এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > সোমনাথ চ্যাটার্জির মৃত্যুই কি প্রনবের নেতৃত্বে মিলিয়ে দিতে চলেছে মমতা-সোমেন-সুজনকে?

সোমনাথ চ্যাটার্জির মৃত্যুই কি প্রনবের নেতৃত্বে মিলিয়ে দিতে চলেছে মমতা-সোমেন-সুজনকে?

অবশেষে কি রাজ্য রাজনীতিতে অহিনকুল সম্পর্ক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, সোমেন মিত্র এবং সুজন চক্রবর্তীকে দেখা যাবে এক মঞ্চে? অনেকেই ভাবছেন যে, বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে এই অসম্ভব জিনিসকে সম্ভব করবে কে? সূত্রের খবর, এই ঘটনার নেপথ্যে রয়েছে প্রয়াত প্রাক্তন সিপিএম নেতা তথা লোকসভার প্রাক্তন স্পিকার সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়। দলের সাথে দূরত্বের কারণে এতদিন তাঁর শোকসভাকে খুব একটা ঘটা করে পালন করেনি সিপিএম। তবে এবারে সেই প্রয়াত নেতার স্মরণ সভা পালনে উদ্যোগী হল পিডিএস। জানা গেছে, তাদের দলীয় ম্যাগাজিন “নতুন পথ এই সময়” এর উদ্যোগে আগামীকাল কলামন্দিরে একটি স্মরণসভার আয়োজন করতে চলেছে তারা। আর এই সভায় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবার কথা রয়েছে এক কালে সেই প্রয়াত সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়েরই প্রবল রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ তথা দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের।

তবে শুধু প্রণব মুখোপাধ্যায় নয়, আগামীকালের এই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, পার্থ চট্টোপাধ্যায়, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, অরূপ বিশ্বাস এবং ফিরহাদ হাকিমের মত শাসকদলের শীর্ষস্তরের নেতাদেরও। তবে শুধু শাসক দলই নয়, প্রয়াত সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের স্মরণ সভায় আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে তাঁরই প্রাক্তন দল সিপিএমের সুজন চক্রবর্তী এবং গৌতম দেবকেও। অন্যদিকে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে সোমেন মিত্র, অধীর চৌধুরী এবং বিজেপির পক্ষ থেকে বাবুল সুপ্রিয়, জুলু মুখোপাধ্যায়দেরও এই সভায় উপস্থিত থাকতে চিঠি দিয়েছে পিডিএস। আর যদি আমন্ত্রিতদের মধ্যে প্রায় প্রত্যেকেই উপস্থিত থাকেন তাহলে লোকসভা ভোটের আগে এটা এক অন্য সমীকরণের সাক্ষী থাকবে বাংলা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিকে আগামী কালের এই স্বরণসভা প্রসঙ্গে পিডিএসের রাজ্য সম্পাদক সমীর পুততন্ড বলেন, “সোমনাথদার মতো রাজনৈতিক ব্যক্তিকে স্মরণ করবার জন্য যে ধরনের সভার আয়োজন করা উচিত আমরা সেটাই করছি। মতাদর্শগত ভিন্নতা থাকলেও তার সঙ্গে সব দলের বেশ কিছু নেতা-নেত্রীর ব্যক্তিগত পরিচয় ছিল। তাই শাসক থেকে বিরোধী আমরা সকলকে এই স্মরণ সভায় উপস্থিত হওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছে।” এখন দেখার যে, প্রয়াত রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের আগামীকালের স্মরণ সভায় ঠিক কে কে উপস্থিত হন? যার দিকে তাকিয়ে গোটা রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!