এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > এবার তৃণমূলের সাথে হাত মেলালো শিবসেনা, জেনে নিন

এবার তৃণমূলের সাথে হাত মেলালো শিবসেনা, জেনে নিন

Priyo Bandhu Media


 

সম্প্রতি মহারাষ্ট্রে বিধানসভা নির্বাচন ফলাফলের পর বিজেপি-শিবসেনা জোট সরকার গড়বে বলেই ধারণা করা হয়েছিল। কিন্তু সকলের সেই ধারণাকে মিথ্যে করে দিয়ে সরকার গড়তে বিজেপিকে মন্ত্রিত্বের ফিফটি-ফিফটি ফর্মুলা দিয়েছিল শিবসেনা। কিন্তু তাতে রাজি ছিল না গেরুয়া শিবির। যার পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপির জোটসঙ্গী হিসেবে বেরিয়ে আসার কথা শোনা গিয়েছিল সেই শিবসেনার গলায়।

শুধু তাই নয়, মহারাষ্ট্রে সরকার গড়তে কংগ্রেসের সঙ্গে আলোচনা চালাতেও দেখা গিয়েছিল তাদের। আর এই পরিস্থিতিতে সোমবার শীতকালীন অধিবেশনে বিজেপি শিবসেনার জন্য বিরোধী বেঞ্চে জায়গা রেখে দেবে বলে মনে করেছিল একাংশ। সেই মত এদিন শীতকালীন অধিবেশনে চালু হওয়ার আগেই নানা মহলে প্রবল গুঞ্জন সৃষ্টি হয়েছিল। আর আশ্চর্যজনকভাবে সোমবার শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিনে প্রবল বিজেপি বিরোধী দল হিসেবে পরিচিত পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদদের সাথে হাত মেলাতে দেখা গেল শিবসেনা সাংসদদের।

জানা যায়, এদিন বিজনেস অ্যাডভাইজারি কমিটির বৈঠকে দেশের অর্থনৈতিক দুরবস্থা, এয়ার ইন্ডিয়া সহ একাধিক রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার বিলগ্নিকরণ নিয়ে রাজ্যসভায় তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে আলোচনার দাবি জানানো হয়। আর সেই নোটিশেই স্বাক্ষর করেন শিবসেনার সঞ্জয় রাউত। আর শিবসেনার পক্ষ থেকে শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিনেই বিজেপির বিরোধিতায় তৃণমূল কংগ্রেসের সাথে হাতে হাত মেলানোর ঘটনা এবার রাজনৈতিক মহলে প্রবল জল্পনার সৃষ্টি করেছে।


WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

 

তবে শুধু শিবসেনা নয়, এদিন এনসিপি, সমাজবাদী পার্টি, সিপিএম, সিপিআইএম, আপ, ডিএমকে এবং আরজেডি সাংসদরাও এই নোটিশে সই করে সমর্থন জানান। তবে একই ইস্যুতে পৃথক নোটিশে দেখা যায় কংগ্রেস পার্টিকে। যার পরিপ্রেক্ষিতে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মহারাষ্ট্রের বিজেপির সঙ্গে সম্পর্কের দূরত্ব তৈরি হওয়ার পর এবার শিবসেনা শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিনেই বিজেপিকে মাস্টারস্ট্রোক দিয়ে চাপে রাখতে চাইল। আর তাইতো পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল বিজেপির বিরোধী বলে পরিচিত তৃণমূল কংগ্রেসের সমর্থন দিয়ে তারা গেরুয়া শিবিরকে কঠিন বার্তা দিল বলে বিশ্লেষকদের।

অনেকে বলছেন, লোকসভা নির্বাচনের আগে বিজেপিকে দমাতে সমস্ত বিজেপি বিরোধী দলগুলোকে নিয়ে মহাজোটের ডাক দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে সেই সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সেই আশা পূর্ণ হয়নি। তবে এবার বিজেপির শরিক দল হিসেবে থাকা এতদিনের শিবসেনা বিজেপির সঙ্গে সমস্ত সম্পর্ক চুকিয়ে যেভাবে সংসদের শীতকালীন অধিবেশনের প্রথম দিনেই তৃণমূলের সাথে হাতে হাতে হাত মিলিয়ে বিজেপিকে চাপে ফেলল, তাতে ভবিষ্যতে তৃণমূলের সেই মহাজোটের স্বপ্ন পূরণ হয় না, এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!