এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > দুর্ঘটনার পরেই সামনে এল বড় তথ্য, সাঁতরাগাছিকে টার্মিনাল স্টেশন করতে 400 কোটির কাজ চলছে!

দুর্ঘটনার পরেই সামনে এল বড় তথ্য, সাঁতরাগাছিকে টার্মিনাল স্টেশন করতে 400 কোটির কাজ চলছে!

সাঁতরাগাছি রেলওয়ে স্টেশন। যেখানে প্রায় প্রতিনিয়তই অসংখ্য যাত্রী ট্রেন ধরতে আসেন। কিন্তু গত মঙ্গলবারই এই সাতরাগাছি স্টেশনের ফুট ওভারব্রিজ দুর্ঘটনায় পদপিষ্ট হন অসংখ্য মানুষ। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই এবার রেলের ভূমিকায় উঠতে শুরু করেছে বিস্তর প্রশ্ন। যাত্রীদের মতে, গুরুত্বপূর্ণ এই স্টেশনের পরিকাঠামো সম্প্রসারণ অত্যন্ত জরুরী। কিন্তু রেল তাতে উদাসীন এবং অমনোযোগী। একই অভিযোগ করে গত মঙ্গলবার সেই ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রাক্তন রেলমন্ত্রী দুর্ঘটনার পরেই সামনে এল বড় তথ্য, সাঁতরাগাছিকে টার্মিনাল স্টেশন করতে 400 কোটির কাজ চলছে!

সাঁতরাগাছি রেলওয়ে স্টেশন। যেখানে প্রায় প্রতিনিয়তই অসংখ্য যাত্রী ট্রেন ধরতে আসেন। কিন্তু গত মঙ্গলবারই এই সাতরাগাছি স্টেশনের ফুট ওভারব্রিজ দুর্ঘটনায় পদপিষ্ট হন অসংখ্য মানুষ। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই এবার রেলের ভূমিকায় উঠতে শুরু করেছে বিস্তর প্রশ্ন। যাত্রীদের মতে, গুরুত্বপূর্ণ এই স্টেশনের পরিকাঠামো সম্প্রসারণ অত্যন্ত জরুরী। কিন্তু রেল তাতে উদাসীন এবং অমনোযোগী। একই অভিযোগ করে গত মঙ্গলবার সেই ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রাক্তন রেলমন্ত্রী তথা রাজ্যের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও সেই রেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধেই তোপ দেগে ছিলেন।

মুখ্যমন্ত্রীর প্রশ্ন, কোটি কোটি টাকা বাজেট থাকা সত্ত্বেও একটি ফুট ওভারব্রিজ চওড়া করতে এবং নতুন করে একটি ফুটওভার ব্রিজ সাবওয়ে কবে তৈরি করতে কেন এত ঢিলেমি দেখাচ্ছে রেল? আর তাই এবারে সকলের চাপের কাছে পিছু হঠে অবশেষে এই সাঁতরাগাছি স্টেশন কে টার্মিনাল স্টেশন হিসেবে পরিণত করার সিদ্ধান্ত নিল দক্ষিণ পূর্ব রেল কর্তৃপক্ষ।

