এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া > রাজ্যে ফের তৃণমূলের ঘর ভাঙলো, বিজেপিতে যোগ দিলেন নেত্রী,জেনে নিন

রাজ্যে ফের তৃণমূলের ঘর ভাঙলো, বিজেপিতে যোগ দিলেন নেত্রী,জেনে নিন

লোকসভা নির্বাচনের পর থেকেই ভাঙ্গন অব্যাহত তৃণমূল কংগ্রেসে। প্রায় প্রত্যেকদিনই ছোট বড় নেতা ও কর্মী সমর্থক শাসকদল থেকে পাড়ি জমাচ্ছেন বিজেপিতে।সেই ধারা বজায় রেখে সোমবার জোড়া ফুল ছেড়ে গেরুয়া শিবিরে নাম লেখালেন বাঁকুড়ার ওন্দার কল্যানী গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল প্রধান রীণা শর্মা সহ ছয় সদস্য। ফলে ৯ সদস্যের এই গ্রাম পঞ্চায়েতটি তৃণমূলের থেকে ছিনিয়ে নিল বিজেপি।

এই প্রসঙ্গে বলা যায় ১৯ এর লোকসভা নির্বাচনের পর কার্যত ধস নেমেছে বাঁকুড়া জেলা তৃণমূলের দলীয় সংগঠনে। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে দলীয় নেতাকর্মীদের বিজেপিতে যোগ দেওয়ার প্রবণতা। হাতছাড়া হচ্ছে একের পর এক গ্রাম পঞ্চায়েত।এর আগে এই এলাকার রতনপুর, নাকাইজুড়ি, চুড়ামনিপুর, কাঁটাবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের সিংহভাগ তৃণমূল সদস্য বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। এবার নবতম সংযোজন কল্যানী গ্রাম পঞ্চায়েত।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

সোমবার সপ্তাহের প্রথম কাজের দিন তৃণমূল প্রধান রীণা শর্মা সহ ছ’জন সদস্য বাঁকুড়ার রামসাগর অঞ্চল বিজেপি কার্যালয়ে এসে বিষ্ণুপুর জেলা সাংগঠনিক সাধারণ সম্পাদক অমরনাথ শাখার হাত থেকে বিজেপির পতাকা হাতে তুলে নেন। যদিও এখনো পর্যন্ত ঐ পঞ্চায়েতের উপপ্রধান তৃণমূলে রয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।তৃণমূলত্যাগী এই গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান রিনা শর্মা সহ ছয় সদস্য জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে ও নিজের এলাকার উন্নয়নের লক্ষেই তারা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন।

বিজেপির বিষ্ণুপুর সাংগঠনিক জেলা সাধারণ সম্পাদক অমরনাথ শাখা স্পষ্টতই বলেন, তৃণমূল এখন ডুবন্ত জাহাজ যা আর কোনোদিন ভেসে উঠবে না।তিনি আরো বলেন ২০১১ সালে তৃণমূল যে ‘ট্রেলার’ দেখিয়েছিল, আমরাও সেই ট্রেলার দেখাতে শুরু করেছি। ইতিমধ্যে রতনপুর, নাকাইজুড়ি, চুড়ামনিপুর, কাঁটাবাড়ি পঞ্চায়েত দখলে এসেছে।এইবার কল্যাণী গ্রাম পঞ্চায়েতও দখলে এলো।অন্যান্য গ্রাম পঞ্চায়েত গুলিও দখল করার চেষ্টা জারি থাকবে।ওন্দার তৃণমূল বিধায়ক অরুপ খাঁকে ‘বালি মাফিয়া’ আখ্যা দিয়ে তিনি আরো বলেন, ওনার এই এলাকায় ওঁর কোন অস্তিত্ব নেই।

একের পর এক দলবদলের পর তৃণমূলের প্রাক্তন জেলা সভাপতি, বিধায়ক অরুপ খাঁ এর ‘খাসতালুক’ হিসেবে পরিচিত ওন্দা ব্লক এলাকায় তৃণমূল শিবির এই মুহূর্তে অনেকটাই দুর্বল। পাশাপাশি শক্তিশালী হয়ে উঠছে বিজেপি। যদিও এবিষয়ে শাসকদলের তরফে প্রকাশ্যে কেউ কিছু বলতে নারাজ। তৃণমূলের একাধিক নেতার সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাদের কোনও উত্তর পাওয়া যায়নি।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!