এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > নারী সুরক্ষার জন্যই ব্যবহৃত হয় তালাক – তাই তা ছিল, আছে, থাকবে: সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী

নারী সুরক্ষার জন্যই ব্যবহৃত হয় তালাক – তাই তা ছিল, আছে, থাকবে: সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী

সম্প্রতি লোকসভায় তিন তালাক বিরোধী বিল পাস করেছে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার। কিন্তু রাজ্যসভায় বিরোধীদের আপত্তি ও সংখ্যাগরিষ্ঠ না থাকার কারণে সেই বিল আটকে গেছে। এদিকে এই তিন তালাক বিল নিয়ে যখন কেন্দ্রের মোদি সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে বিভিন্ন দল গুলো, ঠিক তখনই সেই প্রসঙ্গে মুখ খুললেন জমিয়তে উলেমায়ে হিন্দের সভাপতি তথা রাজ্য রাজ্যের গ্রন্থাগার ও জনশিক্ষা দপ্তরের মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী।

সূত্রের খবর, এই জমিয়তে উলেমায়ের 100 বছর পূর্তি উপলক্ষে এদিন মহাজাতি সদনের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আসেন এই সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী। আর সেখানে কেন্দ্রের মোদি সরকারের এই তিন তালাক বিরোধী আইন প্রসঙ্গে মুখ খোলেন তিনি।

এদিন তিনি বলেন, “তাৎক্ষণিক তিন তালাক বা শুধু তালাক – নারী সুরক্ষার জন্যই এই তালাক প্রথা ব্যবহৃত হয়। এই কারণে অমুসলিম মা বোনেরা যতটা অত্যাচারের শিকার হন, ততটা অত্যাচারের শিকার হন না মুসলিম ধর্মাবলম্বী মা-বোনেরা। তাই এই তিন তালাক প্রথা ছিল, আছে এবং থাকবে।”

বিশেষজ্ঞদের মতে, লোকসভায় তিন তালাক বিল পাস হলেও সংখ্যাগরিষ্ঠতা না থাকায় ও বিরোধীদের আপত্তিতে রাজ্যসভায় সেই বিল পাশ করতে পারেনি মোদি সরকার। আর বিজেপির সেই বিলের বিরোধিতা করে এদিন সংগঠনের সভায় গর্জন ছাড়লেন রাজ্যের মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরীও।

 

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিকে এদিনের এই সভা থেকে বিজেপির রাম মন্দিরের দেওয়া প্রতিশ্রুতি নিয়েও গেরুয়া শিবিরের উদ্দেশ্যে কটাক্ষ ছুড়ে দেন সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী।

প্রসঙ্গত, 2014 সালে ক্ষমতায় আসার আগে দেশে রাম মন্দির তৈরি হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল বিজেপি। কিন্তু পাঁচ বছরের মেয়াদ শেষ হতে চললেও এখনও পর্যন্ত সেই রাম মন্দির স্থাপন করতে পারেনি তাঁরা। যা নিয়ে বিজেপির বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছে বিভিন্ন হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলো।

এদিন এই প্রসঙ্গে সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী বলেন, “রামমন্দির হল বিজেপির পুরনো ক্যাসেট। ভোট এলেই এই ক্যাসেটকে বাজানো হয়। কেননা বিজেপি যদি এই ক্যাসেট বাজানো বন্ধ করে দেয়, তাহলে ওদের হিন্দুত্ববাদের ইস্যুগুলোই তো থাকবে না।” এদিকে এদিনের সভায় ভারতকে ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলার আহ্বান জানান রাজ্যের এই হেভিওয়েট মন্ত্রী।

তিনি বলেন, “এই দেশ না হিন্দুরাষ্ট্র, না পাকিস্তান হবে। ধর্মনিরপেক্ষ ভারত তাঁর নিজস্ব সত্তাকে ধরে রাখবে।” রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, প্রায় সবসময়ই ধর্মনিরপেক্ষতার খাতিরে রাজনীতি করার পক্ষে সওয়াল করেছে তৃণমূল কংগ্রেস।

আর তাই তো সেই তৃণমূলেরই হেভিওয়েট মন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী নিজের জমিয়তে উলেমায়ে হিন্দের সভাতে গিয়েও সেই ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র হিসেবেই ভারতকে গড়ে তোলার কথা বলে গেরুয়া শিবিরের ওপর চাপ সৃষ্টি করল বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!