এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > কলেজ এ ছাত্রভর্তী নিয়ে এবার বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন শঙ্কুদেব

কলেজ এ ছাত্রভর্তী নিয়ে এবার বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন শঙ্কুদেব

চলতি শিক্ষাবর্ষে কলেজে শিক্ষার্থী ভর্তি প্রক্রিয়ায় আর্থিক দুর্নীতি কাণ্ডে অভিযুক্ত তৃণমূল কংগ্রেস ছাত্র পরিষদ। এই সময়েই বিস্ফোরক মন্তব্য করে সংবাদ শিরোনামে তৃণমূল কংগ্রেস ছাত্র পরিষদের প্রাক্তন সভাপতি শঙ্কুদেব পণ্ডা। প্রসঙ্গতঃ স্নাতক স্তরে ভর্তি প্রক্রিয়ায় তোলাবাজির অভিযোগ ওঠার পরে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘটনাটি খতিয়ে দেখার জন্যে এবং প্রয়োজনে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার জন্যে পুলিশ কর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন এবং অভিভাবক এবং শিক্ষার্থীর এই আর্থিক লেনদেন পদ্ধতি থেকে দূরে থাকার আর্জি জানিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রীর এই সচেতনতামুলক উদ্যোগকে ‘নগ্ন সাংগঠনিক অপদার্থতা’ বলে টিপ্পনি কাটলেন শঙ্কুদেব পণ্ডা। এদিন তিনি সোস্যাল মিডিয়ায় নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে লিখলেন, ”ক্ষমা করো। তুমি কলেজ গেটে…নগ্ন সাংগঠনিক অপদার্থতা। আমি লজ্জিত।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এ দায় আমারও।” উল্লেখ্য এই শিক্ষাবর্ষে কলেজে শিক্ষার্থী ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হতেই অর্থের বিনিময়ে অযোগ্য শিক্ষার্থীর ভর্তি সহ ছাত্র ইউনিয়ানের নানা দাবি দাওয়া পূরণের জন্যে আর্থিক দাবিকে কেন্দ্র করে বিতর্ক শুরু হয়। এই সময়ে মুখ্যমন্ত্রী সক্রিয় হয়ে ওঠেন। রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী সহ অন্যান্য মন্ত্রীদের তিনি এই দুর্নীতি দমনের কাজে অগ্রণী ভূমিকা করতে নির্দেশ দেন। মুখ্যমন্ত্রী নিজেও আশুতোষ কলেজে কোনো খবর না দিয়েই উপস্থিত হন, ভর্তি প্রক্রিয়া খতিয়ে দেখার জন্যে। ছাত্র সংগঠনের সভানেত্রী জয়া দত্ত গুরুদাস কলেজ, বিদ্যাসাগর কলেজ, প্রফুল্লচন্দ্র কলেজ, সুরেন্দ্রনাথ কলেজ, আনন্দমোহন কলেজের টিএমসিপি ইউনিট ভেঙে দেন। ফলে রাজ্য সরকার ভর্তি প্রক্রিয়ায় পরিবর্তন নিয়ে আসতে বাধ্য হয়। এদিন গোটা ভর্তি প্রক্রিয়া কেই অভিযুক্ত করলেন শঙ্কুদেব পণ্ডা। তাঁর ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে জানা গিয়েছে , তিনি বলেছেন ,পুলিশি অভিযান চালিয়ে ছাত্র সংসদের কর্তৃত্ব ধরে রাখতে চাইলে দল ভুল করবে। এবং তার জন্যে হয়ত ভবিষ্যতেও মাসুল দিতে হতে পারে। ফেসবুকে এদিন তাঁর প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বর্তমান পরিস্থিতির জন্যে শিক্ষার্থীদের থেকে ক্ষমা প্রার্থনাও করেছেন।  জানা যাচ্ছে এই পোস্টের পরে নাকি শঙ্কুদেব পণ্ডার অনুগামীরা তাঁকে দলে ফিরে এসে পুনরায় ছাত্র সংগঠনের পরিচালনার দায়িত্ব নিতে অনুরোধ করেন। পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল হয়ে যাচ্ছে দেখে সরকারের পক্ষ থেকে গোটা ভর্তি প্রক্রিয়াটি অনলাইনেই করার বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছিল। তা সত্ত্বেও এখনও পরিস্থিতি বেশ চাঞ্চল্যকর।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!