এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > সারদা মামলায় গতিবিধি কোন দিকে এগোচ্ছে, চাপ বাড়ছে ক্রমশ প্রভাবশালীদের? জল্পনা তুঙ্গে

সারদা মামলায় গতিবিধি কোন দিকে এগোচ্ছে, চাপ বাড়ছে ক্রমশ প্রভাবশালীদের? জল্পনা তুঙ্গে

Priyo Bandhu Media

সারদা কাণ্ড। বাংলার শত শত হতদরিদ্র মানুষের জমানো অর্থ আত্মসাৎ করে নেওয়ার ঘটনায় একসময় তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয় বাংলায়। কারা কি উদ্দেশ্যে এই ঘটনা ঘটাল, তা নিয়ে তোলপাড় হয়ে ওঠে রাজ্য রাজনীতিও।এমনকি বাংলার বর্তমান শাসক দল তৃণমূল এই সারদা চিটফান্ড কেলেঙ্কারির জেরে তীব্র অস্বস্তিতে পড়ে।

রাজ্যের নেতা মন্ত্রী থেকে শুরু করে সাংসদ সহ অনেক হেভিওয়েটদেরই শ্রীঘরে থাকতে হয়। পরে অবশ্য তারা ছাড়া পেয়ে যান। কিন্তু তারপর মাঝে এই সারদা মামলা নিয়ে ঢিলেমি পড়ে যাওয়ায় বেশ কিছুদিন তা চাপা ছিল। কিন্তু লোকসভা নির্বাচনের পর ফের এই সারদা কাণ্ডে নড়েচড়ে বসেছে সিবিআই।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

তৎকালীন তদন্তকারী অফিসারদের একের পর এক ডেকে এখন জেরা করছে কেন্দ্রের এই তদন্তকারী সংস্থা। সম্প্রতি সারদা মামলায় তৎকালীন বিধাননগরের গোয়েন্দা প্রধান অর্ণব ঘোষকে জেরা করার পর মঙ্গলবার সারদাকাণ্ডের প্রথম তদন্তকারী অফিসার প্রভাকর নাথকে জিজ্ঞাসাবাদ করে সিবিআই। বেশ কয়েক দফায় তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

আর এবার সোমবারের পর মঙ্গলবার কেন্দ্রের তদন্তকারী সংস্থার জেরার মুখে পড়লেন সিটের সদস্য দিলীপ হাজরা। সিবিআইয়ের সূত্র মারফত জানা গেছে, গত সোমবার সকাল দশটা নাগাদ সল্টলেকের সিজিও কম্প্লেক্স সিবিআই দপ্তরে দিলীপ হাজরা হাজিরা দিলে তাকে প্রায় চার ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। কিন্তু সেখানে তার কাছ থেকে সঠিক উত্তর না মেলায় মঙ্গলবার তাকে ফের ডেকে পাঠানো হয়েছিল।

বিশেষজ্ঞদের মতে, লোকসভা নির্বাচনের পর্ব মিটতে না মিটতেই সারদা কাণ্ড নিয়ে কেন্দ্রের তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই তদবির শুরু করলে অনেক হেভিওয়েটরাই এবার বিপাকে পড়তে পারেন। কেননা এই সারদা-কাণ্ডের সঙ্গে রাজ্যের শাসক দলের অনেক নেতা, মন্ত্রীর নাম জড়িয়ে আছে বলে দীর্ঘদিন ধরেই অভিযোগ করতে দেখা গেছে বিরোধীদের।

ফলে সেই দিক থেকে কেন্দ্রের তদন্তকারী সংস্থা যদি ঠিক পথে তদন্তকে এগিয়ে নিয়ে যায়, তাহলে অনেক রাঘববোয়ালই এবার জালে ধরা পড়তে পারে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞদের একাংশ। সব মিলিয়ে সারদা মামলার গতিবিধি ঠিক কোন দিকে এগোয়, সেদিকেই নজর সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!