এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > শিক্ষক বদলি নিয়ে এবার যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত ঘোষণা রাজ্য সরকারের! জানুন বিস্তারিত

শিক্ষক বদলি নিয়ে এবার যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত ঘোষণা রাজ্য সরকারের! জানুন বিস্তারিত

 

শিক্ষক নিয়োগ থেকে শিক্ষক বদলি, বিভিন্ন ক্ষেত্রে অস্বচ্ছতার অভিযোগ তুলে সরকারের বিরুদ্ধে অতীতে সরব হতে দেখা গেছে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোকে। তবে এবার এই শিক্ষক বদলি প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা আনতে মরিয়া হয়ে উঠল রাজ্য সরকার।

 

সূত্রের খবর, এবার স্কুল শিক্ষকদের বদলি নিয়ে বড়সড় সিদ্ধান্ত নিল রাজ্যের মা-মাটি-মানুষের সরকার। জানা গেছে, এবার থেকে অনলাইনে পুরো প্রক্রিয়া করা হবে। ফলে এক্ষেত্রে একদিক থেকে স্কুল সার্ভিস কমিশনে বদলির বিষয় যে ক্ষমতা ছিল, তা খর্ব করা হচ্ছে বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

বস্তুত, দীর্ঘদিন ধরেই স্কুল শিক্ষক শিক্ষিকাদের বদলির আবেদন ঝুলে থাকায় রাজ্যের পড়ুয়ারা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠতে শুরু করেছিল। যার ফলে পঠন-পাঠন যাতে ব্যাহত না হয়, তার জন্য এই বদলির বিষয়টি যাতে দ্রুত সমাধান করা যায়, তার জন্য অনেকেই আবেদন করেছিলেন শিক্ষামন্ত্রীর কাছে। এমনকি অনেক ক্ষেত্রে এই বদলির ফলে স্কুল সার্ভিস কমিশনের পক্ষপাতমূলক আচরণ সামনে আসছে বলেও অভিযোগ করা হয়েছিল। আর এবার সেই শিক্ষক-শিক্ষিকাদের অভিযোগের বহর মেটাতে অভিনব সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার।

জানা গেছে, রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এই ব্যাপারে “বাংলার শিক্ষা” নামে একটি পোর্টাল তৈরি করা হয়েছে। যেখানে স্কুল শিক্ষা সংক্রান্ত সমস্ত তথ্য দেওয়া থাকবে। ফলে কোন স্কুলে কতজন শিক্ষক আছেন, শিক্ষার্থীর সংখ্যা কত এবং সেইখানে কোনো শিক্ষক পদ শূন্য আছে কিনা! তা এই পোর্টালের মধ্যে দিয়েই জানতে পারবেন সকলে। ফলে সেদিক থেকে বদলির বিষয় কোনো অসুবিধাই হবে না বলে মনে করছে একাংশ।

শিক্ষক-শিক্ষিকাদের একাংশ ইতিমধ্যেই আশা প্রকাশ করতে শুরু করেছেন, এই পোর্টালের মাধ্যমে যেমন তাদের হয়রানি কমবে, ঠিক তেমনই অনলাইনে বদলির আবেদন করতে পারবেন তারা। ফলে বারবার তাদের স্কুল সার্ভিস কমিশনের দপ্তরে ছুটতে হবে না। তবে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে শিক্ষক বদলি নিয়ে বিভ্রান্তি কাটাতে পোর্টাল চালু করার উদ্যোগ নেওয়া হলেও, তা কবে বাস্তবায়িত হয়! এখন সেদিকেই নজর সকলের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!