এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > গ্রেপ্তার হেভিওয়েট দলীয় নেতা অথচ নেই কোনো জোরালো কর্মসূচি, প্রশ্ন গেরুয়া শিবিরের অন্দরেই

গ্রেপ্তার হেভিওয়েট দলীয় নেতা অথচ নেই কোনো জোরালো কর্মসূচি, প্রশ্ন গেরুয়া শিবিরের অন্দরেই

রাজ্যে দলীয় কর্মীদের মারধর বা মিথ্যে মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগে শাসকদল তৃনমূলের ওপর চাপ বাড়াতে প্রতিবাদ আন্দোলন জোরদার করছে বিজেপি। অথচ দক্ষিন দিনাজপুরের বিজেপি সভাপতি শুভেন্দু সরকারকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় কার্যত চুপচাপ গেরুয়া নেতারা।
প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ৫ জুন নিজের বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় জেলা বিজেপির মহিলা মোর্চার তৎকালীন সহ সভাপতি মৌসুমী মজুমদারের দেহ। সন্দেহ আত্মহত্যা করেছেন তিনি। মৌসুমীর পরিবারের তরফে বিজেপির জেলা সভাপতি শুভেন্দু সরকারের বিরুদ্ধে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে। তদন্তে নেমে ৮ জুলাই শুভেন্দু সরকারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

জেলার শীর্ষনেতার এভাবে গ্রেপ্তারের ঘটনায় মুখ খোলেন নি অধিকাংশ নেতাই। দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়, কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র মত নেতারা এ ব্যাপারে কোনও উচ্চবাচ্য করেন নি। শুভেন্দু সরকারকে মুক্তির দাবিতে হাতে গোনা কয়েকজন কর্মী-সমর্থক বিভিন্ন ব্লক অবরোধ করলেও সেভাবে ময়দানে নামতে দেখা যায়নি উচ্চ নেতৃত্বকে। সম্প্রতি দক্ষিণ দিনাজপুরে একটি দলীয় কর্মসূচীতে যোগ দিলেও বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এব্যাপারে কোনো মন্তব্য করেননি।

পরে অবশ্য তিনি বলেন, “বিষয়টি নজরে আছে। আইনি পথে লড়াই হবে। শুভেন্দুবাবুর পাশে দল সর্বদা আছে।” এখানেই দলের একাংশ মনে করছেন, জনসভায় দলীয় নেতাকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলে জেলার কর্মীদের মনোবল আরও বৃদ্ধি পেত। মুকুল রায়, কৈলাশ বিজয়বর্গীয়র মত নেতারা দলের কর্মসূচিতে জেলায় এলেও শ্রীঘরে থাকা শুভেন্দুবাবুর সঙ্গে দেখা করা তো দূর অস্ত, জেলা নেতাকে ছাড়ানোর জন্যে কর্মীরা কি পদক্ষেপ নেবেন সে ব্যাপারেও কোনো রুটম্যাপ ঠিক করে দেননি!
শেষ পর্যন্ত ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমেছে দক্ষিন দিনাজপুর জেলা বিজেপি। জেলার সাধারন সম্পাদক মানস সরকার বলেন, “শুভেন্দুবাবুকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় আমরা ইতিমধ্যেই পথ অবরোধ ও থানা ঘেরাও করেছি। আগামীতে এই আন্দোলন আরও জোরদার হবে। বিষয়টি রাজ্য নেতৃত্ব দেখছে।”

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!