এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > শোভন-রত্না বিবাদে নতুন মোড়,বিবাহবিচ্ছেদের মামলায় জড়িয়ে যাচ্ছেন সন্তানরাও

শোভন-রত্না বিবাদে নতুন মোড়,বিবাহবিচ্ছেদের মামলায় জড়িয়ে যাচ্ছেন সন্তানরাও

মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বিবাহ বিচ্ছেদের কেসটি নতুনভাবে জলঘোলা হল তাঁরই মেয়ের ভিসা ফর্মের পৈত্রিক ঠিকানাকেন্দ্রিক প্রশ্নে। জানা যাচ্ছে, গত বছরের নভেম্বর মাস থেকে একসাথে থাকতেন শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়।এখন শোভনবাবু গিয়ে উঠেছেন গোলপার্কের কাছে একটি দশতলাবিশিষ্ট ফ্ল্যাটে এবং রত্নাদেবী সন্তানদের নিয়ে থাকেন মহারাণী ইন্দিরা দেবী রোডে প্রর্ণশ্রীর বাসভবনেই (শোভন বাবুর পৈত্রিক ভিটা)। ইতিমধ্যে জানা গেছে, শোভনবাবুর মেয়ে একটি শিক্ষামূলক ভ্রমণের উদ্দেশ্যে জার্মানি পাড়ি দিতে চান। আগস্ট মাসে নিশ্চিত ওই সফরে লাগবে তাঁর ভিসা। এবার ভিসা ফর্মে বাবার ঠিকানা কী হবে তাই নিয়ে তৈরি হয়েছে সমস্যা।এমতাবস্থায় শোভনবাবু মেয়ের ভিসা ফর্মে স্বাক্ষর না করায় শিক্ষামূলক ভ্রমণটি কার্যকর করতে সমস্যা হচ্ছে। তাই আদালতের আর্জি জানিয়েছেন শোভনজায়া রত্নাদেবী যাতে আদালত শোভনবাবুকে ফর্মে সাইন করার নির্দেশ দেন। শোভন চট্টোপাধ্যায় এর পক্ষের আইনজীবী প্রতিমপ্রিয় দাশগুপ্তের তরফ থেকে জানা যাচ্ছে যে ভিসা ফর্মে উল্লেখ রয়েছে তাঁর মক্কেল ও রত্নাদেরী নাম ও পর্ণশ্রীর বাসভবনের ঠিকানা। তাতেই স্বাক্ষর করতে জোর করা হচ্ছে শোভনবাবুকে। এখন আইনজীবীর দিক থেকে প্রশ্ন উঠেছে যে উনি যেহেতু এখন ওই ঠিকানা থাকেন না,তাই ওখানে সাইন করতে যাবেন কেন? তিনি আবার বিষয়ের মোড় ঘুরিয়ে বিবাহবিচ্ছেদের কেসে আলোকপাত করেছেন এই বলে যে ওটা নাকি একটা ফাঁদ। সার্দান অ্যাভিনিউয়ের ঠিকানায় শোভনবাবুর বসবাসের অধিকার আইনিস্বীকৃত। এছাড়াও ওই ফ্ল্যাটে  কড়া স্থগিতাদেশ জারি হয়েছে রত্নাদেবীর প্রবেশের উপর। এমতাবস্থায় মেয়ের ভিসা ফর্মে শোভনবাবু যদি পর্ণশ্রীর ঠিকানায় সাইন করেন তবে বিবাহবিচ্ছেদ মামলার সবই উল্টোপাল্টা হয়ে যাবে। অন্যদিকে রত্নাদেবীর তরফের আইনজীবীর দাবী যে ভিসা ফর্মের সঙ্গে দিতে হবে শোভনবাবুর পাসপোর্টের কপিও। আর সেই পাসপোর্টে রয়েছে পর্ণশ্রীর ঠিকানা। তাই ভিসা ফর্মে অন্য ঠিকানা দিলে ভিসার আবদেনটাই তো বাতিল হয়ে যাবে। সমস্যার সমাধানের তিনি যুক্তিতে বলেছেন যে ভিসা ফর্মে স্থায়ী ঠিকানা হিসাবে পর্ণশ্রীর বাসভবন এবং বর্তমান ঠিকানা হিসাবে সার্দান এভিনিউয়ের ফ্ল্যাটের ঠিকানা দিলেই তো মিটে যায়। শোভন-রত্নার বিবাহবিচ্ছেদে সন্তানরা জড়িত হওয়ার ফলে মামলাতে এসেছে নতুন মোড়। তাই নিয়ে আপাতত সরগরম রাজনৈতিক মহলের একাংশ।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

