এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > চাল বিলিকে কেন্দ্র করে শাসকদলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ!

চাল বিলিকে কেন্দ্র করে শাসকদলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ!


করোনা মোকাবিলায় দলমত নির্বিশেষে এগিয়ে এসেছেন সকলেই। লকডাউনের ফলে এমনিতেই সাধারন মানুষ গৃহবন্দী। তবে দরিদ্র মানুষদের অন্নের জোগান দিতে যাতে কোনো অসুবিধা না হয়, তার জন্য বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে নেওয়া হচ্ছে কর্মসূচি। সকলেই চেষ্টা করছেন, সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে যাওয়ার। তবে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বালুরঘাটে সেই চেষ্টা করেই বিড়ম্বনাকে আরও বাড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠল।

সূত্রের খবর, এদিন বালুরঘাটের কুড়ি নম্বর ওয়ার্ডের রবীন্দ্রনগর এলাকায় চাল বিলিকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। জানা যায়, রবিবার তৃণমূলের তরফে এই ওয়ার্ডে চাল বিক্রি করার সময় স্থানীয় বাসিন্দাদের পক্ষ থেকে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তোলা হয়। আর সাধারণ মানুষ এই ঘটনার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করলে খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে গেলে বেশ কয়েকজনকে আটক করে। এদিকে এরপরই সাধারণ বাসিন্দাদের প্রতিনিধি হিসেবে পুলিশ কয়েকজনকে আটক করায় তাদের ছাড়াবার জন্য রীতিমতো বালুরঘাট থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান একাংশ।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

আর যখন লকডাউন চলছে, ঠিক তখনই সাধারণ মানুষের একত্রে থেকে এই বিক্ষোভ রীতিমতো অস্বস্তিতে ফেলে দেয় প্রশাসনকে। আর করোনার ভয়াবহতার মাঝে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে এভাবে চাল বিলিতে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ জনসাধারনের পক্ষ থেকে ওঠায় রীতিমতো চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায়।

এদিন এই প্রসঙ্গে তৃণমূলের বিরুদ্ধে সরব হয়ে বালুরঘাটের বিজেপি সাংসদ সুকান্ত মজুমদার বলেন, “তৃণমূল অন্যায়ের রাজনীতি করছে।” অন্যদিকে তাদের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা তৃণমূলের সভানেত্রী অর্পিতা ঘোষ। তিনি বলেন, “আমরা চাল, আলু বিলি করছি, তা বিরোধীদের সহ্য হচ্ছে না। তাই নোংরা রাজনীতি করতে তারা নেমে পড়েছে।”

বিশেষজ্ঞরা বলছেন যখন মানুষের দুর্দিন তখন তৃণমূলের পক্ষ থেকে মানুষকে সহযোগিতা করার এই উদ্যোগকে সকলেই স্বাগত জানাচ্ছেন কিন্তু কেন তৃণমূল কংগ্রেস এক্ষেত্রে পক্ষপাতিত্বের ঘটনা ঘটাতে গেল। যেভাবে চাল বিলিতেও তাদের বিরুদ্ধে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুললেন সাধারন মানুষ, তাতে তৃণমূল কংগ্রেস দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় এই ঘটনায় অনেকটাই ব্যাকফুটে চলে গেল বলে দাবি রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!