এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > এবার কি ছাঁটাই হতে চলেছে রেলকর্মীরা! আশঙ্কার মেঘ সর্বত্র

এবার কি ছাঁটাই হতে চলেছে রেলকর্মীরা! আশঙ্কার মেঘ সর্বত্র

 

দেশে বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই প্রতিটা ক্ষেত্রে কর্মী ছাঁটাই করে দেওয়ার মত তুঘলকী সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করতে দেখা যায় বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোকে। আর এবার বিরোধীদের সেই অভিযোগকে সত্যি করেই কি অবসরের আগে রেলে ব্যাপক ছাঁটাই করা হতে চলেছে! এই প্রশ্নই এখন উঠতে শুরু করেছে সর্বত্র। সূত্রের খবর, সম্প্রতি মোরাদাবাদ ডিভিশনের একটি চিঠিতে কেন্দ্র করে এই জল্পনা বাড়তি মাত্রা পেয়েছে।

জানা গেছে, সম্প্রতি বেশ কিছুদিন আগে উত্তর রেলের মোরাদাবাদ শাখার ডিভিশনাল ম্যানেজার সন্দীপ সাক্সেনা সেই ডিভিশনের ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের কাছে একটি চিঠি পাঠিয়েছিলেন। আর সেখানেই তিনি জানিয়েছেন, চলতি বছরের 30 সেপ্টেম্বরের মধ্যে যাদের বয়স 55 বছর হবে এবং যে সমস্ত ব্যক্তি ওই সময়সীমার মধ্যে রেল পরিষেবার 30 বছরের কর্ম জীবন কাটিয়ে ফেলবেন, সেই কর্মচারীদের নামের তালিকা চাওয়া হচ্ছে।

শুধু তাই নয়, সংশ্লিষ্ট শাখার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের গ্রেট পে 1900, 2000, 2400 এবং 2800 এর আওতায় থাকা ওই কর্মীদের নামের তালিকা দুদিনের মধ্যে ডিভিশন কার্যালয়ে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে বলেও জানানো হয়েছিল। আর এরপরই নানা মহলে তীব্র জল্পনা সৃষ্টি হয় যে, কেন হঠাৎ 55 বছর বয়সের রেলকর্মীদের নামের তালিকা চেয়ে পাঠানো হল!

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

তাহলে কি এবার তাদের ছাঁটাইয়ের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে! প্রসঙ্গত, অতীতে কর্মদক্ষতার ওপর বিচার করে রেলে ছাঁটাই পর্ব সম্পন্ন হয়েছে। তাই এবারও সেরকমই কিছু হতে পারে বলে মনে করছে একাংশ। সেদিক থেকে যে সমস্ত কর্মীর 50 থেকে 55 বছরের মধ্যে বয়স, তাদেরকেই এই রিভিউয়ের জন্য রেলের পক্ষ থেকে বসানোর ব্যবস্থা করা হতে পারে।

যদিও বা এই ব্যাপারে নানা আশঙ্কা এবং জল্পনা তৈরি হলেও, রেল মন্ত্রকের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, এটা রুটিন পর্যালোচনা মিটিং। কিন্তু সত্যিই কি তাই! নাকি এর পেছনে অন্য কোনো রহস্য কাজ করছে! এখন সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -
Top