এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > এক রাতে শাসকদলের দু-দুটি নির্বাচনী কার্যালয়ে আগুন, বাড়ছে রহস্য

এক রাতে শাসকদলের দু-দুটি নির্বাচনী কার্যালয়ে আগুন, বাড়ছে রহস্য

দক্ষিণ দিনাজপুর এর অমৃতখন্ড পঞ্চায়েত এলাকায় আবার চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হল শাসকদলের দু দুটি নির্বাচনী কার্যালয়ে আগুন লাগানোর ঘটনায়।অভিযোগের তীর বিরোধীদের দিকে।
খবর,শনিবার সকালে স্থানীয় লোকেরা লক্ষ্য করে যে মালাঞ্চা বাজারে অবস্থিত তৃণমূলের অস্থায়ী কার্যালয়ের একাংশ আগুনে পুড়ে গিয়েছে।সেই সাথে নষ্ট হয়েছে টিএমসির দলীয় পতাকা সহ মুখ্যমন্ত্রীর ফেস্টুন,এছাড়াও আরো অনেক ছবি। পুলিশ ঘটনাস্থলে পড়ে থাকা দুটো কেরোসিনের বোতলও উদ্ধার করে।প্রাথমিকভাবে তদন্ত করে পুলিশ জানায় যে,ওই স্থানে আগুন ধরানো হয়েছে কেরোসিন তেল ঢেলেই।একইভাবে শাসকদলের দলীয় পতাকা,ব্যানার পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে কামারপাড়ায় অবস্থিত তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এলাকার প্রধান তথা তৃনমূল নেত্রী জয়ন্তী সরকার জানান, নির্বাচনী প্রচারের সুবিধার্থে অমৃতখন্ড, শতখন্ড ও শংকরপুর তিন বুথের নির্বাচনী কার্যালয় মালঞ্চা বাজারে তৈরি করা হয়েছে। শুক্রবার রাত দশটা পর্যন্ত তাঁরা সকলে মিলে সেখানে নির্বাচন সংক্রান্ত আলাপ আলোচনা করেছেন। শনিবার সকালে কর্মীদের কাছ থেকে খবর পেয়ে তিনি ছুটে গিয়ে দেখেন যে প্যান্ডেলের কাপড়ে তৈরি সেই কার্যালয়টি কেউ কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে দিয়েছে।
পাশাপাশি কামারপাড়ায় অবস্থিত কার্যালয়েও একই ভাবে দলীয় পতাকা ব্যানার পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে। আরএসপি ও বিজেপি’র লোকেরা এই ঘটনাগুলির সঙ্গে জড়িত বলে তিনি অভিযোগ করেন।
এদিকে বিজেপির জেলা সভাপতি শুভেন্দু সরকার জানান, এই ধরণের নোংরা রাজনীতির সঙ্গে কখনই তাঁদের দলের কেউ জড়িত থাকেন না। তাঁর পাল্টা অভিযোগ, আদালতের নির্দেশে মুখ পুড়ে যাওয়ায় আর কোন রাস্তা না পেয়ে নিজেরাই নিজেদের ঘরে আগুন লাগিয়ে মানুষকে ভুল বোঝানোর চেষ্টা করছে তৃণমূল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!