এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > তুলকালাম শিলিগুড়ি পুরসভায়,ক্রমশ চাপ বাড়াচ্ছে শাসকদল,কঠিন লড়াইয়ে অশোক

তুলকালাম শিলিগুড়ি পুরসভায়,ক্রমশ চাপ বাড়াচ্ছে শাসকদল,কঠিন লড়াইয়ে অশোক

পুরবোর্ডের বৈঠককে কেন্দ্র করে ফের শোরগোল শিলিগুড়িতে। অভিযোগের বাঁধ ভাঙলো বিরোধীদল তৃণমূল কংগ্রেসের কাউন্সিলারদের। এলইডি লাইট কেনা নিয়ে ব্যাপক কারচুপি হচ্ছে বামফ্রন্ট পরিচালিত শিলিগুড়ি পুরসভায়, এই অভিযোগ নিয়ে এদিন পুরসভার মিটিং-এই সরব হলেন তাঁরা। রাজনৈতিক সূত্রের খবর থেকে জানা যাচ্ছে যে, এদিন মিটিং শুরুর লগ্ন থেকেই বিরোধী তৃণমূল কংগ্রেস একজোট হয়ে পুরসভার বিভিন্ন অফিসে নানা অনিয়ম হচ্ছে এই দাবী জানিয়ে অভিযোগের আওয়াজ তোলেন। পুরসভার ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল কাউন্সিলার কৃষ্ণ পাল প্রশ্ন তোলেন যে, বাজারে ৮ – ৯ হাজার টাকার এলইডি লাইট পাওয়া গেলেও পুরসভা কেন তা বেশি দরে (২০-২২ হাজার) কিনছে? এই প্রশ্নে কৃষ্ণবাবুর সঙ্গে গলা মেলাতে দেখা গেলো পুরসভার তৃণমূল দলনেতা রঞ্জন সরকারকে। তিনিও বলেন যে, বহুকাল ধরে শিলিগুড়ি পুরবোর্ড প্রতিটি দপ্তরেই অনিয়ম করে চলেছে।শহরের রাস্তার বাতিগুলো এলইডি লাইট দিয়ে সাজিয়ে তুললেও এর পেছনে রয়েছে প্রচুর কারচুপি। এলইডি কেনার নাম করে তাঁরা লক্ষ লক্ষ টাকা নিজেদের পকেটে ঢোকাচ্ছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এসব অনিয়মের মুখোশ উপড়ে ফেলতেই নাকি তাঁরা তদন্ত কমিটি গঠন করার দাবী জানিয়েছেন। শুধু বাতি কেনার ব্যাপারেই অনিয়ম নয়,ট্রেড লাইসেন্স সহ বিভিন্ন দপ্তরেরও বেআইনি ভাবে কাজ চলছে বলে অভিযোগ তাঁর। এইসব অভিযোগের ভিত্তিতে সঙ্ঘবদ্ধ আক্রমণ শানাতে দেখা গেলো বাকি তৃণমূল কাউন্সিলরদেরও। এর পাশাপাশি শহরের জঞ্জাল সমস্যা নিয়েও তৃণমূল কাউন্সিলাররা অভিযোগের তীর ছোঁড়েন বাম সমর্থিত পুরসভার সংশ্লিষ্ট কর্মীদের বিরুদ্ধে। বেলা ১২ টা অব্দি নাকি বিভিন্ন ওয়ার্ডে নোংরা জমে থাকে। এ নিয়ে কাউন্সিলারটা পরিবেশ বিভাগের মেয়র পরিষদ সদস্য মুকুল সেনগুপ্তকে জানান। তবে মুকুল বাবুর তরফ থেকে জানানো হয় যে শহরের জঞ্জাল সাফ করার কাজ রীতিমতো শুরু হয়ে গেছে। অবিলম্বে সেটা শেষও করা হবে।

ওদিকে, ক্যাগের রিপোর্টকে পুরসভাকে নিয়ে তৃণমূলের ‘অনিয়ম তত্ত্ব’ কে তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিলেন শিলিগুড়ির বাম মেয়র অশোক ভট্টাচার্য। অশোক বাবু জানান যে এলইডি লাইট কেনা নিয়ে নাকি পুরসভার অন্দরে কোনো অনিয়মই হয়নি। এতোদিন যাবৎ কোনো অনিয়মকে প্রশ্রয় দিয়ে তাঁরা পুরসভা পরিচালনা করছেন না বলেও দাবী করেন। তাছাড়া প্রমাণ স্বরূপ এটাও জানান যে, সমস্ত বিধিবদ্ধ সংস্থার অডিটের দায়িত্বে থাকা ‘ক্যাগ’ও বাম সমর্থিত পুরসভার রিপোর্টে কোনো অসঙ্গতিও পায়নি। তৃণমূল আসলে লোকসভা ভোটের আগে বামদের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে এসব মিথ্যে দোষারোপ করছে বলে পাল্টা দাবী জানালেন এদিন। আপাতত দুই যুযুধান গোষ্টীর অভিযোগ এবং পাল্টা অভিযোগের জেরে চাপানউতোর পরিস্থিতি চলছে শিলিগুড়ি পুরসভা চত্বরে। তা নিয়ে গুঞ্জন কিছু কম নেই শহরের রাজনীতিতে, এমনটাই জানা যাচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!