এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > সিতাইয়ে অপহৃত যুবনেতা অভিযোগ মাদারের দিকে, দিনহাটায় দলীয় প্রধান খুনে অভিযোগ যুবর বিরুদ্ধে

সিতাইয়ে অপহৃত যুবনেতা অভিযোগ মাদারের দিকে, দিনহাটায় দলীয় প্রধান খুনে অভিযোগ যুবর বিরুদ্ধে

দলীয় নেতৃত্বের কড়া হুঁশিয়ারি সত্ত্বেও কোচবিহারের সিতাই এবং দিনহাটায় যেন শাসকদলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব থামছে না কিছুতেই। সূত্রের খবর, গতকাল সিতাইয়ের যুব তৃণমূল কর্মী রফিক মিয়াকে মারধর এবং অপহরনের অভিযোগ উঠল মূল সংগঠনের লোকেদের বিরুদ্ধে।

অভিযোগ, গত মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছটা নাগাদ চামটা গ্রাম পঞ্চায়েতের বত্তরবাজার থেকে যুব তৃণমূল কর্মী রফিক মিয়াকে অপহরণ করে কিছু ব্যক্তি। আর এই ঘটনায় অভিযোগের আঙুল উঠেছে সিতাইয়ের বিধায়ক তথা তৃণমূল কংগ্রেস নেতা জগদীশচন্দ্র বর্মা বসুনিয়ার বিরুদ্ধে।

যদিও বা এখনও পর্যন্ত এই ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দায়ের করেনি কোনো পক্ষই। কিন্তু লিখিতভাবে কোনো অভিযোগ দায়ের করা না হলেও এদিন সিতাইয়ের যুব তৃণমূলের ব্লক সভাপতি পরিমল রায় বলেন, “আমাদের কর্মী রফিক মিয়াকে বিধায়কের লোকজনই তুলে নিয়ে গিয়েছে। আমরা সিতাই থানায় মৌখিকভাবে অভিযোগ জানিয়েছি।”

অন্য দিকে তার বিরুদ্ধে আনা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে নিয়েছেন সিতাইয়ের তৃণমূল বিধায়ক। এদিন তিনি বলেন, “পরিমল রায় আমাদের যুব সংগঠনেরই কেউ নয়। ও সম্প্রতি জেল থেকে ছাড়া পেয়েছে। এলাকায় অশান্তি পাকাতে এইসব ভিত্তিহীন কথা বলছে।” তবে দীর্ঘদিন ধরেই এই সিতাইয়ে শাসকদলের যুব এবং মাদার সংগঠনের মধ্যে যেভাবে তরজা চলছে তা সম্প্রতি যুব তৃণমূলের এক কর্মীর অপহরণ কান্ডে আরও বৃদ্ধিই পেল বলে মত রাজনৈতিক মহলের।

অন্যদিকে সিতাইয়ে যখন এইরূপ উত্তেজনাময় পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে ঠিক তখনই, গত সোমবার রাতে দিনহাটা 1 ব্লকের বড় আটিয়াবাড়ি 2 গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেসের মকবুল হোসেন আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য ছড়াল এলাকায়। এদিকে এই ঘটনায়ও সামনে চলে এসেছে শাসকদলের গোষ্ঠী সংঘর্ষ। প্রধান আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় ইতিমধ্যেই দলের যুব সংগঠনের এক সদস্যের নামে দিনহাটা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন তৃণমূলের মূল সংগঠনের সদস্যরা।

এদিকে তাদেরকে ফাঁসানো হচ্ছে, এই জন্যই এইভাবে মিথ্যে মামলা করা হয়েছে-এই দাবি তুলে গতকাল দিনহাটা-গীতালদহ রাস্তা অবরোধ করে প্রবল বিক্ষোভ দেখান যুব তৃনমূলের কর্মী সমর্থকেরা। এদিন এই প্রসঙ্গে আক্রান্ত তৃণমূল কংগ্রেসের প্রধান মকবুল হোসেন বলেন, “সোমবার রাতে বৈঠক করে বাড়ি ফেরার সময় কিছু যুব কর্মীর নেতৃত্বে একদল দুষ্কৃতী আমার উপর আক্রমণ চালায়। আমি অভিযুক্তদের ধরবার জন্য পুলিশের কাছে আবেদন জানিয়েছি।” তবে যুব তৃনমূলের বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগ সম্পূর্ণরূপে অস্বীকার করেছেন বড় আটিয়াবাড়ি 2 গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি নাজির হোসেন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

সিতাইয়ে অপহৃত যুবনেতা অভিযোগ মাদারের দিকে, দিনহাটায় দলীয় প্রধান খুনে অভিযোগ যুবর বিরুদ্ধেএদিন তিনি বলেন, “আমাদের কর্মীদের নামে মিথ্যে কথা বলা হচ্ছে। 100 দিনের কাজে এই এলাকায় ব্যাপক অনিয়ম হয়েছে। আর এই ঘটনাকে আড়াল করতেই আমাদের নামে অপবাদ দেওয়া হচ্ছে।”

তবে শাসক দলের মূল এবং যুব সংগঠনের এই দ্বৈরথে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে এলাকায় বিরোধীরা যে বাজিমাত করতে আসরে নামবে সেই ব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত রাজনৈতিক মহল।

Top
Close
error: Content is protected !!