সূত্রের খবর, একটি আধুনিক টার্মিনাল স্টেশনে যে সকল পরিকাঠামো প্রয়োজন তার সবকিছুই তৈরি করা হবে এই সাঁতরাগাছিতে। জানা গেছে, 379.72 কোটি টাকায় তৈরি এই কাজে প্রথমে 12 মিটার চওড়া এবং 161 মিটার লম্বা দুটি ফুটওভার ব্রিজ, 4 এবং 5 নম্বর প্ল্যাটফর্মের মাঝে সাবওয়ে এবং প্লাটফর্মগুলি সংস্কার করা হবে। আর দ্বিতীয় পর্বে কোনা এক্সপ্রেসওয়ে পর্যন্ত এলিভেটেড র্যাম্প এবং নতুন একটি প্ল্যাটফর্ম তৈরির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে যাত্রীদের সুবিধার্থে এখন নতুন ওভার ব্রিজের কাজ দ্রুত শেষ করতে চায় রেল কর্তৃপক্ষ।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিন এই প্রসঙ্গে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক সঞ্জয় ঘোষ বলেন, “আমাদের কাছে যাত্রী সুরক্ষা এবং স্বাচ্ছন্দ সবথেকে বেশি গুরুত্বের। এসব নিয়ে কোনো আপোস করা হবে না।” কিন্তু সঞ্জয়বাবু এই ব্যাপারে অভয় দিলেও যেভাবে অতীতে কাজ শুরু হওয়া রেল প্রকল্প গুলি অর্থের কারণে আটকে গেছে সেই ট্র্যাডিশন যদি এই সাঁতরাগাছিতেও বজায় থাকে তাহলে ফুটওভার ব্রিজের প্রকল্পও চলে যাবে বিশবাঁও জলে। আর তাই এই ওভারব্রিজ প্রকল্পের কথা শুনে খুশি হলেও কাজ না শেষ পর্যন্ত আশঙ্কায় দিন গুনছেন যাত্রীরাও। তথা রাজ্যের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও সেই রেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধেই তোপ দেগে ছিলেন। মুখ্যমন্ত্রীর প্রশ্ন, কোটি কোটি টাকা বাজেট থাকা সত্ত্বেও একটি ফুট ওভারব্রিজ চওড়া করতে এবং নতুন করে একটি ফুটওভার ব্রিজ সাবওয়ে কবে তৈরি করতে কেন এত ঢিলেমি দেখাচ্ছে রেল? আর তাই এবারে সকলের চাপের কাছে পিছু হঠে অবশেষে এই সাঁতরাগাছি স্টেশন কে টার্মিনাল স্টেশন হিসেবে পরিণত করার সিদ্ধান্ত নিল দক্ষিণ পূর্ব রেল কর্তৃপক্ষ। সূত্রের খবর, একটি আধুনিক টার্মিনাল স্টেশনে যে সকল পরিকাঠামো প্রয়োজন তার সবকিছুই তৈরি করা হবে এই সাঁতরাগাছিতে।

জানা গেছে, 379.72 কোটি টাকায় তৈরি এই কাজে প্রথমে 12 মিটার চওড়া এবং 161 মিটার লম্বা দুটি ফুটওভার ব্রিজ, 4 এবং 5 নম্বর প্ল্যাটফর্মের মাঝে সাবওয়ে এবং প্লাটফর্মগুলি সংস্কার করা হবে। আর দ্বিতীয় পর্বে কোনা এক্সপ্রেসওয়ে পর্যন্ত এলিভেটেড র্যাম্প এবং নতুন একটি প্ল্যাটফর্ম তৈরির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে যাত্রীদের সুবিধার্থে এখন নতুন ওভার ব্রিজের কাজ দ্রুত শেষ করতে চায় রেল কর্তৃপক্ষ। এদিন এই প্রসঙ্গে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক সঞ্জয় ঘোষ বলেন, “আমাদের কাছে যাত্রী সুরক্ষা এবং স্বাচ্ছন্দ সবথেকে বেশি গুরুত্বের। এসব নিয়ে কোনো আপোস করা হবে না।” কিন্তু সঞ্জয়বাবু এই ব্যাপারে অভয় দিলেও যেভাবে অতীতে কাজ শুরু হওয়া রেল প্রকল্প গুলি অর্থের কারণে আটকে গেছে সেই ট্র্যাডিশন যদি এই সাঁতরাগাছিতেও বজায় থাকে তাহলে ফুটওভার ব্রিজের প্রকল্পও চলে যাবে বিশবাঁও জলে। আর তাই এই ওভারব্রিজ প্রকল্পের কথা শুনে খুশি হলেও কাজ না শেষ পর্যন্ত আশঙ্কায় দিন গুনছেন যাত্রীরাও।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!