এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > শোভন চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে বিস্ফোরক বর্তমান দমকল মন্ত্রী, জোর চাঞ্চল্য

শোভন চট্টোপাধ্যায়কে নিয়ে বিস্ফোরক বর্তমান দমকল মন্ত্রী, জোর চাঞ্চল্য



 

বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠতার কারণে সেই শোভনবাবুর সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন হয়েছিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। এককালে দিদি অন্তপ্রাণ শোভন চট্টোপাধ্যায়কে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অত্যন্ত স্নেহ করতেন। স্নেহের পর্যায়ে এমন মাত্রায় চলে গিয়েছিল যে, কলকাতা পৌরসভার মেয়র পদের পাশাপাশি বিধায়ক, এবং রাজ্যের দমকল, পরিবেশ ও আবাসন দপ্তরের মন্ত্রীত্ব শোভন চট্টোপাধ্যায়ের কাঁধেই তুলে দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তবে মন্ত্রিত্ব এবং মেয়র পদ বেশিদিন টেকসই হয়নি বর্তমান বিজেপি নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়ের জন্য। মন্ত্রিত্ব নয়, তার কাছে বান্ধবীই বড় বলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করে গত 14 আগস্ট গেরুয়া শিবিরে নাম লিখিয়েছেন তিনি। আর শোভন চট্টোপাধ্যায় বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর তার বিরুদ্ধে তেমন ভাবে কোনো মুখ খোলেনি তৃণমূল কংগ্রেস।

তবে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ঘনিষ্ঠতা নিয়ে বারবার তৃণমূলের তরফে টিপ্পনী কাটা হয়েছে। কিন্তু এককালে রাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ দপ্তরের মন্ত্রিত্ব সামলানো শোভন চট্টোপাধ্যায়ের কাজ নিয়ে কখনও প্রশ্ন তোলেনি তৃণমূল কংগ্রেস। তবে এবার নিজের পূর্বসূরির কাজ নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিলেন বর্তমান দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু।

সূত্রের খবর, সোমবার বিধানসভায় সুজিতবাবু বলেন, “সারা রাজ্যে এখনও পর্যন্ত 1400 ফায়ার অডিট হয়েছে। সেখানে দেখা গিয়েছে, 50 শতাংশের ক্ষেত্রে গলদ রয়েছে। আবার নতুন করে তাদের অডিট করতে বলা হয়েছে।”


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, তৃণমূলের এই হেভিওয়েট নেতা তথা রাজ্যের বর্তমান দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু ফায়ার অডিটে ত্রুটির কথা তুলে ধরে নিজের পূর্বসূরী তথা প্রাক্তন তৃণমূল নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়ের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিলেন। তিনি এই ত্রুটির কথা উল্লেখ করে পরোক্ষে বোঝাতে চাইলেন যে, শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সমস্ত কাজ ঠিকমতো মেনে করেননি।

তবে একাংশ বলছেন, তৃণমূলের সুজিত বসু তৎকালীন মন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায় তথা বর্তমান বিজেপি নেতা সম্পর্কে এরূপ মন্তব্য করলেও তাতে বিজেপির কোনো ক্ষতি হবে না। কেননা যখন শোভন চট্টোপাধ্যায় এই দপ্তর সামলাচ্ছিলেন, তখন তিনি তৃণমূলেই ছিলেন। তাই সেদিক থেকে বর্তমান মন্ত্রী সুজিত বসু শোভন চট্টোপাধ্যায়কে এই ব্যাপারে কটাক্ষ করলেও, আদতে তৃণমূলের ঘাড়েই দোষ আসতে বাধ্য।

যদিও বা এই প্রসঙ্গে তৃণমূলের এক বিধায়ক বলেন, “নেত্রী সেই সময় বুঝতে পারছিলেন, শোভনের কাজে গাফিলতি হচ্ছে। সেই কারণেই শোভনকে ডেকে সতর্ক করেছিলেন। শেষের দিকেই ওর এমন ভুলভ্রান্তি হচ্ছিল।” সব মিলিয়ে এবার নিজের প্রাক্তনীর বিরুদ্ধে সরব হলেন রাজ্যের বর্তমান দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!