এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > নবান্নে জমা পড়ল গোয়েন্দা রিপোর্ট – বিজেপি-আরএসএসের দিকে বিস্ফোরক অভিযোগের ইঙ্গিত

নবান্নে জমা পড়ল গোয়েন্দা রিপোর্ট – বিজেপি-আরএসএসের দিকে বিস্ফোরক অভিযোগের ইঙ্গিত

পঞ্চায়েত নির্বাচনে অশান্তি সৃষ্টি বা সম্প্রতি ইসলামপুরের দাড়িভিটে গন্ডগোল – প্রায় সব ঘটনাতেই বহিরাগত বা বিজেপি-আরএসএসের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছে রাজ্যের শাসকদল তৃনমূল কংগ্রেস। আর এবার তৃনমূলের সেই অভিযোগকে সত্যি করেই রাজ্যের বেশ কটি জেলায় বহিরাগতরা টাকার জোরে গন্ডগোল পাকাচ্ছে বলে নবান্নে জমা পড়া একটি রিপোর্টে দাবি করে গোয়েন্দারা।

জানা গেছে, এবারের পঞ্চায়েত নির্বাচনে যেসব জায়গায় ভালো ফল করেছে বিজেপি মূলত সেইসব জেলাগুলিতেই এই উস্কানিমূলক ঘটনা ঘটার ইঙ্গিত পাচ্ছেন গোয়েন্দারা। যেই তালিকায় রয়েছে – কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, উত্তর ও দক্ষিন দিনাজপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়ার মত জেলাগুলি। গোয়ান্দাদের ধারনা, আগামী লোকসভা ভোটের আগে রাজ্যের ভাবমূর্তি খারাপ করতে এই সমস্ত জায়গায় অশান্তি ছড়াতে পারে বহিরাগতরা।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না – তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এমনকী গত সোমবার আদিবাসী সংগঠনের ডাকে যেভাবে রেল অবরোধ করা হল তাতে মাওবাদী যোগ থাকার ইঙ্গিত পাচ্ছেন অনেকেই। আর তাই এখন থেকেই রাজ্যের শান্তিস্থাপনে সীমান্ত এলাকায় বিশেষ নজড় দেওয়ার পাশাপাশি উস্কানিমূলক মন্তব্য যাতে কেউ না করেন সেই ব্যাপারে প্রশাসনকে বাড়তি দৃষ্টি রাখতে বলা হয়েছে। শুধু তাই নয়, কদিন আগে ইসলামপুরের দাড়িভিটে পুলিশের বিরুদ্ধে জেলা বিজেপির সভাপতি যে ভাষায় কথা বললেন তার পুনরাবৃত্তি ফের কোনো বিজেপি নেতা করলে তাঁর ঠিকানাও যে সেই শ্রীঘরই হবে সেই ব্যাপারেত চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন রাজ্যের গোয়েন্দারা।

এহেন একটা পরিস্থিতিতে আগামী ৯ ই অক্টোবর পূর্ব ভারতের চার রাজ্য বিহার, ঝাড়খন্ড, ওড়িশা এবং বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে নিয়ে একটি ইস্টার্ন জোনাল কাউন্সিলের বৈঠক করবেন কেন্দ্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বলে জানা গিয়েছে। আর সেখানেই রাজ্যের এই সমস্যা তুলে ধরা হবে বলে সূত্রের খবর। এদিকে রাজ্যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিতে নবান্নে জমা পড়া গোয়েন্দাদের রিপোর্টে বিজেপি এবং আরএসএসকে দায়ী করা হলে এদিন এই ব্যাপারে মুখ খোলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে সব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে তিনি বলেন, “পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে থেকে এই বহিরাগতদের নিয়ে আষাঢ়ে গল্প শোনানো হচ্ছে। আগে বেআইনি টাকা এবং বহিরাগতদের ধরা হোক, তারপর এসব শুনব”। সব মিলিয়ে গোয়েন্দা রিপোর্টে রাজ্যের অশান্তিতে বিজেপি-আরএসএসের নাম উঠে আসায় চরম চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হল রাজনৈতিক মহলে। প্রসঙ্গত, এতদিন রাজ্যের যে কোন অশান্তির পিছনে শাসকদলের অভিযোগের অভিমুখ থাকত বিজেপি, কিন্তু ইসলামপুর-পরবর্তী পর্যায়ে লক্ষ্যণীয়ভাবে বিজেপির সঙ্গে আরএসএসের নামও বারবার জড়িয়ে যাচ্ছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!