এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ব্রেকিং নিউজ – বিবাহবিচ্ছেদ মামলায় বড় ধাক্কা শোভন চট্টোপাধ্যায়ের – জেনে নিন বিস্তারিত

ব্রেকিং নিউজ – বিবাহবিচ্ছেদ মামলায় বড় ধাক্কা শোভন চট্টোপাধ্যায়ের – জেনে নিন বিস্তারিত

আলিপুর আদালতে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা চলছে কলকাতা পুরসভার মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের। এই মামলার এখনও অবধি কোনো মীমাংসা হয়নি। এরইমধ্যে কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ আলিপুর আদালতকে, আগে বিবাহ বিচ্ছেদ নয় খোরপোশ মামলার নিষ্পত্তি করতে হবে। তা সম্পূর্ণ হলে তবেই  নিম্ম আদালতে বিবাহবিচ্ছেদের মূল মামলার শুনানি শুরু হবে-যার ফলে বেজায় চাপে পড়লেন মেয়র বলেই মত রাজনৈতিকমহলের। 

উল্লেখ্য চলতি বছর এপ্রিল মাস থেকে মেয়র এবং মেয়র পত্নীর মধ্যে বিবাদ চলছে। নানান কারনে কখনও সেটা বাড়িতে ঢুকতে না দেওয়া, আবার কখনও নজরদারি চালানো এইরকম একাধিক ঘটনায় একে অন্যের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়েরও করেছেন এই দম্পতি। প্রসঙ্গত, মেয়র পত্নী রত্না চট্টোপাধ্যায় বেহালায় মেয়রের পৈতৃকবাড়িতে ছেলে ও মেয়েকে নিয়ে থাকেন। মেয়র তাঁর স্ত্রী, পুত্র, কন্যার সাথে বসবাস করেন না। তিনি গোলপার্কের একটি ফ্ল্যাটে থাকেন।

গত ২৬ শে জুন বিবাহবিচ্ছেদ মামলার শুনানিতে আলিপুর আদালতে উপস্থিত হয়েছিলেন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। সেদিন তাঁর সাথে ছিলেন কলেজ শিক্ষিকা বন্ধু বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। মেয়রপত্নী রত্না চট্টোপাধ্যায় স্বামীর কাছ থেকে খোরপোশ বাবদ মাসে ১৫ লক্ষ চেয়ে আদালতে আবেদন জানিয়েছেন । এছাড়াও তাঁদের মেয়ের পড়াশোনার জন্য মাসে আরও দেড় লক্ষ টাকা দাবি করেছিলেন। এই আবেদন শোনার পর মেয়র তাঁর স্ত্রী’র কাছে দাবিকৃত এই টাকার বিস্তারিত হিসেব চেয়েছেন।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এই বিষয়টির এখনও মীমাংসা হয়নি। অথচ আলিপুর আদালতে বিবাহবিচ্ছেদের শুনানি চলছে। রত্না চট্টোপাধ্যায়ের আইনজীবী আগে বিবাহ বিচ্ছেদের শুনানিতে আপত্তি জানিয়েছিলেন। তাঁর দাবি ছিলো আগে খোরপোশ সংক্রান্ত মামলাটির নিস্পত্তি করা হোক। তারপরে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলার বিচার হবে। কিন্তু আলিপুর আদালতের বিচারক সেই আবেদন খারিজ করে দেন।

এইসময় রত্না দেবী সহজে হাল ছেড়ে না দিয়ে আলিপুর আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে কলকাতা হাইকোর্টে পালটা মামলা করেন। তাঁর আবেদনকে স্বীকৃতি দিয়ে হাইকোর্টের বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন নির্দেশ দিলেন আলিপুর আদালতকে আগামী ২ মাসের মধ্যে খোরপোশ সংক্রান্ত মামলাটির নিষ্পত্তি করতে হবে। তারপরেই  বিবাহবিচ্ছেদের মূল মামলাটির শুনানি শুরু হবে।

 

Top
error: Content is protected !!