এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > রামমন্দির ইস্যুতে কংগ্রেসকে বেকায়দায় ফেলে বড় মন্তব্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির

রামমন্দির ইস্যুতে কংগ্রেসকে বেকায়দায় ফেলে বড় মন্তব্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির


কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকারকে হঠাতে যখন বিরোধীরা একযোগে বিজেপির বিরুদ্ধে বিরোধী মহাজোট তৈরিতে ব্যস্ত, ঠিক তখনই শনিবার দিল্লিতে বিজেপির জাতীয় কনভেনশনে এসে সেই বিরোধীদেরই কড়া ভাষায় আক্রমণ করলেন কেন্দ্রের বর্তমান বিজেপি সরকারের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

প্রসঙ্গত, বর্তমানে দেশের হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলোর পাশাপাশি বিরোধীদের তরফেও কেন্দ্রের বিজেপি সরকার ভোটের সময় রামকে ব্যবহার করে বলে অভিযোগ তোলা হয়েছে। 2014 সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে দেশে রামমন্দির করা হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিলেও এখনও সেই ব্যাপারে একধাপ এগোয়নি কেন্দ্রের বর্তমান মোদি সরকার বলেও বিভিন্ন সময় গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে তোপ দাগতে দেখা গেছে বিরোধীদের।

কিন্তু এদিনের বক্তব্যে সেই রামমন্দির না হওয়ায় বিরোধীদেরই দোষারোপ করলেন নরেন্দ্র মোদি। এদিন তিনি বলেন, “রাম মন্দির নিয়ে ওরা কোনো সমাধান চায় না। বারবার আইনি পদ্ধতিকে প্রভাবিত করছে কংগ্রেস। আমরা এই মানসিকতাকে কোনোদিন ভুলবো না এবং ভুলতে দেবোও না।”

অন্যদিকে সম্প্রতি বাংলার শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বাধিনায়কা তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পকে কেন্দ্র নিজেদের বলে প্রচার করায় রাজ্য কোনো টাকা দেবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন। এদিন সেই প্রসঙ্গে মুখ খুলে রাজ্যের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন প্রধানমন্ত্রী।

নরেন্দ্র মোদী বলেন, “আয়ুষ্মান ভারতের আগে কি নরেন্দ্র মোদির নাম লেখা আছে! আমরা জানি ব্যক্তির থেকে দল অনেক আগে। আর দলের থেকে দেশ অনেক আগে। বিরোধীদের তরফে বারবার বলা হচ্ছে আমি নাকি প্রকল্পের নাম বদলে দিচ্ছি! তো তারাই বলুন না কতগুলো প্রকল্পের নাম নরেন্দ্র মোদির নামে আছে!”

 

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে দেশের বিরোধীদের দখলে থাকা অবিজেপি রাজ্য গুলির মধ্যে ছত্রিশগড়, মধ্যপ্রদেশ এবং পশ্চিমবঙ্গে সিবিআই তদন্তের ব্যাপারে সেখানকার শাসকদলের অনীহার ব্যাপারে এদিন সেই বিরোধীদের কটাক্ষ করে নরেন্দ্র মোদি বলেন, “গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন ইউপিএ সরকারের আমলে আমাকে 12 বছর হেনস্থা করা হয়েছে। অমিত শাহকে গ্রেপ্তারের পরেও আমরা সিবিআই তদন্ত বন্ধ করিনি। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গ, অন্ধপ্রদেশ এবং ছত্রিশগড় সিবিআই তদন্ত বন্ধ করল কেন! তাহলে কি তাঁরা কোনো অনিয়ম করেছে!”

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, দীর্ঘদিন ধরেই বিরোধীদের পক্ষ থেকে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে সিবিআইকে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করা হত। কিন্তু এবার কেন্দ্রের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সেই সিবিআই তদন্তের ব্যাপারে রাজ্যগুলির আপত্তি নিয়ে সেই রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধানদেরকেই প্রবল চাপে ফেলার চেষ্টা করলেন।

অন্যদিকে দলের জাতীয় পরিষদের সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে কেন্দ্রের বর্তমান বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে কোনো দুর্নীতির অভিযোগ নেই বলে ফের নিজেদের স্বচ্ছ ভাবমূর্তি সাধারণের কাছে তুলে ধরার চেষ্টা করেন নরেন্দ্র মোদি। সব মিলিয়ে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে দলের জাতীয় পরিষদের সভা মঞ্চকেই বেছে নিয়ে একদিকে নিজের সরকারের উন্নয়ন, আর অন্যদিকে বিরোধীদের কটাক্ষ করে লোকসভা নির্বাচনের দামামা বাজিয়ে দিলেন কেন্দ্রের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!