এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > সিঙ্গুর নিয়ে বড় দাবি কৃষিমন্ত্রীর, নস্যাৎ করে চাপ বাড়াচ্ছে কংগ্রেস-বামফ্রন্ট

সিঙ্গুর নিয়ে বড় দাবি কৃষিমন্ত্রীর, নস্যাৎ করে চাপ বাড়াচ্ছে কংগ্রেস-বামফ্রন্ট

বিগত বাম সরকারের আমলে সিঙ্গুরে জোর করে কৃষিজমি কেড়ে নেওয়ার বিরুদ্ধে প্রবল আন্দোলন করে ক্ষমতায় এসেছিলেন রাজ্যের বর্তমান শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। আর ক্ষমতায় এসেই সেই অনিচ্ছুক কৃষকদের ভাতা এবং চাল দেওয়ার পাশাপাশি সেই জমিও ফেরত দিয়েছে রাজ্য।

কিন্তু বিরোধীদের পক্ষ থেকে বারবার দাবি করা হয়েছে যে জমি ফেরত দিলেও সেই জমি আদতে কৃষকদের কোন কাজেই লাগছে না। আর এবার রাজ্য বিধানসভার প্রশ্নোত্তর পর্বেও উঠল সেই সিঙ্গুর প্রসঙ্গই। সূত্রের খবর, চলতি অধিবেশনেই সিঙ্গুরের জমির বর্তমান অবস্থা নিয়ে সিপিএম বিধায়ক রফিকুল ইসলাম কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্যে একটি প্রশ্ন করেন।

আর গতকাল সেই প্রশ্নেরই লিখিত ভাবে জবাব দেন রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী। জানা গেছে, আশিস ব্যানার্জির দেওয়া লিখিত উত্তরে বলা হয়েছে, “সিঙ্গুরের শিল্পের জন্য মোট 995.92 জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছিল। আর এর মধ্যে 955.90 একর জমি চাষ যোগ্য করে 13 হাজার 333 জন কৃষককে তা ফেরত দিয়েছে রাজ্য সরকার। আর ক্ষমতায় বসার পরই রাজ্য সরকার 3 হাজার 619 জন অনিচ্ছুক কৃষককে দুহাজার টাকা ও দুই টাকা কিলো দরে চাল দিয়েছে।”

আর এদিন রাজ্য বিধানসভায় কৃষি দপ্তর সংক্রান্ত অন্য এক আলোচনার সময় আর এক সিপিএম বিধায়ক আমজাদ হোসেন সিঙ্গুর নিয়ে একটি অতিরিক্ত প্রশ্ন করেন কৃষিমন্ত্রী আশিষ ব্যানার্জিকে। আর সাথে সাথে সেই আমজাদ হোসেনকে কটাক্ষ করে কৃষিমন্ত্রী বলেন, “এ কি কথা শুনি মন্থরার মুখে! কৃষকদের জমি দখল করে আপনারা টাটাদের হাতে জমি তুলে দিয়েছিলেন। আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনেক লড়াই করে সেই কৃষকদের হাতের সেই জমি ফিরিয়ে দিয়েছেন।”

এদিকে কৃষিমন্ত্রীর এহেন বক্তব্যে প্রবল ক্ষোভ তৈরি হয় বিধানসভার অন্দরে। আর কৃষিমন্ত্রীর এই বক্তব্যকে ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র। তিনি বলেন, “সিঙ্গুরের বাস্তবতা সম্পূর্ণ ভিন্ন। সেখানে চাষ-বাসের প্রকৃত ছবিটা কি তা যে কেউ গিয়ে দেখে আসতে পারেন। তাহলেই কৃষকদের করুণ অবস্থার কথা বোঝা যাবে।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

পাশাপাশি কৃষিমন্ত্রীর দেওয়া তথ্যের সঙ্গে বাস্তবের কোনো মিল নেই বলেও এদিন সরকারের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করেন কংগ্রেসের সচেতক মনোজ চক্রবর্তী। সব মিলিয়ে এবার রাজ্য বিধানসভায় সিঙ্গুর প্রসঙ্গ উঠতেই সরকারকে চেপে ধরল বিরোধীরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!