এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কুপন কেটে উঠবে রথযাত্রার খরচ- গেরুয়া শিবিরের ‘হাই-ভোল্টেজ- ইভেন্ট’ নিয়ে অভিনব সিদ্ধান্ত

কুপন কেটে উঠবে রথযাত্রার খরচ- গেরুয়া শিবিরের ‘হাই-ভোল্টেজ- ইভেন্ট’ নিয়ে অভিনব সিদ্ধান্ত

আগামী লোকসভা নির্বাচনে বাংলাই পাখির চোখ গেরুয়া শিবিরের। আর তাইতো বাংলার মাটিতে পদ্মকে ফোটাতে বদ্ধপরিকর বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতারা রথযাত্রারকে ঘিরে জনসংযোগের প্রস্তুতিতেই চরম ব্যস্ত রয়েছেন। সূত্রের খবর, আগামী 5 ডিসেম্বর থেকে রাজ্যে শুরু হচ্ছে বিজেপির এই রথযাত্রা। প্রথম দিন তারাপীঠ, এরপর 7 ডিসেম্বর কোচবিহার এবং 9 ডিসেম্বর সাগর থেকে সূচনা হবে এই রথযাত্রার। আরিফ প্রতিটি কর্মসূচির সূচনা লগ্নেই উপস্থিত থাকবেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশ, ত্রিপুরা সহ একাধিক বিজেপি শাসিত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরও থাকার কথা বাংলায় বিজেপির এই রথযাত্রার কর্মসূচিতে। বিজেপির একাংশের মতে, এবারের রথযাত্রার অতীতের সমস্ত রেকর্ডকে ছাপিয়ে যাবে। জানা গেছে, 1990,1992 এবং সর্বশেষ 2011 সালে বাংলায় এই রথযাত্রার কর্মসূচি নিয়েছিল বিজেপি নেতারা। তবে কোনো বারই 40 দিনের বেশি এই কর্মসূচি পালিত হয়নি। আর এবার সেই কর্মসূচি পালিত হচ্ছে দেড় মাস ধরে। জানা গেছে, রাজ্যের 42 টি লোকসভা কেন্দ্রে ছুয়ে যাবে বিজেপির এই রথ। তবে 42 টি লোকসভা কেন্দ্র ছুঁয়ে গেলেও শেষে রাজ্যের 3 প্রান্ত থেকে শুরু হওয়া এই তিনটি রথই মিলবে কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে। যেখানে জনসভা করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো  করুন এই লিঙ্কেখবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক

কিন্তু এই বিশাল মাপের কর্মসূচিতে যে পরিমাণ অর্থের প্রয়োজন তা কিভাবে জোগান দেবে রাজ্য বিজেপি? সূত্রের খবর, আসন্ন কালীপুজোর পর থেকেই এই রথ যাত্রার অর্থের জন্য বাড়ি বাড়ি গিয়ে কুপন কেটে চাঁদা তোলার অভিযান চালাবে গেরুয়া শিবিরের নেতারা। এদিন এ প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি তথা কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা বলেন, “অতীতের মতো এবারেও রথযাত্রার বিপুল খরচ তুলতে চাঁদা তোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কুপনও ছাপানো হবে। সাধারণ মানুষের কাছে দিয়ে অর্থ সাহায্য চাইব। যে যার সাহায্য মত অনুদান দেবেন।” সব মিলিয়ে বাংলায় রথযাত্রাকে ঘিরে অর্থের যোগান পেতে সাধারণ মানুষেরই দ্বারস্থ মুরলীধর লেনের কর্তারা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!