এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > “আমার পক্ষে বৈশাখীকে ভোলা সম্ভব নয়” বিস্ফোরক মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়

“আমার পক্ষে বৈশাখীকে ভোলা সম্ভব নয়” বিস্ফোরক মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়

ইদানিং খবরের শিরোনামে থাকা শ্রেষ্ঠ বঙ্গ রাজনৈতিক নেতার নাম শোভন চট্টোপাধ্যায়। শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের দাপুটে নেতা ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার জেলা সভাপতি, কলকাতার মহানাগরিক তথা রাজ্যের র্যায়ের গুরুত্ত্বপূর্ন মন্ত্রী প্রথমে নারদ কাণ্ডে সিবিআই তদন্তের সম্মুখীন হন, পরবর্তীকালে স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের নামে ‘গার্হস্থ্য হিংসার’ বিস্ফোরক অভিযোগে বিবাহবিচ্ছেদের মামলা রুজু করেন। প্রথমে রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন ছড়ায়, নারদ কেলেঙ্কারি থেকে ‘বাঁচতেই’ বোধহয় এই মামলা। কিন্তু বর্তমানে সামনে এসেছে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর ‘বিশেষ বন্ধুত্ত্বের’ কথা এবং এর জেরেই নাকি তাঁর মন্ত্রীত্ত্ব যেতে পারে বা তৃণমূল কংগ্রেস থেকেই তিনি অপসারিত হতে পারেন বলে গুঞ্জন ওঠে। এই সব প্রসঙ্গেই কলকাতার বেসরকারি বৈদ্যুতিন মাধ্যমে তিনি খোলামেলা সাক্ষাৎকার দেন। সেখান থেকেই জানা যাচ্ছে –

১. বৈশাখী আমার অনেক দিনের পারিবারিক বন্ধু
২. আমি এখন ভালো সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি না, বৈশাখীকে এ সময় আমি পাশে পেয়েছি
৩. বৈশাখী না থাকলে আমি অস্তিত্ব সঙ্কটে ভুগতাম
৪. বৈশাখীর উপর কোনও আঘাত আসার আগে, সে আঘাত যেন আমার উপর আসে
৫. নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কখনই আমাকে বৈশাখীর ব্যাপারে কোনও প্রশ্ন করেননি
৬. বৈশাখীর প্রশ্ন রাজনৈতিক ক্ষেত্রে কেন আসছে, সেটা নিয়েই আমি মর্মাহত
৭. ব্যাক্তিগত স্বার্থসিদ্ধি করতেই অনেকে বৈশাখীর সঙ্গে আমার নাম জড়িয়ে আমার রাজনৈতিক জীবনকে বিপর্যস্ত করতে চাইছে
৮. ওয়েবকুপা থেকে বৈশাখীর অপসরণ অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক
৯. আমার পাশে দাঁড়ানোর জন্য যদি ওঁর উপর কোনও আঘাত আসে, আমি কখনই তা মেনে নিতে পারব না
১০. শুধু আমিই নই, আমার ‘প্রাক্তন’ স্ত্রী রত্নাও বৈশাখীর থেকে সাহায্য নিয়েছেন
১১. রত্না ও বৈশাখীর সম্পর্ক যে একসময় বেশ ভালো ছিল
১২. প্রয়োজনে অনেকেই বৈশাখীর কাছ থেকে সাহায্য নিয়েছেন, আজ ভুলে গিয়েছেন
১৩. আমার পক্ষে বৈশাখীকে ভোলা সম্ভব নয়
১৪. বিশ্বাসঘাতকতার সম্মুখীন হয়েছি, না হলে ২৪ বছরের বিবাহিত জীবনে ইতি টানার চেষ্টা করতাম না
১৫. বৈবাহিক সম্পর্ক জোড়া লাগার কোনও জায়গা নেই
১৬. ও বাড়িতে শুধু আমার মৃতদেহই যাবে
১৭. মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে গতকালই আমার কথা হয়েছে
১৮. তিনি আমাকে কাজ করে যেতে বলেছেন
১৯. ইস্তফা দেওয়ার কোনও প্রশ্নই নেই
২০. নেত্রী আমার ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কোনও ‘আলোকপাত’ করেননি

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!