এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > মাটি কাটাকে কেন্দ্র করে চরম উত্তেজনা, নাম জড়াচ্ছে তৃনমূল সভাপতির

মাটি কাটাকে কেন্দ্র করে চরম উত্তেজনা, নাম জড়াচ্ছে তৃনমূল সভাপতির

গয়েশপুর পৌরসভা। মাটি মাফিয়াদের অবারিত দ্বার। কিছুদিন আগেই কল্যানী এক্সপ্রেসওয়ের ধারেই সরকারি জমিতে জেসিবি দিয়ে মাটি কাটার অভিযোগ পেয়েই ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে তা বন্ধ করে দেয়। অভিযোগ, পুর কতৃপক্ষ রাস্তার ওয়ার্ক অর্ডার হওয়া সত্তেও কাজ শুরু না করায় আরও প্রশ্রয় পাচ্ছে এই মাটি মাফিয়ারা।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর এইসব অভিযোগে যখন পুরসভার বিরুদ্ধে বিষোদগার করছেন এলাকাবাসীরা ঠিক তখনই গয়েশপুরের 8 নং ওয়ার্ডে জেসিবি দিয়ে মাটি কাটার সময়ই তা এলাকাবাসীর নজরে আসলে তারাই তা ত নজরে আনে তা দলীয় নেতৃত্বের।জানা যায়,তৃনমূলের 8নং ওয়ার্ড সভাপতি নজরুল ইসলামই এই মাটি কাটার সাথে জড়িত। এদিকে বিষয়টি জানাজানি হতেই ঘটনাস্থলে পৌছোন ভূমি দপ্তরের আধিকারিক সহ পুলিশ প্রশাসনের কর্তারা হাজির হন।

ঘটনাস্থলে পৌছোন শহর তৃনমূলের সভাপতি সুকান্ত চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “যা চলছে তা ঠিক নয়। মাটি কারবার এখানে চলবে না।” অন্যদিকে ঘটনায় অভিযুক্ত ওয়ার্ড তৃনমূল সভাপতি নজরুল ইসলাম এই ঘটনা অস্বীকার করে বলেন,”নিজেদের মাটি কেটে শরিকের জমিতে দিচ্ছিলাম।” দলীয় সূত্রের খবর,ইতিমধ্যেই অভিযুক্ত ওয়ার্ড সভাপতিকে তাঁর পদ থেকেও সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে গয়েশপুর পুরসভার চেয়ারম্যান মরনকুমার দে বলেন, “এধরনের কাজ সম্পূর্ন বেআইনি। ইঞ্জিনিয়ারদের পাঠিয়ে কাজ বন্ধ করানো হয়েছে। প্রশাসনকেও ব্যাবস্থা নিতে বলেছি।” সব মিলিয়ে অবৈধ মাটি মাফিয়াদের তালিকায় তৃনমূল সভাপতির নাম জড়ানোয় অস্বস্তিতে শাসকদল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!