ জানুয়ারি (রবিবার) পরীক্ষার জন্যে প্রস্তাব করেন। অবশেষে এদিনের বৈঠকে দিনটি চূড়ান্ত হয়। বারুইপুরে ৩০ হাজার, বারাকপুরে ৫২ হাজার, বারাসতে ৭০ হাজার, বাঁকুড়ায় ৫০ হাজার, সিউড়িতে ৪০ হাজার, বহরমপুরে ৭৬ হাজার, মালদহে ৭৩ হাজার, ডায়মন্ডহারবারে ১৫ হাজার, কৃষ্ণনগরে ৮৪ হাজার, মেদিনীপুরে ৬০ হাজার, তমলুকে ৪০ হাজার, কোচবিহারে ৪৫ হাজার, শিলিগুড়িতে ৩৫ হাজার এবং চুঁচুড়ায় ৪৬ হাজার প্রার্থী পরীক্ষা দেবেন। এমনটাই জানা গিয়েছে,পিএসসির অফিসার অন স্পেশাল ডিউটি (ওএসডি) শিবপ্রকাশ মিশ্রের সূত্র থেকে।

এই ফুড ইন্সপেক্টর পদে চাকরি পেলে গ্রুপ-সি পদমর্যাদার সমতুল্যই বেতন মিলবে। পে-ব্যান্ড টু এর অধীনেই থাকবে তাঁদের বেতনক্রম। পে-ব্যান্ডের সীমা হবে ন্যূনতম ৫৪০০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ২৫ হাজার ২০০ টাকা। এর সঙ্গে জুড়বে গ্রেড-পে বাবদ ২ হাজার ৬০০ টাকা। এছাড়াও অতিরিক্ত হিসেবে মহার্ঘ ভাতা, চিকিৎসা ভাতা এবং বাড়িভাড়া বাবদ ভাতা থাকবে।

উল্লেখ্য, পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীরদের হিসাবের নিরিখে এখনো পর্যন্ত গ্রুপ ডি পদের জন্যে রাজ্যের সবথেকে বড় পরীক্ষা হয়েছিল। সম্প্রতি অষ্টম শ্রেণীর যোগ্যতামানের পরীক্ষায় মাত্র ছ’হাজার পদের জন্যে আবেদন জমা পড়েছিল ২৪ লক্ষ। প্রায় ১৮ লক্ষ পরীক্ষার্থী ওই পরীক্ষা দিয়েছিল। সেই অনুপাত ছাপিয়ে গিয়েছিল সব চাকরির পরীক্ষাকে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

গ্রুপ ডি’র ওই পরীক্ষার পরে বছরের দ্বিতীয় বৃহত্তম পরীক্ষা হতে চলছে এই ফুড ইন্সপেক্টর পদের পরীক্ষাটি। তবে পরীক্ষাটি যাতে শান্তিপূর্ণভাবে মেটে তার জন্যে প্রশাসনিক তৎপরতা তুঙ্গে এখন থেকেই। পরীক্ষায় পরিকাঠামোগত কোনো ত্রুটি রাখা হবে না। তাছাড়া পরীক্ষার দিন পরিবহন থেকে শুরু করে নিরাপত্তা সহ সমস্ত ক্ষেত্রেই প্রয়োজন ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেই জানালেন পিএসসি কর্তারা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!