এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > শরিয়া আদালত নিয়ে বড়সড় সিদ্ধান্ত ঘোষণা আইন কমিশনের

শরিয়া আদালত নিয়ে বড়সড় সিদ্ধান্ত ঘোষণা আইন কমিশনের

শরিয়া আদালত বাতিল হচ্ছে না এমনটাই স্পষ্ট জানিয়ে দিল আইন কমিশন। বেশ কিছু দিন ধরেই ‘এক দেশ এক আইন’ দাবী তুলে শরিয়া আদালত বাতিলের জন্য আওয়াজ তুলেছিল বেশ কয়েকটি হিন্দুত্ববাদী সংগঠন। সংসদে তিন তালাক প্রসঙ্গ উঠতেই শরিয়া আদালতের বিরোধীতায় চড়া হয়েছিলেন তাঁরা। এ নিয়ে জল ঘোলাও হয়েছিল ভালোই। কিন্তু হাজার বিরোধীতা উপেক্ষা করে এদিন আইন কমিশন জানিয়ে দিল অভিন্ন দেওয়ানি বিধি এখনই বাধ্যতামূলক হচ্ছে না।

১৮৫ পাতার একটি বিবৃতি প্রকাশ করে আইন কমিশনের তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ধর্ম নিরপেক্ষ দেশে বহুত্ববাদকে বাদ দেওয়া কোনোভাবেই সম্ভব নয়। ‘অখন্ডতা’ অর্জন করার জন্য কোনোভাবেই ভারতবর্ষের সাংস্কৃতিক বহুত্ববাদকে বর্জন করা যায় না। আর এটা করা হলে দেশের সংহতি রক্ষা ব্যাহত হবে যা দেশের জন্য বিপজ্জনক। আর অখন্ডতার সংজ্ঞা এটা নয় যে গোটা দেশেই একই রকম আইন চালু থাকতে হবে।

এই বক্তব্যের নিরিখে সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি বিএস চৌহানের নেতৃত্বাধীন কমিশন জানিয়ে দিলেন,এই মুহূর্তে এক দেশ এক আইনব্যবস্থা (ইউনিফর্ম সিভিল কোড) চালু করা হচ্ছে না। তবে এসবের মধ্যেও আইন কমিশন স্পষ্টত জানিয়ে দিয়েছে, ধর্ম নিরপেক্ষতা তথা বহুত্ববাদকে সামনে রেখে কখনোই ধর্মীয় বা প্রাদেশিক বিভেদকে উস্কানি দেওয়া যাবে না। ‘সব ধর্মের ক্ষেত্রেই বহুগামীতা অপরাধ’- এমনটাই স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে আইন কমিশন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

উল্লেখ্য,সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের মিরাটে বিশ্বের প্রথম হিন্দু আদালত তৈরি করেছে হিন্দু মহাসভা। সেক্ষেত্র প্রশ্ন তৈরি হয়েছে আইনসভা কি হিন্দু আদালতকেও স্বীকৃতি দেবে? না হিন্দু আদালতকে মান্যতা দিচ্ছে না আইন কমিশন। এমনটা স্পষ্ট করে না জানালেও ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছে। এক দেশ এক আইনের নামে সংখ্যাগরিষ্ঠদের পছন্দটা কখনোই গোটা দেশের উপর চাপিয়ে দেওয়ার পক্ষপাতী নয় আইন কমিশন।

Top
error: Content is protected !!