তলাবিশিষ্ট ফ্ল্যাটে। এবং রত্নাদেবী সন্তানদের নিয়ে থাকেন মহারাণী ইন্দিরা দেবী রোডে প্রর্ণশ্রীর বাসভবনেই (শোভন বাবুর পৈত্রিক ভিটা)। ইতিমধ্যে জানা গেছে, শোভনবাবুর মেয়ে একটি শিক্ষামূলক ভ্রমণের উদ্দেশ্যে জার্মানি পাড়ি দিতে চান। আগস্ট মাসে নিশ্চিত ওই সফরে লাগবে তাঁর ভিসা। এবার ভিসা ফর্মে বাবার ঠিকানা কী হবে তাই নিয়ে তৈরি হয়েছে সমস্যা।এমতাবস্থায় শোভনবাবু মেয়ের ভিসা ফর্মে স্বাক্ষর না করায় শিক্ষামূলক ভ্রমণটি কার্যকর করতে সমস্যা হচ্ছে। তাই আদালতের আর্জি জানিয়েছেন শোভনজায়া রত্নাদেবী যাতে আদালত শোভনবাবুকে ফর্মে সাইন করার নির্দেশ দেন। শোভন চট্টোপাধ্যায় এর পক্ষের আইনজীবী প্রতিমপ্রিয় দাশগুপ্তের তরফ থেকে জানা যাচ্ছে যে ভিসা ফর্মে উল্লেখ রয়েছে তাঁর মক্কেল ও রত্নাদেরী নাম ও পর্ণশ্রীর বাসভবনের ঠিকানা। তাতেই স্বাক্ষর করতে জোর করা হচ্ছে শোভনবাবুকে। এখন আইনজীবীর দিক থেকে প্রশ্ন উঠেছে যে উনি যেহেতু এখন ওই ঠিকানা থাকেন না,তাই ওখানে সাইন করতে যাবেন কেন? তিনি আবার বিষয়ের মোড় ঘুরিয়ে বিবাহবিচ্ছেদের কেসে আলোকপাত করেছেন এই বলে যে ওটা নাকি একটা ফাঁদ। সার্দান অ্যাভিনিউয়ের ঠিকানায় শোভনবাবুর বসবাসের অধিকার আইনিস্বীকৃত। এছাড়াও ওই ফ্ল্যাটে  কড়া স্তগিতাদেশ জারি হয়েছে রত্নাদেবীর প্রবেশের উপর। এমতাবস্থায় মেয়ের ভিসা ফর্মে শোভনবাবু যদি পর্ণশ্রীর ঠিকানায় সাইন করেন তবে বিবাহবিচ্ছেদ মামলার সবই উল্টোপাল্টা হয়ে যাবে। অন্যদিকে রত্নাদেবীর তরফের আইনজীবীর দাবী যে ভিসা ফর্মের সঙ্গে দিতে হবে শোভনবাবুর পাসপোর্টের কপিও। আর সেই পাসপোর্টে রয়েছে পর্ণশ্রীর ঠিকানা। তাই ভিসা ফর্মে অন্য ঠিকানা দিলে ভিসার আবদেনটাই তো বাতিল হয়ে যাবে। সমস্যার সমাধানের তিনি যুক্তিতে বলেছেন যে ভিসা ফর্মে স্থায়ী ঠিকানা হিসাবে পর্ণশ্রীর বাসভবন এবং বর্তমান ঠিকানা হিসাবে সার্দান এভিনিউয়ের ফ্ল্যাটের ঠিকানা দিলেই তো মিটে যায়। শোভন-রত্নার বিবাহবিচ্ছেদে সন্তানরা জড়িত হওয়ার ফলে মামলাতে এসেছে নতুন মোড়। তাই নিয়ে আপাতত সরগরম রাজনৈতিক মহলের একাংশ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!