এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > রাজ্যজুড়ে তৃণমূল নেত্রীর উন্নয়নের জোয়ার শহর কলকাতাতেও জারি রাখতে ‘নিজের গড়’ থেকে নতুন মেয়রকে জেতানোর ব্যবস্থা শুরু

রাজ্যজুড়ে তৃণমূল নেত্রীর উন্নয়নের জোয়ার শহর কলকাতাতেও জারি রাখতে ‘নিজের গড়’ থেকে নতুন মেয়রকে জেতানোর ব্যবস্থা শুরু

Priyo Bandhu Media


সংশোধিত পুরো আইনের ভিত্তিতে শোভন চট্টোপাধ্যায় ইস্তফা দেবার পর কলকাতা পুরসভার মেয়র পদে বসেছেন ফিরহাদ হাকিম। কিন্তু, এই আইন অনুসারে মেয়র পদে বসার ছয় মাসের মধ্যে শহরের যে কোন ওয়ার্ড থেকে তাঁকে কাউন্সিলর পদে জিতে আসতে হবে। এবার তা পূরণের তোড়জোড় শুরু হয়ে গেল। ইতিমধ্যেই শহরের ৮২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রণব বিশ্বাস পদত্যাগ করেছেন। সেখান থেকেই ভোটে লড়বেন কলকাতার নতুন মেয়র।

উল্লেখ্য, এর আগে একাধিকবার ফিরহাদ হাকিম এই ওয়ার্ড থেকেই কাউন্সিলর হয়েছেন। তাই আবারও ‘নিজের গড়’ থেকে দাঁড়িয়ে পায়ের তলার মাটিটা শক্ত করতে চান নব নির্বাচিত মেয়র। আগামী, ৬ জানুয়ারি উপনির্বাচনের দিন ঠিক করা হয়েছে। সেই উদ্দেশ্যে এদিন তৃণমূলের তরফ থেকে ফিরহাদ হাকিম মনোনয়নপত্র জমা দিলেন। তবে, শাসকদল প্রার্থী দিলেও এখনও পর্যন্ত বাম ও বিজেপি প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেনি। এদিন আলিপুরের এসডিওর কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার আগে ফিরহাদ হাকিমের অনুগামীরা এক বর্ণাঢ্য মিছিল করেন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

পাশাপাশি এদিন কলকাতার মহানাগরিকের পাশে ছিলেন তাঁর স্ত্রী, দুই মেয়ে ও জামাই। পরিবারকে সাথে নিয়েই মনোনয়ন জমা দিলেন তৃণমূলের প্রার্থী। ফিরহাদ হাকিমের দাবি, তাঁকে মেয়র হওয়া থেকে আটকানোর জন্য বিরোধীরা নানা রকম চেষ্টা করেছে। এমনকি আদালত পর্যন্ত টেনে নিয়ে গেছে ঘটনাকে। কিন্তু, বিরোধীদের সেই সমস্ত অপচেষ্টা ব্যর্থ হয়ে গেছে। এখন ভোটে লড়ে জিতে তিনি বিরোধীদেরকে দেখাতে চান যে, মানুষের বিশ্বাস এখনও মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়নের উপরেই আছে।

প্রসঙ্গত, ওই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রণববাবুর পদত্যাগের কারণ হিসেবে জানান তাঁর শারীরিক অসুস্থতার কথা। কিন্তু, রাজনৈতিকমহলের জল্পনা ছিল – আদতে, নতুন মেয়রকে কাউন্সিলর হওয়ার জন্যই দলের নির্দেশে তাঁকে পদত্যাগ করতে হয়েছে। আর সেই জল্পনাকে মান্যতা দিয়ে পদত্যাগী প্রণববাবুর আসন থেকেই মনোনয়ন দিলেন নতুন মেয়র। আর তারপরেই তাঁর দাবি, মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়নের জোয়ারে ভাসছে গোটা বাংলা শহর কলকাতাতেও সেই উন্নয়ন অব্যাহত রাখায় এখন তার লক্ষ্য।

অন্যদিকে, বিরোধীরা এখনও প্রার্থী না দিলেও বামফ্রন্টের এক কাউন্সিলর জানান দুই একদিনের মধ্যেই ঐ ওয়ার্ডের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করবেন তাঁরা। একই সঙ্গে বিজেপির তরফ থেকে প্রার্থী হিসেবে উঠে আসছে ৩ জনের নাম। এক কমান্ডার সত্যজিৎ রায়, দুই কলকাতার সাংগঠনিক জেলা সভাপতি জীবন সেন, এবং তৃতীয় জন হলেন দলীয় প্রার্থী প্রতাপ সোনকার। তবে, এই তিনজনের মধ্যে এখনও পর্যন্ত সত্যজিৎবাবুর পাল্লা ভারী বলে জানা যাচ্ছে গেরুয়া শিবিরের তরফ থেকে। সবমিলিয়ে, মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়নের জয়গানে ভরসা রেখেই নতুন লড়াইয়ে কলকাতার নতুন মহানাগরিক।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!