এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > পরিবর্তন না প্রত্যাবর্তন? উত্তর খুঁজতে সবংয়ের দিকে তাকিয়ে বঙ্গবাসী

পরিবর্তন না প্রত্যাবর্তন? উত্তর খুঁজতে সবংয়ের দিকে তাকিয়ে বঙ্গবাসী

সবং-এর ভোট কি এবার শুধুই ভোটগ্রহণ নাকি প্রেস্টিজ ফাইটও?

সবং-এর ভোটে এবার সত্যিই প্রেস্টিজ ফাইট হতে চলেছে তৃণমূল এবং বিজেপির মধ্যে। এখানে তৃণমূলের হয়ে এবার ভোটে নামছেন কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে সদ্য আগত মানস ভূঁইয়ার স্ত্রী গীতারানী ভূঁইয়া। ১৯৮২ সাল থেকে ২০১৬ পর্যন্ত সবংকে নিজের দখলে রেখেছিলেন মানস ভূঁইয়া। তাই এবারের সবং বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে তৃণমূল এবং বিজেপির অন্তরা ভট্টাচার্যের লড়াই সত্যিই এক প্রেস্টিজ ফাইট হতে চলেছে। আগেরবার মানস ভুঁইঞা প্রায় ২ লক্ষ ৪৫ হাজার ভোটারের এই এলাকায় জিতেছিলেন ৪৯ হাজার ১৬৭ ভোটে।
এর মধ্যে সবংয়ের ১৩টি অঞ্চলের ২৫৪ ও পিংলার তিনটি অঞ্চলের ৫২টি ভোট গ্রহণ কেন্দ্র আছে। তার প্রায় প্রতিটি কেন্দ্রেই নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবে রাজ্য সশস্ত্র পুলিশ এবং অন্যান্য স্পর্শকাতর কেন্দ্রগুলোতে থাকবে চারজন করে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানও। ‘ওয়েব কাস্টিং’ ও সিসি ক্যামেরার ব্যবস্থা করা হয়েছে বুথগুলিতে। আবার ভোটগ্রহণ কেন্দ্রে প্রতিটি বুথে ইভিএম ও ভোটার ভেরিফায়েড পেপার অডিট ট্রেইল বা ভিভিপ্যাট যন্ত্রও ব্যবহার করা হবে বলে জানা গিয়েছে। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক মহলের ধারণা, ভিভিপ্যাট ব্যবহার হলেও নির্বাচন অর্থাৎ এই মান রক্ষার লড়াই কতটা অবাধ ও শান্তিপূর্ণ হবে তা নিয়ে অবশ্য সংশয়ে বিরোধীরা। এবারের এই নির্বাচনে কংগ্রেস এবং সিপিএমের তরফ থেকেও প্রার্থী দেয়া হয়েছে। সবংয়ের উপনির্বাচনে কংগ্রেসের প্রার্থী চিরঞ্জীব ভৌমিক। সিপিএমের প্রার্থী রীতা মণ্ডল জানা মন্ডল। এবার এই উপ-নির্বাচনের ২৪ ডিসেম্বরের ফলাফলের দিকে তাকিয়ে রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!