এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > আগামী মাস থেকেই রেশনে দুর্নীতি রুখতে বড়সড় পদক্ষেপ নিতে চলেছে খাদ্য দপ্তর

আগামী মাস থেকেই রেশনে দুর্নীতি রুখতে বড়সড় পদক্ষেপ নিতে চলেছে খাদ্য দপ্তর

এবার রেশনিং ব্যবস্থায় কারচুপি বন্ধ করতে উদ্যোগী হচ্ছে রাজ্য সরকার। দীর্ঘদিন ধরে রাজ্যের বিভিন্ন জেলা থেকে রেশন সামগ্রী নিয়ে কারচুপির অভিযোগ আসায় বিপর্যস্ত হয়ে উঠেছিল রাজ্য খাদ্য দপ্তর। আর তাই অবশেষে এই কারচুপিকে বন্ধ করতে উত্তরবঙ্গের দুটি ও দক্ষিণবঙ্গের চারটি জেলায় এফপিএস পরিষেবা চালু করতে চলেছে রাজ্য।

কিন্তু এই এফপিএস পদ্ধতি প্রয়োগ করে ঠিক কিভাবে কারচুপি কমবে? জানা গেছে, এই পদ্ধতিতে গ্রাহকরা ডিজিটাল রেশন কার্ড সোয়াইপ করলেই বরাদ্দ রেশন তালিকার নাম, পরিমাণ ও দামের তালিকা পাবেন। পরবর্তীতে উপযুক্ত দামের বিনিময়ে তাকে নির্দিষ্ট রেশন সামগ্রী দেওয়া হবে। আর এই সমস্ত প্রক্রিয়া মুহূর্তের মধ্যেই পৌঁছে যাবে রাজ্য খাদ্য দপ্তরের সার্ভারে।

এমনকি কোথায় কত এই বন্টন প্রক্রিয়া চলছে তার হিসেবও জমা পড়বে রাজ্য খাদ্য দপ্তরে। আর তাই ইতিমধ্যেই এই ব্যবস্থাকে চালু করতে পাইলট প্রজেক্ট হিসেবে উত্তরবঙ্গের জলপাইগুড়ি, দক্ষিণ দিনাজপুর এবং দক্ষিণবঙ্গের পূর্ব মেদিনীপুর, পূর্ব বর্ধমান, হুগলী ও উত্তর 24 পরগনা জেলাতে এটি চালু করার চিন্তাভাবনা করছে রাজ্য খাদ্য দপ্তর।

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় এই নতুন ব্যবস্থা চালুর জন্য সব রকম প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। জানা গেছে, এই জেলায় মোট রেশন দোকানের সংখ্যা 303 টি। আর যার মধ্যে বালুরঘাট ও গঙ্গারামপুর ব্লকের 50 টি রেশন দোকানকে এই ডিজিটাল পরিষেবার আওতায় আনা হয়েছে।

ইতিমধ্যেই এই ব্যাপারে রেশন ডিলারদের প্রশিক্ষণ শিবিরও শুরু করেছে একটি সংস্থা বলে জানিয়েছেন দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা খাদ্য দপ্তরের আধিকারিক অমর রায়। পাশাপাশি রাজ্য সরকারের এহেন উদ্যোগ প্রসঙ্গে এমআর ডিলার সংগঠনের দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার সভাপতি কমলেশ ফৌজদার বলেন, “এটা ভীষনই সাধুবাদ উদ্যোগ। সরকারকে আমরা সমস্ত রকম সহযোগিতা করব।”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

পাশাপাশি রাজ্যের কাছে এই ব্যাপারে বেশি কর্মী ও কমিশন বৃদ্ধিরও আবেদন জানিয়েছেন তিনি। সব মিলিয়ে আগামী ডিসেম্বরে চালু রেশন ব্যবস্থায় কারচুপি রুখতে এই পাইলট প্রজেক্ট প্রকল্পে আদৌ কতটা সাফল্য পায় রাজ্য খাদ্য দপ্তর এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!