এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > শুভেন্দু অধিকারীর প্রচেষ্টায় প্রাণে বাঁচল পনের বছরের কিশোর

শুভেন্দু অধিকারীর প্রচেষ্টায় প্রাণে বাঁচল পনের বছরের কিশোর

সবসময়ই তিনি তাঁর মানবিক মুখের জন্য পরিচিত। আবারো মানবিক হয়ে উঠলেন রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী। ফলে প্রাণে বাঁচল বছর পনেরোর ফুটবলার প্রীতম বিশ্বাস। বারাসতের প্রতিশ্রুতিমান ফুটবলার প্রীতম ফুটবল খেলতে গিয়ে আরেকজনের সঙ্গে সংঘর্ষে মাথায় গুরুতর আঘাত পান। প্রথমে চিকিৎসার জন্য স্থানীয় বারাসত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও, অবস্থা গুরুতর হওয়ায় কলকাতায় রেফার করা হয় তাকে।
বারাসত থেকে প্রথমে প্রীতমকে নিয়ে যাওয়া হয় মেডিক্যাল কলেজে, কিন্তু সেখান থেকে পাঠানো হয় এনআরএস-এ। সেখান থেকে চিকিৎসা না পেয়ে নিয়ে যাওয়া হয় এসএসকেএম-এ। কিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায় বেড খালি না থাকায় তাঁরা ভর্তি নিতে পারবেন না। এরপর অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা সেনের মাধ্যমে যোগাযোগ করা হয় পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীকে। কিন্তু চিকিৎসারত ডাক্তাররা তাঁর সঙ্গে প্রাথমিক ভাবে কথা বলতে চাননি বলে অভিযোগ। শুভেন্দু বাবু তখন বলেন, ভর্তি নেবেন না লিখে দিন! এতেই কাজ হয়, প্রীতমকে তড়িঘড়ি ভর্তি করা হয় রাত দুটোর সময়, তারপর র সাড়ে চারটের সময় কিশোর ফুটবলার প্রীতম বিশ্বাসের সফল অস্ত্রোপচার হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিত্‍সকরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!