এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ঋতব্রতকে মুখ্যমন্ত্রীর পদ দেওয়ার পেছনে “আসল রহস্য” ফাঁস করলেন মুকুল রায়

ঋতব্রতকে মুখ্যমন্ত্রীর পদ দেওয়ার পেছনে “আসল রহস্য” ফাঁস করলেন মুকুল রায়

কিছুদিন আগে এই দুই দলহারা নেতা একে অপরের কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে বেশ ভালোই চলছিলেন। হঠাৎই তৃনমূলেল প্রাক্তন সৈনিক মুকুল রায় যোগ দিলেন বিজেপিতে। এরপরই নানা মহলে জল্পনা শুরু হয় তাহলে কি মুকুলের পথেই পা বাড়িয়ে বিজেপিতেই যাবেন সিপিএম থেকে বহিস্কৃত সাংসদ ঋতব্রত ভট্টাচার্য? কিন্তু না। তেমনটা আর হল না। সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই প্রাক্তন বাম নেতার হাতে তুলে দেন রাজ্য সরকারের আদিবাসী উন্নয়ন কমিটির চেয়ারম্যানের দ্বায়িত্ব। স্বভাবতই তৃনমূলে যোগ না দিলেও ঋতব্রত যে এখন ঘাসফুল শিবিরেরই সৈনিক তা নিঃসন্দেহে বলাই যায়। আর শনিবার সেই ঋতব্রতকে সরকারি পদ দেওয়া নিয়ে একদা তৃনমূবের সেকেন্ড ইন কমান্ড তথা বর্তমান বিজেপি নেতা মুকুল রায় তীব্র ভাষায় কটাক্ষ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এদিন উত্তর 24 পরগনা ব্যারাকপুরে বিজেপির এক অনুষ্টান থেকে মুকুল রায় বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী আদিবাসী উন্নয়নের জন্য কোর কমিটি তৈরি করে সেখানকার চেয়ারম্যান করেন ঋতব্রত ভট্টাচার্যকে। আর এই ঘটনাই প্রমান করে তৃনমূলে কোনোও লোক না থাকাতেই ঋতব্রতকে ডেকে এনে চেয়ারম্যান করতে হচ্ছে।” পাশাপাশি এদিনের সভা থেকে রাজ্যের সন্ত্রাস, কলেজে তোলাবাজি ইস্যুতে তৃনমূলকে একহাত নিয়ে এই বিজেপি নেতা বলেন,”এসবই হচ্ছে মুখ্যমন্ত্রীর প্রশ্রয়ে। 2019 এ তৃনমূলের কফিনে শেষ পেরেকটা পোতা হবে।” রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, ঋতব্রত তৃনমূলে যোগ না দেওয়াতেও তাকে সরকারি পদ দিয়ে বিজেপির পদহীন মুকুল রায়কে তৃনমূল কটাক্ষ করতে চাইলেও এদিনের বিজেপির সভা থেকে সেই মুকুল রায় একদিকে তৃনমূলের নীচুতলার কর্মীদের সম্পর্কে ঋতব্রত সম্পর্কে যে ভুল ধারনা রয়েছে সেটিকে আরও বৃদ্ধি করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই চাপে ফেলে দিলেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!