এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > সিঙ্গুরে শাসকদলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে ঘৃতাহুতি প্রাক্তন মন্ত্রী-পত্নীর মনোনয়ন নিয়ে বিস্ফোরক সিদ্ধান্ত

সিঙ্গুরে শাসকদলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে ঘৃতাহুতি প্রাক্তন মন্ত্রী-পত্নীর মনোনয়ন নিয়ে বিস্ফোরক সিদ্ধান্ত

রাজ্যের বিরোধী আসন থেকে শাসকদল রূপান্তরিত হওয়ার পথে তৃণমূল কংগ্রেসের কাছে সিঙ্গুর একটি গুরুত্ত্বপূর্ন নাম। সিঙ্গুর-আন্দোলন পাঠ্যপুস্তকের অন্তর্গত হয়েছে, এমনকি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রথম মন্ত্রিসভায় সিঙ্গুর আন্দোলনের দুই নেতা রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য ও বেচারাম মান্না মন্ত্রীও হয়েছেন। কিন্তু পরবর্তীকালে দুজনের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে দুজনকেই মন্ত্রিসভা থেকে ছেঁটে ফেলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। আর এবার নতুন করে সেই গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব চরমে পৌঁছল আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচন ঘিরে আর তাতে ঘৃতাহুতি দিলেন প্রাক্তন মন্ত্রী বেচারাম মান্নার স্ত্রী করবী মান্নার মনোনয়ন নিয়ে সিদ্ধান্ত। করবীদেবী বর্তমানে হুগলি জেলা মহিলা তৃণমূলের সভানেত্রী এবং জেলা পরিষদের সদস্য, ২০১৩ এর পঞ্চায়েত নির্বাচনে তিনি সিঙ্গুরের গোপালনগর থেকে জিতেছিলেন।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

কিন্তু এবার তিনি মনোনয়নই জমা দেননি, যা নিয়ে চূড়ান্ত জল্পনা সিঙ্গুর-রাজনীতিতে। সিঙ্গুরের রাজনীতিতে কান পাতলে শোনা যাচ্ছে, সিঙ্গুর এবং লাগোয়া হরিপালে পঞ্চায়েতের টিকিট বণ্টন নিয়ে তৃণমূলের অন্দরে চরম দ্বন্দ্ব প্রাক্তন দুই মন্ত্রীর। সিঙ্গুরের মোট ১৬টি পঞ্চায়েতের মধ্যে হরিপাল বিধানসভার তিনটি পঞ্চায়েত পড়ছে – কেজেডি, বলরামবাটি এবং বাসুবাটি। যেহেতু ওই তিনটি পঞ্চায়েত হরিপাল বিধানসভার অন্তর্গত তাই, সেখানে প্রার্থী দেওয়া নিয়ে রবীন্দ্রনাথবাবুর সঙ্গে কোনো আলোচনাতেই রাজি নন বেচারামবাবু বলে স্থানীয় সূত্রের খবর। মাঝে দুই পক্ষকে নিয়ে হুগলির সাংসদ রত্না দে নাগ, উত্তরপাড়ার পুরপ্রধান দিলীপ যাদব এবং ধনেখালির বিধায়ক তথা মন্ত্রী অসীমা পাত্র বৈঠকে বসেন। কিন্তু সেখানেও কোনো সমাধান হয় নি, উল্টে বেচারামবাবুর অভিযোগ সিঙ্গুরের বাকি ১৩ টি পঞ্চায়েতে অনেক যেটা প্রার্থীকে এবার টিকিট দেন নি রবীন্দ্রনাথবাবু। আর তাই নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক তৃণমূল নেতার কথা অনুযায়ী রবীন্দ্রনাথবাবুকে আরো কোনঠাসা করতেই করবীদেবী এবার মনোনয়ন তোলেননি – রফাসূত্র তখনই হবে যদি বেচারামবাবুর সব দাবি রবীন্দ্রনাথবাবু মেনে নেন, যার সম্ভাবনা অত্যন্ত ক্ষীণ। ফলে পঞ্চায়েতে ভোট হলে কার ভোট কোথায় পড়বে তা নিয়ে চূড়ান্ত জল্পনা তৃণমূলের অন্দরেই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!