এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > ‘ডানা ছাঁটা’ নিয়ে মুখ খুললেন বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচী দত্ত

‘ডানা ছাঁটা’ নিয়ে মুখ খুললেন বিধাননগরের মেয়র সব্যসাচী দত্ত

কয়েকদিন আগেই বিরোধীদের সুরে সুর মিলিয়ে বিধাননগরের মেয়র তথা তৃণমূলের বিধায়ক সব্যসাচী দত্ত ডিএ নিয়ে নিজের দলের বিরুদ্ধেই তীব্র ক্ষোভ উগরে দেন প্রকাশ্য সভা থেকে। তারপর থেকেই রাজনৈতিক গুঞ্জন বাড়ছিল, এবার কি তাহলে দলের সঙ্গে ‘দূরত্ত্ব’ তৈরি হচ্ছে একদা মুকুল রায়ের অনুগামী বলে পরিচিত সব্যসাচী দত্তের। গুঞ্জন আরো তীব্র হয় যখন মুকুল রায় স্বয়ং সাব্যসাচীবাবুকে সরাসরি সমর্থন করে বসেন। তারপর গতকাল সূত্র মারফত খবর মেলে কদিন আগেই দলের মধ্যেই সাব্যসাচীবাবুর বিরোধী বলে পরিচিতদের নিয়ে বিকাশভবনে ‘গোপন’ বৈঠক করেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী তথা দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এই ‘বিরোধীদের’ মধ্যে ছিলেন স্থানীয় বিধায়ক সুজিত বসু, সাংসদ কাকলি ঘোষ দস্তিদার, ডেপুটি মেয়র তাপস চট্টোপাধ্যায়, মেয়র পারিষদ রাজেশ চিরিমার, সুধীর সাহা এবং রহিমা বিবি।
আর এই ‘গোপন’ বৈঠকের পরেই তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পরে রাজনৈতিক মহলে। প্রকাশ্যে দলকে বিড়ম্বনায় ফেলা ও একদা মুকুল রায়ের অনুগামী হওয়ায় এবার কি দল তাঁর ‘ডানা ছাঁটতে’ চলেছে? সাব্যসাচীবাবু অবশ্য পুরো বিষয়টিকে উড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, আমার কিছু জানা নেই, বিধায়ক (সুজিত বসু) তো বিধাননগর মেলার উদ্বোধনে এসেছিলেন। সম্প্রতি মত্‍স্য দফতরের অনুষ্ঠানেও দেখা হয়েছিল। কাজেই সংবাদমাধ্যমের কাছ থেকে শুনে কোনও মন্তব্য করব না। আর তৃণমূল ভবনে যে কেউ যেতে পারেন। কিন্তু এরপর উপস্থিত সাংবাদিকরা এরপর বিকাশভবনের বৈঠকের কথা উল্লেখ করলে তিনি জানান, তাহলে শিক্ষা সংক্রান্ত কোনও আলোচনা ছিল! কিন্তু দলের মধ্যেই তাঁর ‘বিরোধী মহল’ বলে পরিচিত সকলের সঙ্গে দলের মহাসচিব বৈঠক করলেন অথচ তিনি কোনো খবরই পেলেন না, তারপরেও তিনি পুরো ব্যাপারটা নিয়ে ‘নির্লিপ্ত’, জল্পনা কিন্তু এতো সহজে থামবে না বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!