এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > দল কি দূরত্ব বাড়াচ্ছে রূপার সঙ্গে উঠছে প্রশ্ন

দল কি দূরত্ব বাড়াচ্ছে রূপার সঙ্গে উঠছে প্রশ্ন

সোমবার সকালে জিডি বিড়লা স্কুলের সামনে অভিভাবকদের বিক্ষোভে যোগ দিতে যান রাজ্যসভার বিজেপি সাংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায়।কিন্তু অভিভাবকদের বিক্ষোভের মুখে পরে ফিরে যান তিনি। এরপর যখন সন্ধ্যায় দলের কোর কমিটির বৈঠক হয় তখন তাঁকে সাফ জানানো হয় দল চায় না যে জিডি বিড়লার মতো ঘটনায় কোনো রাজনৈতিক রং লাগুক। সুতরাং রূপা দেবীর ওখানে আর যাবার প্রয়োজন নেই। কিন্তু রূপা দেবী জানান তিনি আবার যাবেন। তিনি ব্যক্তিগতভাবে যেতে চান কোনো রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি হিসাবে নয়। এমনটা জানিয়েছেন দিলীপ ঘোষ। আর এদিকে রূপাদেবীকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, ‘‘সোমবার কাউকে জানিয়ে ওখানে যাইনি। কিন্তু ওখানে যেতে আমাকে কোর কমিটির বৈঠকে কেউ নিষেধও করেননি।’’ফলে এই নিয়ে রাজনৈতিকমহল কিছুটা ভাবনায় পড়েছে। তিনি জানান তিনি যাবেন কারণ জিডি বিড়লা স্কুলের পাড়ায় ছোটবেলা থেকে জীবনের দীর্ঘ সময় কাটিয়েছেন।সাংসদ ও সমাজকর্মী হিসাবে দেশের যে কোনও জায়গায় তিনি যেতে পারেন কারও অনুমতি ছাড়াই। এদিকে আবার যখন রূপাদেবীকে স্কুলে যেতে মানা করা হচ্ছে তখন বিজেপির মহিলা মোর্চার সভানেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায় যাদবপুর থানার সামনে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। তাঁকে অনুমতি দেওয়া হলে রূপা গঙ্গোপাধ্যায়কে কেন নয় প্রশ্ন উঠছে এখন দলের অন্দর বাইরে সব জায়গায়।লকেট দেবী শুধুমাত্র থানাতেই বিক্ষোভ দেখেননি।সাথে শিশুটির বাড়িও যান। মহিলা মোর্চা এ দিন ওই স্কুলের অধ্যক্ষাকে গ্রেফতারের দাবিতে মিছিল করে। লালবাজারে অভিভাবকদের জমায়েতেও ঝান্ডা ছাড়া যোগ দেন মহিলা মোর্চার কর্মীরা।আর এই নিয়েই শুরু জল্পনা হঠাৎ কি এমন হলো যে রূপা গাঙ্গুলিকে দল এইভাবে সরিয়ে দিচ্ছে। প্রশ্ন থাকলেও আপাতত উত্তর এখনো পর্যন্ত নেই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!