এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > রথযাত্রার পথ নিয়ে এবার অশান্তি শুরু গেরুয়া শিবিরের অন্দরে, মানতে নারাজ নেতৃত্ব

রথযাত্রার পথ নিয়ে এবার অশান্তি শুরু গেরুয়া শিবিরের অন্দরে, মানতে নারাজ নেতৃত্ব

লোকসভা ভোট প্রচারের উদ্দেশ্যে আয়োজিত বিজেপির রথ কোন পথ দিয়ে যাবে তা নিয়েই মতবিরোধ তুঙ্গে আলিপুরদুয়ারের বিজেপি শিবিরে। জেলায় দলের ২১ টি মন্ডলের অধিকাংশ এলাকাকে বিজেপির রথ ছুঁয়ে যেতে পারছে না,এ নিয়ে অসন্তোষ ঘনীভূত হচ্ছে বিজেপির একাংশের মধ্যে। যেসব এলাকা দিয়ে দলের রথ যাচ্ছে না সেসব এলাকার দলীয় কর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ দানা পাকাচ্ছে।

অভিযোগে তাঁরা জানিয়েছেন,তাঁদের সুবিধার দিকটিকে এড়িয়ে একতরফা সিদ্ধান্তে রুটি ঠিক করা হয়েছে। এর ফলাফল মোটেই ইতিবাচক হবে না। তবে এ অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেই দাবী করেছেন জেলা নেতৃত্ব। কেন্দ্রের নির্দেশেই রথযাত্রার রুট ঠিক করা হয়েছে, এমনটাই দাবী তাঁর।

দলীয় সূত্রের খবর থেকে জানা গিয়েছে, আগামী ৯ ডিসেম্বর বিজেপির এই রথ কোচবিহার থেকে বেরিয়ে কুমারগ্রামের কামাখ্যাগুড়ি দিয়ে বারোবিশায় দলের সভা ছুঁয়ে আলিপুরদুয়ার শহরে প্রবেশ করবে। জেলা সদরের প্যারেড গ্রাউন্ড মাঠে সভা করার পর রথ সেদিন আলিপুরদুয়ারেই থাকবে।

পরের দিন অর্থাৎ ১০ তারিখ দলের রথ কালচিনি ও মাদারিহাট বিধানসভা ছুঁয়ে ফালাকাটায় নির্ধারিত জনসভাতে যাবে। জনসভা শেষ হতেই দলের রথ ওই দিনই জলপাইগুড়ি জেলায় চলে যাবে। এখন জেলা বিজেপি’র ২১ টি সাংগঠনিক মন্ডল রয়েছে। আসন্ন রথযাত্রার রুটে প্রায় অর্ধেক মন্ডল এলাকাই পড়ছে না। এ নিয়ে প্রশ্ন তুলে জেলা নেতৃত্বের কোপের মুখে পড়ার ভয় সকলেই ইস্যুটি নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটে ছিল।

তবে দলের জেলা কমিটির আমন্ত্রিত সদস্য হেমন্ত রায় অবশ্য স্বীকার করে নিয়েছেন বঞ্চিত মন্ডল সভাপতিদের ক্ষোভ থাকার যথেষ্ট কারণ রয়েছে। রথযাত্রার রুটে বাদ পড়েছে আলিপুরদুয়ার-১ ব্লকের একটি বিস্তীর্ণ এলাকা। এ নিয়ে মৃদু ক্ষোভ প্রকাশ করেন দলের জেলা কমিটির প্রাক্তন সভাপতি গুনধর দাস।

তাঁর বক্তব্য,জেলার ১০০% এলাকা না হলেও যাতে ৭০% এলাকা রথ ছুঁয়ে যেতে পারে সেদিকে নজর দেওয়ার দরকার ছিল। কিন্তু সেদিকে কর্তৃপক্ষ কোনো ভ্রুক্ষেপই করেনি। এসব মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে জবাব দিতে মুখ খুললেন দলের জেলা সভাপতি গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা। তাঁর যুক্তি,সময়ের অভাবে জেলার সব মন্ডল দিয়ে এই রথ নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। আর সবদিক বিচার করেই রথযাত্রার রুটের নকশা ঠিক করে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তাই এ নিয়ে অযথা জটিলতা বাড়িয়ে লোকসভা ভোটের আগে এমন পরিস্থিতি তৈরি করা উচিৎ নয়,যাতে বিরোধীরা আক্রমণের সুযোগ পায়। এমনটা বলেই দলীয় কর্মীদের হুঁসিয়ারী দিলেন জেলা সভাপতি। এখন এই প্রেক্ষিতে দলীয় সদস্যদের অসন্তোষ কমাতে কেন্দ্র থেকে রথযাত্রার রুটে কোনো পরিবর্তন আনা হবে কিনা তা নিয়ে তীব্র জল্পনা শুরু হয়েছে রাজ্য রাজনৈতিকমহলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!