এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > সব্যসাচীর পর দলের অস্বস্তি বাড়িয়ে নিজের পদ থেকে ইস্তফা দিলেন এই হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা

সব্যসাচীর পর দলের অস্বস্তি বাড়িয়ে নিজের পদ থেকে ইস্তফা দিলেন এই হেভিওয়েট তৃণমূল নেতা

লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের তৃণমূলের খারাপ ফলাফল হওয়ার পরই তৃণমূল ছেড়ে একাধিক জনপ্রতিনিধি গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাতে শুরু করেন। যাতে কিছুটা হলেও অস্বস্তিতে পড়ে ঘাসফুল শিবির। কিছুদিন আগেই দলের বিরুদ্ধে পা বাড়িয়ে একাধিক মন্তব্য করে বিতর্কে শিরোনামে চলে এসেছিলেন বিধাননগর পৌরসভার সদ্য প্রাক্তন মেয়র সব্যসাচী দত্ত।

আর তারপরই তাকে মেয়র পদ থেকে সরানোর জন্য তৃণমূলের পক্ষ থেকে তৎপর হয়ে ওঠার প্রক্রিয়া দেখা যায়। বিধাননগর পৌরসভার একাধিক কাউন্সিলর সেই সব্যসাচী দত্তর বিরুদ্ধে অনাস্থা আনলে এরপরই নিজের মেয়র পদ থেকে ইস্তফা দিয়ে দেন সেই সব্যসাচী দত্ত। যাকে ঘিরে রাজ্যজুড়ে ব্যাপক আলোড়ন পড়তে শুরু করে। আর এবার ব্যারাকপুর পুর পারিষদের পদ থেকে ইস্তফা দিলেন তৃণমূলের শুভ্রকান্তি বন্দ্যোপাধ্যায়।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

সূত্রের খবর, শুক্রবার বিকেলে ব্যারাকপুর পৌরসভার আলো বিভাগের পুর পারিষদ শুভ্রকান্তি বন্দ্যোপাধ্যায় পুরপ্রধান উত্তম দাসের কাছে তাঁর পদত্যাগ পত্র জমা দেন। কিন্তু কেন হঠাৎ শুভ্রকান্তিবাবু তার পদ থেকে ইস্তফা দিলেন, এখন তা নিয়েই শুরু হয়েছে জল্পনা। জানা গেছে, ইস্তফাপত্রে তিনি তাঁর পদ থেকে পদত্যাগের জন্য চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ তুলেছেন।

যেখানে তিনি নামেই পুর পারিষদ, কিন্তু তার কোনো কাজ করার ক্ষমতা নেই এবং পুরপ্রধান ঠিকমতো নজর না দেওয়াতেই তিনি কাজ করতে পারছেন না বলেও অভিযোগ করেছেন এই শুভ্রকান্তি বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও বা চিঠিতে যাই লেখা থাক না কেন, প্রকাশ্যে ব্যক্তিগত কারণেই তিনি তার এই ইস্তফা দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন সেই ব্যারাকপুর পৌরসভার 8 নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শুভ্রকান্তি বন্দ্যোপাধ্যায়।

অন্যদিকে পুর পারিষদের ইস্তফা দেওয়ার চিঠি তিনি পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন ব্যারাকপুর পৌরসভার চেয়ারম্যান উত্তম দাস। এদিকে এইভাবে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ তুলে পুর পারিষদের পদ থেকে দলের কাউন্সিলারের ইস্তফা ব্যাপক চিন্তায় ফেলেছে তৃণমূলকে। আর তাই তড়িঘড়ি এই ব্যাপারে বৈঠকের ডাক দিয়েছে জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব। সব মিলিয়ে পুর পারিষদের পদ থেকে দলের কাউন্সিলারের ইস্তফা এখন প্রবল মাত্রায় শাসক দলকে ভাবাতে শুরু করেছে।

Top
error: Content is protected !!