এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > সিবিআই জেরার পরেই জল্পনা বাড়িয়ে কলকাতা পুলিশ কমিশনারের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল রাজীব কুমারকে

সিবিআই জেরার পরেই জল্পনা বাড়িয়ে কলকাতা পুলিশ কমিশনারের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল রাজীব কুমারকে

অবশেষে আশঙ্কাকে সত্যি করে কোলকাতা পুলিশ কমিশনারের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল রাজীব কুমারকে। তাঁর পরিবর্তে ওই পদে স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন রাজ্যের এডিজি আইনশৃঙ্খলা অনুজ শর্মা। রাজীব কুমারকে পাঠানো হচ্ছে গোয়েন্দা দপ্তরে। এডিজি আইনশৃঙ্খলা পদে সিদ্ধানাথ গুপ্তাকে আনা হতে পারে বলেই খবর প্রশাসনিক সূত্রের।

চিটফান্ড কাণ্ডে সিবিআই জেরার পরই রাজীব কুমারকে কোলকাতার নগরপালের পদ থেকে সরানো হতে পারে এমনটাই জল্পনা শুরু হয়েছিল। অবশেষে সেই জল্পনাই সত্যি হতে চলেছে। যদিও এই পরিবর্তন রুটিন বদলি হিসাবেই দাবী করছে পুলিশ প্রশাসন৷ তবে সিবিআই জেরার অব্যবহিত পরেই এই রাজীব কুমারের এই পোস্ট বদলিকে লোকসভা ভোটের প্রেক্ষিতে তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

প্রশাসনিক সূত্র থেকে জানা গিয়েছে,গত ২০১৬ সালের ৩০ জানুয়ারি কোলকাতা পুলিশ কমিশনার পদে আসেন রাজীব কুমার। এই দক্ষ আইপিএস মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অত্যন্ত স্নেহভাজন হিসাবেই বেশ পরিচিত। মুখ্যমন্ত্রী প্রকাশ্যেই বহুবার রাজীবের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন। তবে সিবিআইয়ের জেরার পরই কেন তড়িঘড়ি করে কেন রাজীব কুমারকে কোলকাতা পুলিশ কমিশনারের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল?

এ নিয়ে প্রশ্ন তৈরি হয়েছে রাজনৈতিকমহলের একাংশের মধ্যে। এর নেপথ্যে অনেকেই লোকসভা ভোটে আগে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য রয়েছে বলেই মনে করছেন।

প্রসঙ্গত,গত ৩ ফেব্রুয়ারি সারদা কাণ্ডে জিজ্ঞাসাবাদের জন্যে হঠাৎ করেই রাজীব কুমারের বাড়িতে হানা দেয় সিবিআই। এর প্রতিবাদে কেন্দ্রবিরোধী সুর চড়া করে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ধর্নায় বসেন। এর জেরেই সিবিআই বনাম রাজ্যপুলিশের সংঘাতে সরগরম হয়ে ওঠে রাজ্যরাজনীতি।

তবে সুপ্রিম কোর্টের রায়ে ধরনা প্রত্যাহার করতে হয় মুখ্যমন্ত্রীকে এবং সিবিআইয়ের জেরার সম্মুখীন হতে হয় রাজীব কুমারকে। সিবিআইয়ের শিলং দপ্তরে টানা পাঁচদিন ধরে জেরা করা হয় রাজীব কুমারকে।

এরপর রাজীব কুমার সহ রাজ্য প্রশাসনের পাঁচ শীর্ষ কর্তার বিরুদ্ধে অবমাননার মামলা দায়ের হয় আদালতে। সেই মামলায় আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি হলফনামা দেওয়ার কথা রয়েছে রাজীব কুমারের। তার আগেই রাজীব কুমাকে কোলকাতা পুলিশ কমিশনারের পদ থেকে সরিয়ে বড়সড় পদক্ষেপ নিল রাজ্য প্রশাসন।

আপনার মতামত জানান -
Top